রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌকাবাইচ:এবার সোনার নৌকা,সোনার বৈঠা জিতল কুতুব উদ্দিন তরী জগন্নাথপুরে সড়ক সংস্কার-অবৈধ যান অপসারণের দাবীতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মালিক,শ্রমিক নেতারদের জগন্নাথপুরে এনজিও সংস্থা আশা’র উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপি ফিজিওথেরাপী চিকিৎসা ক্যাম্প শুরু জগন্নাথপুরে মারামারি মামলাসহ বিভিন্ন ওয়ারেন্টের ১১ আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ

হাওরের ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা অর্ধেক সুদে ঋণ পাবেন

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর, ২০১৭
  • ৬৯ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলে ১৫ দিন পরেই (কার্তিকের শেষে) বোরো আবাদ শুরু হবে। কিন্তু হাওরের ফসলহারা ঋণগ্রস্ত ১ লাখ ৭৩ হাজার ৬৩১ জন কৃষকের ঋণ বা ঋণের সুদ মওুূপের বিষয়ে কোন সুখবর নেই। তবে ৫ বছরের অধিককাল ধরে প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত দেনাদার কৃষকরা আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ঋণ পরিশোধ করলে সুদ মওকুপের সুবিধা পাবেন। এছাড়া সোনালী ব্যাংক এবং অগ্রণী ব্যাংক হাওরাঞ্চলের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের অর্ধেক অর্থাৎ সাড়ে ৪ শতাংশ সুদে ঋণ বিতরণ করছে। এক্ষেত্রে অবশ্যই দেনাদার কৃষককে ঋণ পুন:তফশিল করতে হবে। কৃষকরা বলেছেন, ‘এই সিদ্ধান্তে কৃষকদের ঋণের বোঝা বাড়বে। তবে ব্যাংক থেকে নতুন ঋণ নিতে পারবে।’
জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের কৃষক মো. নুরুল ইসলাম বলেন,‘১০ হাজার টাকা কৃষি ঋণ নিয়েছিলাম ৩ বছর আগে, এখন সুদসহ ঋণ পরিশোধ করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। এজন্য ব্যাংকে যাচ্ছি না।’ নুরুল ইসলাম জানালেন, চাষাবাদের সময় এসেছে, কিন্তু তাঁর কাছে কোন টাকা নেই। টাকা কোথায় পাবেন, এই নিয়ে চিন্তিত তিনি।
বিশ্বম্ভরপুরের প্রবীণ গণমাধ্যম কর্মী এবং কৃষক স্বপন কুমার বর্মণ বলেন,‘ব্যাংকগুলো বকেয়া ঋণের বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত দিয়েছে, তাতে ঋণের বোঝা বাড়বে, তবে নতুন ঋণ পাওয়ার সুযোগ হয়েছে।’
কৃষি ব্যাংকের সুনামগঞ্জ আঞ্চলিক শাখার উপ-মহাব্যবস্থাপক অজয় কুমার সাহা জানান, অক্টোবর মাসের ১৫ তারিখ থেকে তাঁরা ঋণ পুন:তফসিল করে নতুন ঋণ দেওয়া শুরু করেছেন। এই পর্যন্ত (২৫ অক্টোবর পর্যন্ত) ২২৯ জনকে ৯১ লাখ টাকা ঋণ প্রদান করেছেন তাঁরা।’
কৃষি ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা জানান, সোনালী ব্যাংক এবং অগ্রণী ব্যাংক ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মধ্যে সাড়ে ৪ শতাংশ সুদে কৃষিঋণ দেওয়া শুরু করেছে। কিন্তু কৃষি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ এখনো এই নির্দেশনা না দেওয়ায় শতকরা ৯ শতাংশ সুদের হারেই ঋণ নিতে হচ্ছে কৃষকদের।
এ ব্যাপারে ব্যাংকের উপ-মহাব্যবস্থাপক বলেন,‘এই বিষয়ে আমরা কোন নির্দেশনা পাইনি।’
সোনালী ব্যাংকের সুনামগঞ্জ আঞ্চলিক শাখার উপ-মহাব্যবস্থাপক বাসুদেব দাস এবং ঋণ কর্মকর্তা অসিত চৌধুরী বলেন,‘সাড়ে ৪ শতাংশ হারে ২৬০ জন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের মধ্যে ৫১ লাখ টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। পুন:তফসিলের মাধ্যমে এই ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। আগামী ফসল ওঠার পর-পরই পূর্বের ঋণ এবং নতুন ঋণ পরিশোধ করতে হবে। সর্বোচ্চ ১৮ মাসের মধ্যে ঋণ সুদ না করলে সুদের হার সাড়ে ৪ শতাংশের শর্ত ঠিক থাকবে না। যথারীতি ৯ শতাংশ হারেই ঋণের সুদ পরিশোধ করতে হবে।’
অগ্রণী ব্যাংকের সুনামগঞ্জ অঞ্চলের উপ-মহাব্যবস্থাপক আজিজুর রহমান বলেন,‘এই সংক্রান্ত তথ্য জানতে হলে, তথ্য অধিকার আইনে আবেদন করতে হবে।’
কৃষি ব্যাংকের দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা জানান, সুনামগঞ্জের এক লাখ ৭৩ হাজার ৬৩১ জন কৃষকের কাছে ২০ টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ৩০২ কোটি ৩৮ লাখ ৫৭ হাজার টাকা কৃষি ঋণ বকেয়া রয়েছে। ঋণ প্রদানকারী আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, বাংলাদেশ সোনালী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক, মার্কেন্টাইল ব্যাংক, উত্তরা ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক, এবি ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, কর্মসংস্থান ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক, এনসিসি ব্যাংক ও বিআরডিবি। এই আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি কৃষিঋণ প্রদান করেছে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক। সুনামগঞ্জ জেলায় ৯৬ হাজার ১৭৭ জন কৃষকের কাছে ২০১ কোটি ১৮ লাখ টাকা ঋণ বকেয়া রয়েছে ব্যাংকটির।
প্রসঙ্গত. বাঁধের কাজ না হওয়ায় সুনামগঞ্জের হাওরের ফসল ডুবে শতভাগ কৃষকের ধান তলিয়ে গেলে সরকারের দায়িত্বশীল অনেকেই কৃষি ঋণের সুদ মওকূপ আবার কোন কোন দায়িত্বশীলরা কৃষি ঋণ মওকুপেরও ঘোষণা দিয়েছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24