1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ০৩:৪৮ অপরাহ্ন

জেলে যেতে হবে এজন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত করেছিলেন নেত্রী শেখ হাসিনা- সৈয়দ আবুল কাশেম

  • Update Time : রবিবার, ১৭ মে, ২০২০
  • ৮৮ Time View

কারাগারে যেতে হবে। এই জন্যে মানসিকভাবে আমাদেরকে প্রস্তুত করেছিলেন আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা। লন্ডন থেকে যাত্রার প্রাক্কালে তিনি যে কথা বলেছিলেন, একই কথা বলেছিলেন বাংলাদেশের মাটিতে অবতরণের সময়। এও বলেছিলেন সাবধানে থাকার জন্যে। জননেত্রী শেখ হাসিনার কথা বাস্তবে রূপ নেয় এক সপ্তাহের মাথায়।

২০০৭ সালের ১৪ মে এর স্মৃতি চারণ করতে গিয়ে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সে সময়ের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ আবুল কাশেম একটি গনমাধ্যম কে জানাচ্ছিলেন বিস্তারিত। সৈয়দ আবুল কাশেম বর্তমানে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি।

তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আমেরিকা ছিলেন চিকিৎসার জন্যে গিয়েছিলেন। চিকিৎসা শেষে তিনি যুুক্তরাজ্যে আসেন। উঠেন লন্ডনের একটি ফ্লাটে। এখান থেকে দেশে আসার কথা ছিল ব্রিটিশ এয়ার ওয়েজে। হিথ্রো বিমান বন্দরের চার নম্বর টার্মিনালে আসার পর ব্রিটিশ এয়ার ওয়েজ বোর্ডং দিতে অপরাগতা প্রকাশ করে। এনিয়ে অনেক হৈ চৈ হয়। বোর্ডং না পেয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনা লন্ডন সিটির টাওয়ারে ফেরেন। একদিন পর বাসস্থান পরিবর্তন করেন। সেখান থেকে দেশে আসার পরিকল্পনা নেন। কোনো বিমানই জননেত্রী শেখ হাসিন কে বহন করতে অপরাগতা প্রকাশ করে। তবে ইত্তেহাদ এয়ার ওয়েজ জননেত্রীকে বহন করার সম্মতি দেয়।

লন্ডন সিটিতে অবস্থানকালে আবুল কাশেম সার্বক্ষণিক পাশেই অবস্থান করতেন। সিআইপি এমএ রহিমও ছিলেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদেরকে তাঁর সঙ্গি হওয়ার জন্যে বললেন। আমরাও জননেত্রী শেখ হাসিনার সফর সঙ্গি হয়ে দেশে ফিরলাম। তিনি জানিয়ে দিলেন সাবধানে থাকার জন্যে। কারাগারেও যেতে হতে পারে আমাদেরকে।

সৈয়দ আবুল কাশেম জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনার ওই কথা সত্য হয়েছিল। আমাদেরকে কারাগারে যেতে হয়েছিল। ১৪ মে সিলেট শহরতলির বটেশ্বরে আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করি। ওই অনুষ্ঠান থেকে অনেকে চলে গিয়েছিলেন। বেলা দেড়টার দিকে যৌথ বাহিনী ওই বাড়ি ঘেরাও করে আমাদের ৪০ জন নেতাকে আটক করে। সঙ্গে আমিও ছিলাম। রাতের মধ্যে আমাদের কারাগারে পাঠানো হয়। কুটনৈতিক চাপে ২১ দিনের মাথায় মুক্তি পাই, আমরা যারা ব্রিটিশ নাগরিক ছিলাম।
সূত্র দৈনিক বায়ান্ন

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Design & Developed By ThemesBazar.Com