1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
সুনামগঞ্জে রমজানে বাজার বিশেষ মনিটরিংয়ের আওতায় থাকবে - জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০২:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:

সুনামগঞ্জে রমজানে বাজার বিশেষ মনিটরিংয়ের আওতায় থাকবে

  • Update Time : মঙ্গলবার, ২১ মার্চ, ২০২৩
  • ১২০ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
যত দিন যাচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্য বেড়েই চলছে। মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে বাজারের সকল নিত্যপণ্যের দাম। এমন অবস্থায় সামনে আসছে মুসলমানদের পবিত্র মাস রমজান। রমজান এলেই সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের উৎসব শুরু হয়। লাগামহীন ভাবে দৌঁড়াতে থাকে রমজানের বিশেষ প্রয়োজনীয় তেল, ছোলা, ডাল, খেজুর, পেঁয়াজ, রসুন সহ অন্যান্য সকল পণ্যের দাম।
বাজারে আসা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান চৌধুরী বললেন, সবকিছুর এতো দাম, নাভিশ্বাস উঠে গেছে আমাদের। পেনশনের টাকা দিয়ে সংসার চালাই। এখন সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। পণ্যের মূল্য বাড়লেও পেনশনের টাকা সমানই আছে। রমজানে আল্লাহ ভরসা।
অচিন্তপুর গ্রামের বেগম খানম বললেন, গরিব হয়ে ঠেকছি আমরা। আগে অনেক ভালো ছিলাম। রুজির টাকা দিয়ে সংসার চালাতে পারছি। এখন পরিস্থিতি পালটে গেছে। পাঁচশ টাকা বাজারে নিয়ে এসেও বাজার করতে পারিনা।
এদিকে রমজানকে সামনে রেখে জনসাধারণকে স্বস্তিতে রাখতে রমজানের আগেই বাজার মনিটরিংয়ে বিশেষ অভিযানে নেমেছে সুনামগঞ্জ ভোক্তা অধিদপ্তর সংরক্ষণ অধিদপ্তর। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আল আমিনের নেতৃত্বে সোমবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত পৌর শহরের জগন্নাথবাড়ি এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানে পেঁয়াজ ও রসুনের দুটি আড়তের বিক্রয় ও ক্রয় রশিদ পাওয়া যায়নি। যে সুযোগ কাজে লাগিয়ে খুচরা ব্যবসায়ীরা অত্যাধিক মূল্যে পণ্য বিক্রি করছিলেন। ১৩০ টাকা পাইকারি বিক্রির রসুন খুচরা বাজারে গিয়ে ১৬০ টাকা হয়ে গেছে। ক্রয়-বিক্রয় রশিদ না থাকার দুইটি দোকানে জরিমানা আরোপ করা হয়। মেসার্স অসীম রায় ও অনীল স্টোর নামের দুই দোকানিকে তিন হাজার করে ছয় হাজার টাকা অর্থদ- দেন।
অর্থদ-প্রাপ্ত দোকানি পাপ্পু রায় বলেন, আমাদের কার্বন কপি না থাকার কারণে জরিমানা করা হয়েছে। এখন থেকে আমরা সকল কাগজপত্র সংরক্ষণ রাখবো এবং চেষ্টা করবো রমজানে কম মূল্যে পণ্য বিক্রির।
সুনামগঞ্জ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সহকারী পরিচালক মো আল আমিন বললেন, রোজা মাস উপলক্ষে আমাদের মনিটরিং কার্যক্রম আরও বাড়াবো। রমজানকে কেন্দ্র করে যে বিশেষ পণ্যগুলোর মূল্য বাড়ে আমরা সেদিকে লক্ষ রাখছি, যাতে ক্রেতা ন্যায্য দামে পণ্যগুলো পায়। আজকের অভিযানে দুইটি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছি। তাদের অপরাধ হচ্ছে তারা খুচরা ব্যবসায়ীর কাছ থেকে কত টাকায় বিক্রি করেছেন তার কোনো রশিদ নেই। এই সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীরা পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি করার সুযোগ পাচ্ছেন। পুরো রমজান মাসে আমাদের বিশেষ মনিটরিং কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

 

শেয়ার করুন

Comments are closed.

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২৩
Design & Developed By ThemesBazar.Com