শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে দুইপক্ষের বিরোধে বলি হলো মাদ্রাসার ছাত্র সাব্বির জগন্নাথপুরে ছিনতাইকৃত গ্রামীণফোনের রিচার্জ কার্ড-অর্থসহ ডাকাত গ্রেফতার জগন্নাথপুরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে শিশু নিহত জগন্নাথপুরে অটোচালককে হত‌্যা করে লাশ ডোবায় ফেলে দিল দুবৃর্ত্তরা জগন্নাথপুরে ‘ভুয়া’নাগরিক সনদধারীদের ঠেকাতে জনপ্রতিনিধিদের দ্বারে দ্বারে স্থানীয়রা জগন্নাথপুরে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা প্রদান যুবলীগ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী রোববার মিটিং ডেকেছেন : ওবায়দুল কাদের দেশে দারিদ্র কমলেও বৈষম্য বাড়ছে:পরিকল্পনামন্ত্রী জগন্নাথপুরে শুক্রবার সকাল ৬টা ১২টা ও শনিবার ৮ থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকবে না জগন্নাথপুরে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত

জগন্নাথপুরে ৬ মাসেও বকেয়া টাকা মিলেনি, ঋণের চাপে দিশেহারা পিআইসিরা

বিশেষ প্রতিনিধি::
  • Update Time : শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ১৫২ Time View

সুনামগঞ্জর জগন্নাথপুর উপজেলায় হাওরের বোরো ফসল (ধান) প্রায় ছয় মাসে পূর্বে কৃষকদের গোলায় উঠলেও ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধ নির্মাণ কাজের বকেয়া টাকা পাচ্ছেনা পিআইসিরা (প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি)। ফলে অর্থকষ্ঠের পাশাপাশি ঋণের টাকা পরিশোধে পাওনাদারদের অব্যাহত চাপে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সদস্যরা। চরম হতাশায় পড়েছেন তাঁরা।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, হাওরের ফসলরক্ষা বেড়িবাঁধ নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম, দূর্নীতির অভিযোগে ঠিকাদারী প্রথা বাতিল করে সরকার স্থানীয় কৃষকদের দিয়ে পিআইসি প্রথা চালু করে কয়েকবছর আগে। পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবোর) নীতিমালা অনুয়ায়ী কৃষকদের দিয়ে পিআইসি গঠন করা হয় এবং কৃষকরাই বাঁধ নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজ করে থাকেন। এজন্যে হাওরে বাঁধ নির্মাণে ঠিকাদারদের চেয়ে পিআইসিদের কাজের মানও ভালো।
স্থানীয় পাউবোর আঞ্চলিক কার্যালয় ও কৃষকরা জানান, প্রতি বছরের ন্যায় গত বছরের ডিসেম্বর মাসে জগন্নাথপুরের ৫০টি প্রকল্পের কাজের জন্য পাউবো লিখিতভাবে কার্যাদেশ প্রদান করে ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কাজ শেষ করার নির্দেশ প্রদান করে। তবে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সদস্যরা জানিয়েছেন ডিসেম্বর মাসে কার্যাদেশ দেওয়া হলেও ফেব্রুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময় পিআইসিদের কার্যাদেশ পেয়ে কাজ শুরু করে। গত মার্চে মাসেই সম্পন্ন হয় প্রকল্পের কাজ। তবে কৃষকের গোলায় ফসল (ধান) তোলার আগ পর্যন্ত প্রকল্পের কাজের তদারকির দায়িত্বপালন পিআইসি সদস্যগণ করলেও গত ৬ মাসেও বাঁধের কাজের পাওনা টাকার বিল পাননি। এতে করে আগামীতে পিআইসিতে অন্তর্ভূক্ত হতে আগ্রহ হারানোর শঙ্কা রয়েছে।
জগন্নাথপুরের সর্ববৃহ নলুয়া হাওরের ৫ নং পিআইসির সভাপতি চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার রনধীর কান্তি দাস নান্টু জানান, প্রায় ছয় মাস আগে বাঁধের কাজ শেষ করেছি। কৃষকরা ধান গোলাম তোলে বেচাবিকিও শেষ পর্যায়ে রয়েছে। কিন্তু আমাদের কাজের টাকা এখনও পরিশোধ করা হয়নি। তিনি বলেন, ২২ লাখ টাকার প্রকল্পের এখনো ৮ লাখ টাকা পাইনি। প্রায় প্রতিদিন সদরে পাউবোর কার্যালয় খোঁজ নিচ্ছ্ কবে টাকা পাবো। তাঁরাও বলতে পারছেন না, কবে বকেয়া টাকা পাওয়া যাবে। তিনি জানান, প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন করতে ৫ লাখ টাকা ঋণ করেছি। এছাড়াও আরো তিন লাখ টাকা হাওলাত করেছি। পাওনাদারদের চাপে আছি। যথাসময়ে টাকা না পেলে আগামীতে কেউ কাজ করবে না।
১৫ নং পিআইসি সভাপতি একই ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার জুয়েল মিয়া জানান, প্রতিবছর বাঁধের কার্যাদেশ বিলম্বে দেয়া হয়। সেই সঙ্গে কাজের তুলনায় বরাদ্দের টাকা নিতান্ত কম। এরমধ্যে দ্রুত কাজ শেষ করতে নানান কথা বলে সামাজিকভাবে অপমানিত হতে হয়। মান সম্মানের ভয়ে ঋণ করে কাজ সম্পন্ন করেও এখন পর্যন্ত বকেয়া টাকা পাইনি। তিনি বলের, তাঁর প্রকল্পের বরাদ্দ ছিল ২০ লাখ টাকা। এর পর্যন্ত তিন কিস্তির টাকা পেয়েছি। ঋন আর হাওলাত করে কাজ শেষ করেছি প্রায় ৬ মাস পূর্বে। বর্তমানে ঋণের চাপে দিশেহারা হয়ে পড়ছি।
হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাঁচাও জগন্নাথপুর উপজেলা কমিটির আহবায়ক সিরাজুল ইসলাম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, হাওরে দুর্নীতি রোধে ঠিকাদারী প্রথা বাতিল করে কৃষকদের দিয়ে পিআইসি গঠনের মাধ্যমে প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। ঠিকাদারের কাজের তুলনায় পিআইসিতে কাজের মান অনেক ভালো। প্রকল্পের কাজ শেষ করার পরও তাদের বয়েকা পরিশোধ না করায় কোনমেনে নেয়া যায় না। এরকম হলে আগামীতে বাঁধের কাজে আগ্রহ হারাবে কৃষকরা।
পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) জগন্নাথপুর উপজেলার আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রধান কর্মকর্তা পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ সহকারী প্রকৌশলী হাসান গাজী জগন্নাাথপুর টুয়েন্টিফোার ডটকমকে বলেন, জগন্নাথপুর উপজেলায় ৫০ টি প্রকল্পে ৫ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ৩২ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের কাজ সম্পন্ন প্রায় সাড়ে পাঁচ মাস আগে। পিআইসিদের বকেয়া টাকা পরিশোধের বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট জানানো হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24