শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ১০:৫২ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌকাবাইচ:এবার সোনার নৌকা,সোনার বৈঠা জিতল কুতুব উদ্দিন তরী জগন্নাথপুরে সড়ক সংস্কার-অবৈধ যান অপসারণের দাবীতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মালিক,শ্রমিক নেতারদের জগন্নাথপুরে এনজিও সংস্থা আশা’র উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপি ফিজিওথেরাপী চিকিৎসা ক্যাম্প শুরু জগন্নাথপুরে মারামারি মামলাসহ বিভিন্ন ওয়ারেন্টের ১১ আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ

জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ ও জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কে চলছে লক্কর-ঝক্কর বাস, দুর্ভোগে যাত্রীরা

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৬ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ৫৭ Time View

স্টাফ রিপোর্টার::জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ ও জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কের চলাচলকারী অধিকাংশ বাসের বেহাল দশায় যাত্রীরা সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। লক্কর-ঝক্কর বাস দিয়ে যাত্রী সেবার নামে পরিবহন ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। এসব ত্রুটিপূর্ণ বাসগুলো মেরামতের জন্যে একাধিকবার বিভিন্ন মহল থেকে দাবি উঠলে বাস মালিক সমিতি কর্তৃপক্ষ উদাসীনভাবে বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছেন।
তবে বাস মালিক সমিতির পক্ষ থেকে ত্রুটিপূর্ণ বাসগুলো মেরামতের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জগন্নাথপুর বাস মালিক সমিতির সভাপতি নিজামুল করিম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিযেছেন।
জগন্নাথপুর বাস মিনিবাস মালিক সমিতি সুত্রে জানা যায়,জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ সড়কে চলাচল করছে ৩৫টি বাস। আর জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কে রয়েছে চলাচল করছে প্রায় শতাধিক বাস। দুটি বাসষ্টেশন থেকেই প্রতি ২০ মিনিট পর পর গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছাড়ছে একটি করে বাস । জেলা শহর ও বিভাগীয় শহরের দূরত্ব ৪৪ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে যাত্রীদের কাছ থেকে নেয়া হচ্ছে ৫৭ টাকা। যাত্রীদের চাহিদার তুলনায় জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ সড়কে বাসের সংখ্যা কম হওয়ায় যাতায়াতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় যাত্রীদের।
জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ ও জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কে চলাচলকারী বাসের অধিকাংশ পুরাতন লক্কর-ঝক্কর। বাসের সামন ভাগের ছাউনি ভাঙ্গা নতুবা তেতলা। দরজা জানালার কাঁচ ও লকের অবস্থা করুণ। সিটের অবস্থা খারাপ ও ছেঁড়া। সিটের হাতলগুলো নড়বরে। ভেতরে প্রায় লাইট অকোজো। ইঞ্জিনের শব্দেই বাসের অসুস্থতার কথা জানান দেয়। কিছু কিছু বাস চালু করতে প্রয়োজন পড়ে ৮-১০ জন লোকের সাহায্যের। অধিকতর দুর্বল বাসে তোলা হয় ধারণ ক্ষমতার চেয়ে অধিক যাত্রী। সিট না পাওয়ায় দাঁড়িয়ে পথ অতিক্রম করতে দেখা যায় অনেক যাত্রীদের। এছাড়াও রয়েছে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাইয়ের অভিযোগ।
জগন্নাথপুর-সুনামগঞ্জ সড়ক দিয়ে নিয়মিত যাতায়াতকারী যাত্রী সুনামগঞ্জ জেলাবারের আইনজীবি এডভোকেট জুয়েল মিয়া জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, প্রবাসী অধ্যুষিত জগন্নাথপুর উপজেলার প্রচুর মানুষ প্রতিদিন জেলা শহরের আদালতসহ বিভিন্ন কাজে যাতায়াত করে থাকেন। কিন্তু উক্ত সড়কে বাসের সংখ্যা কম ও লক্কর ঝক্কর বাসের কারণে সীমানহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয় যাত্রীদেরকে । তিনি জানান, রাস্তায় অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। র্দীঘ সময় সময় অপেক্ষা করার পর যদিও বাস আসে কিন্তু বাসে উঠলে সিট পাওয়া যায় না। দাঁড়িয়ে যেতে হয় । একই অবস্থা জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কে এমন কথা জানিয়ে ওই সড়ক দিয়ে নিয়মিত যাতায়াতকারী যাত্রী ব্যবসায়ী বকুল গোপ জানান, জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কে মানসন্মত বাস না থাকায় যাত্রীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অটোরিক্সা,সিএনজি,কার ও লাইটেসের প্রতি ঝুঁকে পড়ছেন। বাসে যারা চলাচল করছেন তারা অনেকটা নিরুপায় হয়ে চলাচল করেন।
জগ্নাথপুর বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি নিজামুল করিম জগন্নাথপুর টুযেন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘ত্রুটিপূর্ণ বাসগুলোকে মেরামতের জন্যে বাসমালিকদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আশা করছি পুরনো বাসগুলো মেরামতের আওতায় আনা হবে। তিনি জানান,বাস মালিক সমিতির সভায় যেসব গাড়ির ফিটনেস নেই তাদেরকে তিন মাসের সময় দেয়া হযেছে বাসগুলো সংষ্কার করার জন্য অন্যতায় তাদের সমিতি থেকে বহিস্কার করা হবে।’
নিজামুল করিম আরো জানান,‘বাসের সংখ্যা বাড়ানোর জন্যে বিজ্ঞপ্তি দেয়া হচ্ছে। রোডে ভর্তি হওয়ার জন্যে সমিতির সাথে অনেকেই যোগাযোগ করছেন । আসা করছি সড়কে গাড়ির সংখ্যা আরো বাড়ানো হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24