1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
লুটপাট-প্রতারণায় ধ্বংস হয়েছিল যে জাতি - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
শুক্রবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৬:২৯ পূর্বাহ্ন

লুটপাট-প্রতারণায় ধ্বংস হয়েছিল যে জাতি

  • Update Time : সোমবার, ৫ জুন, ২০২৩
  • ৬৫ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::

ফিলিস্তিনের দক্ষিণে লোহিত সাগর ও আকাবা উপসাগর উপকূলের এক প্রাচীন জনপদ—মাদইয়ান। এখানে নবী হিসেবে এসেছিলেন হজরত শুআইব (আ.)। পবিত্র কোরআনের একাধিক স্থানে এই জনপদের বাসিন্দাদের অবাধ্যতা ও শাস্তির কথা আলোচিত হয়েছে। কোথাও আবার তাদের ‘আসহাবুল আইকা’ তথা ‘গাছের অধিবাসী’ও বলা হয়েছে। কারণ তারা গাছের পূজা করত। মাদইয়ান অঞ্চলটি প্রাচীন আরবের ব্যবসা-বাণিজ্যের কেন্দ্র ছিল। ফলে ব্যবসাকেন্দ্রিক অবাধ্যতা ও লুটপাটে তারা জড়িত ছিল। আল্লাহর নবী শুআইব (আ.)-কেও তারা অগ্রাহ্য করেছিল, ফলে আসমানি আজাবে তারা ধ্বংস হয়ে যায়।
শুআইব (আ.) প্রথমেই তাদের আল্লাহর একত্ববাদের দাওয়াত দিলেন। এরপর অনাচার, লুটপাট ও ওজনে কম দেওয়ার যে নৈরাজ্য তাদের মধ্যে চালু ছিল, তা বন্ধের আহ্বান জানান। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘আমি মাদইয়ানে তাদের ভাই শুআইবকে পাঠিয়েছি। সে বলল, হে আমার জাতি, আল্লাহর ইবাদত করো। তিনি ছাড়া তোমাদের কোনো উপাস্য নেই। তোমাদের কাছে তোমাদের রবের পক্ষ থেকে প্রমাণ এসে গেছে। অতএব তোমরা মাপ ও ওজন পূর্ণ করো এবং মানুষকে তাদের পণ্য কম দিয়ো না এবং পৃথিবী সংস্কারের পর তাতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি কোরো না। এটা তোমাদের জন্য কল্যাণকর, যদি তোমরা বিশ্বাসী হও।’ (সুরা আরাফ: ৮৫)
কিন্তু মাদইয়ানবাসী শুআইব (আ.)-এর উপদেশ মানতে অস্বীকৃতি জানায়। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তাআলা শুআইব (আ.) ও তাদের কথোপকথন তুলে ধরেছেন। আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘গাছের অধিবাসীরা নবীদের মিথ্যাবাদী বলেছে। যখন শুআইব তাদের বলল, তোমরা কি ভয় করো না? আমি তোমাদের বিশ্বস্ত রাসুল। অতএব, আল্লাহকে ভয় করো এবং আমার আনুগত্য করো। আমি তোমাদের কাছে এর বিনিময়ে কোনো প্রতিদান চাই না। আমার প্রতিদান তো বিশ্ব পালনকর্তাই দেবেন। মাপ পূর্ণ করো এবং যারা পরিমাপে কম দেয়, তাদের অন্তর্ভুক্ত হবে না। … তারা বলল, তুমি তো জাদুগ্রস্তদের অন্যতম। তুমি তো আমাদের মতোই মানুষ। আমাদের ধারণা, তুমি মিথ্যাবাদীদের অন্তর্ভুক্ত।’ (সুরা শুআরা: ১৭৬-১৮৬)

তারা শুআইব (আ.)-কে অস্বীকৃতি জানিয়েই ক্ষান্ত হলো না। বরং তাঁর ইবাদত-বন্দেগি নিয়েও ব্যঙ্গ করল। তাঁকে ব্যবসা-বাণিজ্য ইত্যাদি জাগতিক বিষয়ে নাক না গলানোর জন্য সাফ জানিয়ে দিল। অন্যথায় দেশান্তর করার হুমকিও দিল। তারা বলল, ‘হে শুআইব, তোমার নামাজ কি তোমাকে নির্দেশ দেয় যে আমাদের পূর্বপুরুষেরা যার ইবাদত করত, আমাদের তা বর্জন করতে হবে বা আমরা আমাদের ধন-সম্পদ সম্পর্কে যা করি তাও?…’ (সুরা হুদ: ৮৭)

এরপর শুআইব (আ.) তাদের আসমানি আজাবের ভয় দেখান। আগের যুগের অবাধ্য জাতিদের পরিণতির কথা স্মরণ করিয়ে দেন। তিনি বলেন, ‘হে আমার জাতি, আমার সঙ্গে বিরোধ যেন কিছুতেই তোমাদের এমন অপরাধ না করায়, যার ফলে তোমাদের ওপর তেমন বিপদ আসবে, যেমন এসেছিল নুহ বা হুদ বা সালেহের জাতির ওপর; আর লুতের জাতি তো তোমাদের থেকে দূরে নয়।’ (সুরা হুদ: ৮৯)

মাদইয়ানবাসী শুআইব (আ.)-এর দাওয়াতে বিরক্ত হয়ে তাঁকে হত্যার হুমকি দিয়েছিল। অবিশ্বাস ও অবাধ্যতা এতই গেড়ে বসেছিল তাদের অন্তরে, শেষ পর্যন্ত তারা শুআইবের কাছে আল্লাহর আজাবই চেয়ে বসল। তারা বলল, ‘অতএব যদি সত্যবাদী হও, তবে আকাশের কোনো টুকরো আমাদের ওপর ফেলে দাও। এরপর তারা তাঁকে মিথ্যাবাদী বলে দিল।’ (সুরা শুআরা: ১৮৭-১৮৮)

শুআইব (আ.) শেষ মুহূর্তেও তাদের সতর্ক করে গেলেন। আজাবের ব্যাপারে শেষ কথা জানিয়ে বললেন, ‘হে আমার জাতি, তোমরা আপন কাজ করে যাও, আমিও কাজ করছি। অচিরেই জানতে পারবে কার ওপর অপমানকর আজাব আসে আর কে মিথ্যাবাদী? তোমরাও অপেক্ষায় থেকো, আমিও তোমাদের সঙ্গে অপেক্ষায় রইলাম।’ (সুরা হুদ: ৯৩)

এরপর আজাব এল। শুআইব (আ.) ও তার প্রতি বিশ্বাস স্থাপনকারীদের আল্লাহ রক্ষা করলেন। বাকিদের ধ্বংস করে দিলেন। পবিত্র কোরআনে তিন ধরনের আজাবে তাদের ধ্বংস করার কথা এসেছে। এরশাদ হয়েছে, ‘ফলে তাদের মেঘাচ্ছন্ন দিনের আজাব পাকড়াও করল। নিশ্চয়ই সেটা ছিল এক মহাদিবসের আজাব। (সুরা শুআরা: ১৮৯)

অন্য আয়াতে ইরশাদ হয়েছে, ‘এরপর ভূমিকম্প তাদের হঠাৎ আঘাত হানল। ফলে তারা সকালে ঘরের ভেতরে উপুড় হয়ে পড়ে রইল।’ (সুরা আরাফ: ৯১) অন্য আয়াতে তাদের আজাব সম্পর্কে বলা হয়েছে, ‘আর যারা জুলুম করেছিল, বিকট চিৎকার তাদের আঘাত করল, ফলে তারা নিজ নিজ ঘরে নতজানু অবস্থায় পড়ে রইল। যেন তারা সেখানে কখনো বসবাসই করেনি।’ (সুরা হুদ: ৯৪-৯৫)

 

শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com