সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ০৩:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সহিংসতায় ইয়েমেনে ২৭ শিশু নিহত নুসরাত হত্যা: সেই ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে টাইলসের কাজে ‘অনিয়মের’অভিযোগে ভিডিও ‘ভাইরাল’ জগন্নাথপুরে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মানস রায়ের স্মরণ সভা জগন্নাথপুরে ইমজা ওয়েলফেয়ার সোসাইটির উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে সরকারি ভূমি থেকে ৭টি দোকানঘর উচ্ছেদ জগন্নাথপুরে ইকড়ছই মির্জাবাড়ী যুব সংঘের ইফতার মাহফিল সেই ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা মিলেছে: পিবিআই এসকাপ সম্মেলনে যোগ দিতে থাইল্যান্ড যাচ্ছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান পাটলীতে ব্যারিষ্টার এনামুল কবির ইমন -উন্নয়নের মাধ্যমে শেখ হাসিনা বাংলাদেশ কে বদলে দিয়েছেন

হরিণ হত্যার দায়ে সালমান খান দোষী সাব্যস্ত

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৫ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৩৪ Time View
Indian Bollywood actor Salman Khan (C) arrives at the airport in Jodhpur on April 4, 2018 ahead of a verdict in the long-running blackbuck poaching case. Indian actor Salman Khan is accused of poaching the protected blackbuck species in the Jodhpur district of Rajasthan in September 1998, and the two-decade-long case has included co-defendants Sonali Bendre, Saif Ali Khan, Tabu, and Neelam Kothari. / AFP PHOTO / SUNIL VERMA

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান। তার এক থেকে ছয় বছর কারাদণ্ড হতে পারে।

এ মামলায় বলিউড অভিনেতা সাইফ আলী খান, টাবু, সোনালি বেন্দ্রে ও নীলম খালাস পেয়েছেন।

বৃহস্পতিবার যোদপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দেব কুমার খাতরি এ রায় ঘোষণা করেন।

সালমানের আইনজীবীরা এখন তার শাস্তি কমাতে আদালতের কাছে আবেদন করেছেন। যদি রায়ে সালমানের তিন বছরের কারাদণ্ডের শাস্তি হয়, তাকে তাৎক্ষণিকভাবে তার আইনজীবী একই আদালতে আপিল করতে পারবেন। তবে তার শাস্তি তিন বছরের বেশি হলে জামিনের জন্য তাকে উচ্চ আদালতে আবেদন করতে হবে।

মামলার রায় ঘোষণার সময় সালমান খান, সাইফ আলী খান, টাবু, সোনালি বেন্দ্রে ও নীলমও উপস্থিত ছিলেন। এ সময় সালমানের দুই বোন আলভিরা ও অর্পিতাও ছিলেন।

১৯৯৮ সালে ‘হম সাথ সাথ হ্যায়’ ছবির শুটিংয়ে গিয়ে যোদপুরের কঙ্কানি গ্রামের কাছে দুটি কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা করেন সালমান খান।

সালমান যখন জিপসি গাড়ি চালিয়ে শিকারে যান, তখন সাইফ আলী খান, টাবু, সোনালি বেন্দ্রে ও নীলমও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এ ঘটনার পর সালমানসহ অন্য অভিনেতাদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ) আইনের ৫১ নম্বর ধারায় মামলা করা হয়। এ ছাড়া বেআইনিভাবে জঙ্গলে ঢোকার অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৯ নম্বর ধারাতেও মামলা করা হয়।

গত ২৮ মার্চ নিম্নআদালতে কৃষ্ণসার মামলার চূড়ান্ত শুনানি শেষ হয়। তখন সালমান খানের আইনজীবী এইচএম সারস্বতের দাবি করেন, সরকারি কৌঁসুলি অভিযোগের সাপেক্ষে প্রমাণ সংগ্রহ করতেই পারেননি। মামলা সাজাতে ভুয়া সাক্ষী দাঁড় করিয়েছেন। এমনকি বন্দুকের গুলিতেই যে কৃষ্ণসার দুটির মৃত্যু হয়েছিল, তাও প্রমাণ করতে পারেননি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24