1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
আত্মীয়দের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষায় যে কল্যাণ - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন

আত্মীয়দের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষায় যে কল্যাণ

  • Update Time : সোমবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ১১৪ Time View

পুরো পৃথিবীকে আল্লাহ এক বাঁধনে জড়িয়ে রেখেছেন। পৃথিবীর সব মানুষই এক আত্মা ও আত্মীয়তার বাঁধনে জড়িত। আত্মার এ বাঁধনে ইসলাম কোনো বিভেদের দেয়াল রাখেনি। মুসলিম হোক বা অমুসলিম, আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করা যাবে না, রক্ষা করতে হবে—এমনই নির্দেশ দিয়েছেন আল্লাহ রাব্বুল আলামিন।

পৃথিবীতে আমাদের জন্ম ও আগমনের আদিকথা স্মরণ করিয়ে তিনি বলছেন, ‘হে মানবজাতি, তোমাদের প্রতিপালককে ভয় করো, যিনি তোমাদের সৃষ্টি করেছেন এক মানব থেকে এবং তারই থেকে সৃষ্টি করেছেন তার জুটি। অনন্তর তাদের উভয় থেকে পৃথিবীতে ছড়িয়ে দিয়েছেন অগণন নারী-পুরুষ। তোমরা ভয় করো আল্লাহকে, যার অসিলা দিয়ে তোমরা একে অন্যের কাছে নিজেদের হক চেয়ে থাকো এবং ভয় করো আত্মীয়দের অধিকার হরণের বিষয়। নিশ্চয়ই আল্লাহ তোমাদের প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রাখেন’ (সুরা নিসা, আয়াত : ১)।

মহান আল্লাহ এখানে মৌলিক তিনটি বিষয়ের প্রতি আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন—

১. সৃষ্টিকর্তা হওয়ার কারণে এক আল্লাহকে ভয় করা ও কেবল তারই ইবাদত-আনুগত্য করা।

২. একই আদম-সন্তান হওয়ার কারণে সমস্ত মানুষের অধিকার সম্পর্কে সচেতন থাকা। কোনো অবস্থায়ই কারও কোনো অধিকার হরণ না করা।

৩. অন্যান্য মানুষের আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বেশি থাকায় তাদের অধিকারও যেহেতু অন্যদের তুলনায় বেশি, তাই তাদের অধিকারসমূহ আদায়ে অধিকতর যত্নবান থাকা।
আত্মীয়তার সম্পর্ক মানুষের জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কোনোভাবেই একে এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব নয় কারও পক্ষে। সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনযাপনে আত্মীয়স্বজনের ছায়া ও আশীর্বাদ জরুরি। আত্মীয়দের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখে চললে শুধু যে পরকালে সওয়াব হয় বা পার্থিব স্বার্থ অর্জিত হয়, তাই-ই নয়, বরং হাদিসে একে দীর্ঘ জীবন ও প্রশস্ত রিজিকের মাধ্যম বলা হয়েছে। সাহাবি আবু হুরায়রা (রা.) বলেন, আমি প্রিয় নবী (সা.)-কে বলতে শুনেছি, ‘যে ব্যক্তি জীবিকার সমৃদ্ধি ও দীর্ঘায়ু লাভ করতে চায়, সে যেন তার আত্মীয়তার সম্পর্ক রক্ষা করে’ (বুখারি, হাদিস : ৫৫৫৯)। হাদিস থেকে এ বার্তাই পাই, পৃথিবীর জীবনে সুখ ও সফলতা অর্জনের গোপন রহস্য আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখা। মাঝেমধ্যে আত্মীয়স্বজনের খোঁজখবর রাখা, তাদের বাসায় ঘুরতে যাওয়া কিংবা নিজের বাসায় তাদের দাওয়াত দিয়ে নিয়ে আসা; অন্তত ফোনে কথাবার্তার মাধ্যমে আত্মীয়দের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষা করে চলা এসব ইসলামে অন্যতম শিক্ষা ও নির্দেশনা। বর্তমানে দেখা যায়, মানুষ গুটিকয়েক প্রিয় মানুষকে কেন্দ্র করে মধুর সুসম্পর্ক গড়ে তোলে। কিন্তু এর বাইরে নিকটাত্মীয়দের সঙ্গে সম্পর্ক কক্ষপথ চ্যুত হয়ে যায়। এটা কাম্য নয়।

আত্মীয়তার সম্পর্ক সতেজ রাখতে যোগাযোগের বিকল্প নেই। কাজের ব্যস্ততা কিংবা মনোমালিন্যের জন্য আত্মীয় সম্পর্কের প্রাণ হারায়। ভাবটা এমন, সে খোঁজখবর নিচ্ছে না আমি কেন নেব? এমনটা করা শুধু দুঃখজনকই নয়, ইসলাম ও মুসলমান পরিচয়ের সঙ্গেই বেমানান। আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘প্রকৃত আত্মীয়তার সম্পর্ক রক্ষাকারী সেই, যে ব্যক্তি তার আত্মীয় তার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেও সে তা রক্ষা করে চলে’ (বুখারি : ৫৯৯১)। ভাই-ভাই বন্ধনে ফাটল, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া, বউ-শাশুড়ি বিবাদ-কলহ, পরিবার, সমাজে বৈরী পরিবেশ তৈরি করে। সুশৃঙ্খলা ও ইসলামী সমাজ নির্মাণে অন্তরায়। অল্প বেতনের চাকরিতে সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। অশান্ত মন নিয়ে আত্মীয় সম্পর্ক রক্ষা করার প্রশ্নই আসে না। আকাশচুম্বী প্রাচুর্যের অহংকারে কিংবা উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা হয়ে হাজারও সুসংহত আত্মীয় সম্পর্কে চঞ্চলতা হারিয়েছে। আল্লাহতায়ালা বলেন, ‘যদি তোমরা শাসন কর্তৃত্ব পাও, তবে তোমরা জমিনে বিপর্যয় সৃষ্টি করবে এবং তোমাদের আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করবে? এরাই যাদের আল্লাহ লানত করেছেন, ফলে তাদের বধির ও তাদের দৃষ্টিসমূহকে অন্ধ করে দিয়েছেন’ (সুরা মুহাম্মাদ : ২২-২৩)।
আত্মীয় সম্পর্ক রক্ষার অর্থ হলো খোঁজখবর নেওয়া, বিপদ-আপদে সাহায্য করা, মেহমানদারি করা, অসুস্থ হলে দেখতে যাওয়া, দ্বীনের ব্যাপারে উদাসীন হলে সতর্ক করা, সর্বোপরি উত্তম আচরণ করা। আত্মীয় প্রধানত দুই প্রকার—১. রক্ত সম্পর্কীয় বা বংশীয়। যেমন পিতা-মাতা, দাদা-দাদি, ভাই-বোন, চাচা-চাচি, মামা-খালা ইত্যাদি। ২. বিবাহ সম্পর্কীয়। যেমন শ্বশুর-শাশুড়ি, শ্যালক-শ্যালিকা ইত্যাদি। সম্পদের অধিকারী হওয়ার দিক দিয়ে আত্মীয় দুই প্রকার—১. উত্তরাধিকারী; যেমন পিতা-মাতা, ভাই-বোন, স্ত্রী, পুত্র-কন্যা প্রভৃতি। ২. উত্তরাধিকারী নয়; যেমন চাচা-চাচি, মামা-খালা ইত্যাদি। আয়েশা (রা.) বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘রেহেম’ (আত্মীয়তার বন্ধন) আল্লাহর আরশের সঙ্গে ঝুলন্ত। সে সদা দোয়া করছে, যে ব্যক্তি আমার সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রাখবে আল্লাহ তার সঙ্গে সম্পর্ক রাখবেন। আর যে আমার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করবে আল্লাহ তার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করবেন’ (মুসলিম, হাদিস : ৬২৮৮)। অর্থাৎ আত্মীয়দের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখা এবং তাদের সঙ্গে বন্ধন রক্ষা যেন আল্লাহর আরশের সঙ্গে ঝুলন্ত রশিতে নিজেকে জড়িয়ে রাখা।

অনেক সময় উত্তরাধিকার সম্পদ বণ্টন নিয়ে আত্মীয় সম্পর্কের আচরণের অবনতি হয়। পারিবারিক অন্তর্কোন্দলের কারণে আত্মীয় সম্পর্কে ভাটা পড়ে। একে অপরের প্রতি সৌজন্যবোধে উদাসীন হয়ে যায়। আত্মীয়স্বজনের প্রতি সহনশীল হওয়া ও সদ্ব্যবহার করা। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, ‘এক ব্যক্তি বলল, হে আল্লাহর রাসুল! আমার কিছু আত্মীয় আছে, আমি তাদের সঙ্গে সম্পর্ক রেখে চলি; কিন্তু তারা আমার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। আমি তাদের সঙ্গে সদ্ব্যবহার করি; তারা আমার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে। আমি তাদের সঙ্গে সহিষ্ণু আচরণ করি; তারা আমার সঙ্গে মূর্খের মতো আচরণ করে। তখন রাসুল (সা.) বললেন, তুমি যেমনটি উল্লেখ করেছ যদি তুমি তেমন হও তাহলে তুমি যেন তাদের মুখে গরম ছাই ছুড়ে দিচ্ছ। তুমি যতক্ষণ এর ওপর অটল থাকবে ততক্ষণ তাদের বিরুদ্ধে তোমার সঙ্গে আল্লাহর পক্ষ থেকে একজন সাহায্যকারী থাকবে’ (মুসলিম, হাদিস : ২৫৫৮)। আত্মীয়দের পক্ষ থেকে রেসপন্স না পেলেও মুসলমান হিসেবে আমার কর্তব্য আত্মীয়তার বন্ধন রক্ষা করা, এর বিনিময় আল্লাহ দেবেন। পরকালে মিলবে অফুরন্ত পুরস্কার

আত্মীয়স্বজন কোনো বিপদ-আপদ, অভাবগ্রস্ত হলে লজ্জায় মুখোমুখি না হতে পারলে গোপনে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া মানবিক দায়িত্ব। আত্মীয়স্বজন অনেক হলে নিকটাত্মীয়রা অগ্রাধিকার পাবে। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি আল্লাহ ও পরকালে বিশ্বাস রাখে, সে যেন তার রক্তের সম্পর্ক বজায় রাখে’ (বুখারি, হাদিস : ৬১৩৮)। আত্মীয়স্বজন কেউ অসুস্থ হলে দেখতে যাওয়া কর্তব্য। অনেক আত্মীয়ই হয়তো আমার অজান্তে কষ্টে দিনাতিপাত করছে; তাদের সঙ্গে যোগাযোগ বৃদ্ধি করা, খোঁজখবর নেওয়া জরুরি। এতে তিনটি লাভ—আমার পরকালে পুণ্যের ভান্ডার সমৃদ্ধ হয়, আত্মীয়স্বজনের মুখে হাসি ফোটে, তাদের দোয়া মেলে এবং কল্যাণকামিতার অপার্থিব তৃপ্তিতে মুখরিত হয় হৃদয়জগৎ।

শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com