রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্টের রিসোর্স সেন্টারের কাজ পরিদর্শনে ট্রাস্টের প্রতিনিধিদল জগন্নাথপুরে একদিনে ১১ জন ডাক্তারের যোগদান জগন্নাথপুরে বেড়িবাঁধের ৩০ প্রকল্প অনুমোদন কাল কাজ শুরু হতে পারে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে জগন্নাথপুরে প্রশাসনের উদ্যোগে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে আ.লীগের উদ‌্যোগে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবসে আলোচনাসভা ও শ্রদ্ধা নিবেদন দিরাইয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মানববন্ধন মুসলিমবিদ্বেষী আইনের বিরুদ্ধে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ আমি স্বাধীনতা বিরুধী পরিবারের সন্তান নই- চেয়ারম্যান আব্দুল হাশিম জগন্নাথপুরে বাংলা মিরর সম্পাদক আব্দুল করিম গনি সংবর্ধিত জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন

নবীগঞ্জে মধু মিয়া হত্যাকান্ড ॥ একজনকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৫
  • ৫৩ Time View

ইনাতগঞ্জ(নবীগঞ্জ,হবিগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা : ঢাকা- সিলেট মহা সড়কের নবীগঞ্জের রুস্তমপুর গ্রামের সাবেক ইউপি মেম্বার ৪সন্তানের জনক মধু মিয়া (৫০) হত্যাকান্ডের ঘটনায় ঐ গ্রামের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রতিপক্ষের লোকজন আসামী পক্ষের বাড়িঘরে তল¬াশী অভিযান চালিয়েছে আসামীদের খোঁজে। গতকাল সোমবার বাদী পক্ষের লোকজন রোস্তমপুর টোল পল¬াজায় একটি যাত্রীবাহি বাসে তল¬াশী চালিয়ে কাজল নামে অভিযুক্ত এক আসামীকে ধরে ব্যাপক মারপিট করে পুলিশের কাছে সোর্পদ করেছে। পুলিশ আহত কাজল কে নবীগঞ্জ হাসাপতালে চিকিৎসা প্রদান করেছে। বাদী পক্ষের হামলা আর মামলার ভয়ে আসামী পক্ষের নারীরা বাড়ি থেকে পালিয়ে যাচ্ছে। ফলে গ্রামের মধ্যে এক চরম অস্বস্তিকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। গোপলা বাজার তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ বাদী পক্ষের হামলার কথা স্বীকার করেছে। এস আই বজলু বলেন তারা আহত আসামী কাজল কে উদ্ধার করে চিকিৎসা করিয়েছেন।
গতকাল সোমবার দুপুরে রুস্তমপুর টোল প¬াজা থেকে হত্যা মামলার অন্যতম আসামী মতিন মিয়ার পুত্র কাজল মিয়া (৩০) কে বাদী পক্ষের লোকজন আটক করে পুলিশ কাছে সোর্পদ করেছে। হত্যাকান্ডের পর পরই রুস্তমপুর গ্রামের আবির উদ্দিন, আব্দুল মন্নান, জাকির হোসেন ও খোকন মিয়া নামের ৪জনকে প্রতিপক্ষের লোকজনের সহায়তায় গ্রেফতার করে পুলিশ। এ নিয়ে মধু মিয়া হত্যা মামলার ৫ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী আসামীরা পলাতক রয়েছে। নিহতের পরিবারে এখনো চলছে শোকের মাতম। সচেতন মহলে মধু মিয়া হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এর পাশাপাশি খুনিদের ফাঁিসর দাবী জানানো হয়েছে।
জানাযায়, নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের প্রভাবশালী জাহির উদ্দিনের মালিকাধীন একটি বিলাশ বহুল বিল্ডিংয়ে গত ৫ অক্টোবর রাতে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে হাফিজ ও চাঁদনি নামের যুবক যুবতীকে আটক করে স্থানীয় জনতা। এক পর্যায়ে পুলিশের কাছে সোর্পদ করা হলেও ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারের সহায়তায় তাদেরকে পুলিশের কাছ থেকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মুছলেখা দিয়ে ছাড়িয়ে আনেন তাদের অভিবাকরা, এ সময় মধু মেম্বার ও উপস্থিত ছিলেন। এ খবর শুনে জাহির উদ্দিনের লোকজন মধু মিয়াসহ তার লোকজনকে অশালীন ভাষায় গালিগালজ ও দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। এনিয়ে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এরই জের ধরে গত বৃহস্পতিবার রাত প্রায় সাড়ে ১০টায় রুস্তমপুর ষ্ট্যান্ডে পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জাহির উদ্দিনের লোকজন মধু মিয়ার লোকজনের উপর দেশিয় অস্ত্র নিয়ে হঠাৎ অর্তকিত হামলা চালায়। এতে মধু মিয়ার পক্ষের কিছু সংখ্যক লোক সহ দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। নিহতের ছেলে মামুন মিয়া তার পিতা হত্যার দায়ে নবীগঞ্জ থানায় ৪৮জনের নাম উলে¬খ করে গং আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলে জাহির উদ্দিনের বাহিনী গা ঢাকা দেয়। তবে, ৫জনকে বাদী পক্ষের সহায়তায় এ যাবৎ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24