শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুর-পাগলা-আউশকান্দি আঞ্চলিক মহাসড়কের গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে দুবৃত্তরা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৮ আগস্ট, ২০১৪
  • ৮৬ Time View

 

JAGANNATHPUR PIC

শংকর রায়
জগন্নাথপুর উপজেলা সদর থেকে জেলা শহর সুনামগঞ্জে যাতায়াতের একমাত্র সড়ক পাগলা-জগন্নাথপুর আউশকান্দি আঞ্চলিক মহাসড়কের জগন্নাথপুর অংশে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের লাগানো গাছ চুরি করে কেটে নিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সাম্প্রতিককালে উক্ত সড়কের দাঁড়াখাই ও কোন্দানালা নামক স্থান থেকে শতাধিক গাছ কেটে নেয়ার ঘটনা ঘটেছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, সড়কের দু’পাশে সারি সারি লাগানো কয়েক হাজার শিশু গাছ রয়েছে। তন্মেধ্যে উক্ত সড়কের দাঁড়াখাই ও কোন্দানালা নামক স্থানের পাঁচ শতাধিক গাছ মরে গেছে।
আশাপাশ গ্রামের লোকজন ব্যবহারের জন্য এসব গাছ দিন দুপুরে কেটে নিয়ে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দাড়াখাই গিয়ে দেখা গেছে, কয়েকজন নারী পুরম্নষ রাসত্মায় থাকা এসব গাছ কাটছেন। রাসত্মার গাছ এভাবে কেটে নিয়ে যাচ্ছেন কেন জানতে চাইলে দুর্বৃত্তরা কুড়াল (গাছ কাটার যন্ত্র) রেখে দৌড়ে পালিয়ে যায়। এসময় গাছ কাটা অবস্থায় পাওয়া যায় এক নারীকে। ছাতক উপজেলার শক্তিরগাঁও গ্রামের বাহারজান বেগম নামের ওই নারী জানান, মরা গাছ দেখে লাখড়ির (জ্বালানির) জন্য কেটে নিয়ে যাচ্ছি। ‘আর কাটব না বলে তিনি দ্রম্নত সটকে পড়েন।
এলাকাবাসী জানান, উক্ত সড়ক থেকে প্রায় প্রতিদিনই দুর্বৃত্তরা গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। তন্মেধ্যে শক্তিরগাঁও, ভাতগাঁও ও ভবভমি গ্রামের লোকজন রয়েছেন। গত দুই মাসে কমপক্ষে শতাধিক গাছ কাটা হয়েছে।
উক্ত সড়কে নিয়মিত যাতায়াতকারী যাত্রী জগন্নাথপুর উপজেলা নাগরিক ফোরামের সভাপতি নুরম্নল হক বলেন, সড়কের দু’পাশে লাগানো সারি সারি গাছগুলো পরিবেশ রক্ষাার পাশাপাশি সড়কটির সৌন্দর্যবৃদ্ধি করেছিল। আকস্মিকভাবে গাছগুলো মরে যাওয়ায় প্রাকৃতিক সৌন্দর্য হারিয়ে যেতে বসেছে। তিনি বলেন,গত এক মাসে উক্ত সড়কের শতাধিক গাছ দুর্বৃত্তরা কেটে নিয়ে গেছে। এব্যাপারে সংশিস্নষ্টদের এখনি পদক্ষেপ নিতে হবে।
সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উপ-প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির দুর্বৃত্তরা গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে স্বীকার করে বলেন, গাছ কাটার বিষয়ে আমরা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছি। কিন্তুু দাঁড়াখাই এলাকাটি জগন্নাথপুর,ছাতক ও দক্ষিন সুনামগঞ্জ ওই তিন থানার সীমান্ত হওয়ায় পুলিশও কোন পদক্ষেপ নিতে পারছে না।
সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ১৯৯৯ সালে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের উদ্যোগে জগন্নাথপুর-পাগলা পয়েন্ট পর্যমত্ম ২১ কিলোমিটার সড়কে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ লাগিয়ে বনায়ন করা হয়। সড়কের দু’পাশে বনায়নের জন্য লাগানো গাছগুলো অনেক বড় হয়েছে। হঠাৎ করে দাঁড়াখাই এলাকায় দু’সারির চার শতাধিক গাছ মরে যায়।
আকস্মিকভাবে সড়কের গাছ মরে যাওয়া প্রসঙ্গে জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জানান, জেলা শহর সুনামগঞ্জ যাওয়ার পথে সারি সারি মৃত বৃক্ষগুলো দেখে মনে হয়েছে সড়কের দু’পাশের পাছের গোড়ায় বস্নক বসানোর কারণে মাটি থেকে রস সংগ্রহ করতে না পারায় গাছগুলো মরে গেছে।
সুনামগঞ্জ সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারম্নল আমীন বলেন,উক্ত সড়কের বনায়ন রক্ষায় আমরা পদক্ষেপ নেব। ইতিমধ্যে গাছ কাটা রোধ করতে প্রশাসনিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24