শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০২:৫২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের সংবর্ধনা জগন্নাথপুরের সাম্রাটে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের সংবর্ধনা জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র মনাফকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ জগন্নাথপুরের চিতুলিয়া গ্রামে আগুন,দুইটি ঘরসহ পুড়ল ১২ লাখ টাকার মালামাল জগন্নাথপুরে এখনও সম্পন্ন হয়নি আ.লীগের ওয়ার্ড ভিত্তিত্ব কমিটি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু ১৭ নভেম্বর জগন্নাথপুরে সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে সুযোগ পেল ১৭ পরীক্ষার্থী বন্ধ হলো ফেসবুকের সাড়ে পাঁচ’শ কোটি ভুয়া অ্যাকাউন্ট রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন, চারটি বগি লাইনচ্যুত জেলা মহিলা আ.লীগ নেত্রী রফিকা চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জগন্নাথপুরে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

জগন্নাথপুরে বিদ্যুতের প্রি-পেইড মিটারের রিচার্জ কার্ড পেতে ভোগান্তি সাড়ে ৯ হাজার গ্রাহকের জন্য একজন সেবাদাতা

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২৪ জুন, ২০১৮
  • ৯২ Time View

স্টাফ রিপোর্টার:: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বিদ্যুতের ডিজিটাল প্রি-পেইড মিটার রির্চাজ কার্ড পেতে চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছেন গ্রাহকরা। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত দীর্ঘসময় লাইনে দাড়িয়েও রির্চাজ কার্ড পাচ্ছে না। ফলে প্রতিনিয়ত সীমাহীন ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে গ্রাহকদের।
রোববার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, বিদ্যুতের রির্চাজ কার্ড নিয়ে জগন্নাথপুর উপজেলা বিদ্যুৎ অফিসের সামনে গ্রাহকদের দীর্ঘলাইন। অফিসের ভিতর থেকে দুই পাশে দাড়ানো গ্রাহকদের দীর্ঘলাইনটি অফিসের বাহির পর্যন্ত ছিল। এছাড়াও অফিস প্রাঙ্গন এলাকায় রির্চাজ কার্ড নিয়ে প্রচন্ড ভীর দেখা যায় গ্রাহকদের।


বিদ্যুৎ অফিসে প্রি-পেইড মিটারের রির্চাজ কার্ড নিয়ে আসা লাইনে দাড়ানো গ্রাহক আনা মিয়া জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সকাল থেকে টানা তিন ঘন্টাধরে লাইনে দাড়িয়ে আছি রির্চাজ কার্ডের জন্য। কিন্তুু এখনও পাইনি। একটিমাত্র কম্পিউটার থেকে রির্চাজ কার্ড প্রদান করায় ভীর সামাল নিয়ে নিমশিম খাচ্ছেন কর্মকর্তা। আর দূর্ভোগে পড়ছি আমরা।
আরেক গ্রাহক ব্যবসায়ী পিংটু দাস জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে দীর্ঘক্ষন ধরে লাইনে দাড়িয়ে আছি। তিনি বলেন, গ্রাহকরা দূর্ভোগের কথা চিন্তা করে বিদ্যুতের সেবাকেন্দ্র বাড়ানোর দাবী জানিয়েছেন।
স্থানীয় বিদ্যুৎ অফিস সুত্র জানায়, এ উপজেলা ১৫ হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহক রয়েছেন। এর মধ্যে প্রে-পেইড মিটারের আওতায় গ্রাহক সংখ্যা রয়েছে সাড়ে ৯ হাজার। এসব গ্রাহকদের জন্য সেবাকেন্দ্র মাত্র একটি। ফলে গ্রাহকদের সেবাদানে ভোগান্তিতে পড়তে হয়।
জগন্নাথপুর উপজেলা অফিসের প্রধান কর্মকর্তা প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, গ্রাহকদের সেবা সুনিশ্চিত করার জন্য আমরা আরও তিনটি সেবাকেন্দ্র চালু করার জন্য উর্ধ্বতন কৃর্তপক্ষকের নিকট লিখিতভাবে আবেদন করেছি। আশা করছি, শিধ্রী এই কেন্দ্রগুলো চালু করা যাবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24