রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০১:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
‘ব্রিটিশ বাংলাদেশী হুজহু’র প্রকাশনা ও এওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানের বারোতম আসর বর্ণাঢ্য আয়োজনে সম্পন্ন পেঁয়াজ খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছি:প্রধানমন্ত্রী জগন্নাথপুর পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড আ.লীগের কমিটি গঠন জগন্নাথপুরে অগ্নিকাণ্ডে নি:স্ব ৮ পরিবার আশ্রয় নিলেন স্কুলে.মানবেতর জীবন যাপন মিশর থেকে কার্গো বিমানে পেঁয়াজ আসছে মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যে বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি জগন্নাথপুরে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের সংবর্ধনা জগন্নাথপুরের সামাটে সমাপনী পরীক্ষার্থীদের সংবর্ধনা জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র মনাফকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরণ জগন্নাথপুরের চিতুলিয়া গ্রামে আগুন,দুইটি ঘরসহ পুড়ল ১২ লাখ টাকার মালামাল

জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে ঈদযাত্রায় সীমাহীন দুর্ভোগ

কামরুল ইসলাম মাহি, সিলেট::
  • Update Time : রবিবার, ১১ আগস্ট, ২০১৯
  • ২৫৭ Time View

 

ত্যাগ মহিমা নিয়ে পবিত্র ঈদুল আজহা একেবারে দোরগোড়ায়। ১২ আগস্ট সোমবার সারাদেশে ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। ঈদ মুসলমানদের উৎসব হলেও প্রতি বছর ঈদ ঘিরে ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সবার মাঝেই বয়ে যায় আনন্দের উত্তাল হাওয়া। তবে এবারের ঈদের আনন্দ অনেকটাই যেনো ভাটা পড়ে গিয়েছে বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক দিয়ে বাড়ি ফেরা যাত্রিদে।

প্রবাসী অধ্যুষিত জগন্নাথপুর উপজেলার অনেক মানুষই বিভাগীয় শহর সিলেটে বাসা নিয়ে থাকেন। বিভিন্ন উৎসবে বাড়ি ফিরেন পরিবার নিয়ে। তবে এবার ঈদে এই সড়কের বেহাল দশার জন্য অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, ‘পরিবার নিয়ে বাড়ি ফেরাটা শান্তিতে হলো না। রাস্তায় যে পরিমান ভাঙ্গাছুড়া তাদেখে মনে হয় সিলেটেই ঈদ করলে ভালো হতো।’

এই সড়কের প্রায় ৩০ কিলোমিটার বেহাল দশায় পরিণত হওয়ায় দুর্ভোগের শেষ নেই যাত্রীদের। জনগুরুত্বপূর্ণ এই সড়কে লাখ লাখ মানুষ যাতায়াত করে আসছেন। বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর সড়কের বেহাল দশার ফলে সড়কটি যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী রয়েছে। বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। জগন্নাথপুর উপজেলাবাসী নিরুপায় হয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রয়োজনের তাগিদে সিলেট শহরে যাতায়াত করছেন।

এদিকে আজ রোববার দুপুরে সিলেট কলদমতলী বাস টার্মিনাল এলকায় যাত্রীদের উপছে পড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে। কার আগে কে গাড়িতে উঠবেন এই প্রতিযোগিতায় ছিলো সবাই মধ্যে।

এসময় কথা মদন মোহন কলেজের অনার্স পড়ুয়া শীক্ষার্থী ইকবাল আহমদের সঙ্গে। তিনি জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীধরপাশায় নিজ গ্রামে পরিবারের সাথে ঈদ করতে বাড়ি ফিরছেন। তিনি জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানালেন, ‘আমাদের সিলেট শহরের সাথে সাথে যোগযোগ রক্ষাকারী একমাত্র সড়ক জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-সিলেট সড়কটি যে অবস্থা তা বলে বুঝানোর মতো নয়। আমরা যে কত দূর্ভোগের মধ্যে আছি তা মনে হয় একমাত্র আল্লাহ জানেন।’এসময় তিনি আরও যোগ করেন,‘আর ভালো লাগে না। এই যে ভাঙ্গা রাস্তা খুব ভয় হয়। প্রথমে ভাবসিলাম বাড়িতেই যাব না। তবু যেতে হয়।’

আবু সাঈদ সজিব নামে আরেক যাত্রী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে  বলেন, ‘কিচ্ছু করার নেই। বাড়ি তো যেতে হবে। এই ভাঙ্গা রাস্তার জন্য বাড়িতে যেতেই মন চায় না। শুধু ঈদের জন্য বাড়িতে যাচ্ছি।’

বাসচালক আফাজ উদ্দীন ও রবিউল ইসলাম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ‘দীর্ঘ দিন থেকে এই ড়কটিতে দুর্ভোগ তাদের পিছু ছাড়ছে না। পুরো রাস্তায় ভাঙ্গা। গাড়ি চালাতে অনেক কষ্ট হয়।’

মাইক্রোবাস চালক উজ্জ্বল হোসেন জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে  বলেন, ‘এ পথে দিনদিন দুর্ভোগ বেড়েই চলছে। আমার দেখো মতো এই সড়কের মতো আর অন্য কোন জায়গায় এত ভাঙ্গা সড়ক নেই। আর বৃষ্টি হলেই সড়কের দূর্ভোগে বেড়ে যায়।’

তবে এ বিষয়ে জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম সারোয়ার জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘এই গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি সংস্কারের জন্য ২১ কোটি টাকার টেন্ডার প্রক্রিয়া চলছে,।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24