শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন

অপহরণের ঘটনায় শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে অষ্টম অবস্থানে বাংলাদেশ

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২ আগস্ট, ২০১৫
  • ১২২ Time View

্রজগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক :: অপহরণের ঘটনায় শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে অষ্টম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। সবচেয়ে বেশি অপহরণের ঘটনা ঘটেছে মেক্সিকোতে। ২০১৪ সালের হিসাব অনুযায়ী এ তালিকায় ভারত দ্বিতীয় অবস্থানে আর পাকিস্তান রয়েছে তৃতীয় অবস্থানে। যুক্তরাজ্যভিত্তিক কন্ট্রোল রিস্ক নামের বৈশ্বিক ঝুঁকি ও কৌশলগত পরামর্শক সংস্থার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
সংস্থাটি অপহরণ ও মুক্তিপণ নিয়ে বিশ্বব্যাপী তথ্য সংগ্রহ করে। তবে প্রতিষ্ঠানটি বলছে, এ গবেষণার ফল যাই হোক তার মানে এ নয় যে আফগানিস্তান ও পাকিস্তান ভ্রমণের জন্য নিরাপদ। অপহরণের অভিযোগের ভিত্তিতে এ তালিকা করা হয়েছে। তথ্য নেয়া হয়েছে বীমা কোম্পানিগুলো থেকে।
শনিবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, অপহরণের ঘটনার শীর্ষ দশ দেশের মধ্যে চতুর্থ অবস্থানে ইরাক, নাইজেরিয়া পঞ্চম, লিবিয়া ৬ষ্ঠ, আফগানিস্তান সপ্তম, সুদান নবম এবং লেবানন রয়েছে দশম অবস্থানে।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১২ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে ভারতে প্রায় ৪ হাজার ২৩২টি অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। ফলে নতুন করে বীমা ক্ষেত্রে ব্যবসা বাড়ানোর দিকে নজর দিচ্ছে বীমা সংস্থাগুলো। অপহরণ নিয়েই সব থেকে বেশি বীমা করানো হচ্ছে।
সূত্র মতে, ভারতে অপহরণের প্রাথমিক টার্গেট করা হচ্ছে ব্যবসায়ী, শিশু, স্কুলপড়ুয়া এমনকি মন্ত্রীদেরও। অপহরণ বীমা সবচেয়ে বেশি লাভের মুখ দেখেছে ২০১২-২০১৫ সালের মধ্যে। কেবল বীমা ক্ষেত্রেই নয় নতুন এ তথ্য ভারতীয় গোয়েন্দাদেরও চিন্তা বাড়িয়েছে। অপহরণের চিত্র ভারতের উত্তর ও পশ্চিমে আলাদা।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের মার্কেটে অপহরণ ও মুক্তিপণ চলছে বেশি। ভারতের টাটা এআইজি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির প্রেসিডেন্ট এম রবিচন্দ্রন বলেন, কর্পোরেট কর্মকর্তা ও তাদের সন্তানদের লক্ষ্য করে অপহরণ করা হচ্ছে। দুই বছরে দেশে অপহরণের মাত্রা বেড়েছে বলে জানান রবি।
ফিউচার জেনারেলি ইন্ডিয়া ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কেজে কৃষ্ণামূর্তি রাও বলেন, সম্প্রতি ভারতে অপহরণের মাত্রা উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে। কয়েক বছরের তুলনায় অপহরণের মাত্রা ২৫-৩০ ভাগ বেড়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24