শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন

জালালাবাদ সেনানিবাসে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অনুশীলন সমাপ্ত

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৭ অক্টোবর, ২০১৬
  • ১৭ Time View

সিলেট প্রতিনিধি:দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রাণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনীর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘ডিজাস্টার রেসপন্স এক্সারসাইজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ-২০১৬ (ড্রি)’ শীর্ষক বহুজাতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অনুশীলন এর দ্বিতীয় পর্ব বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সম্পন্ন হয়েছে। ৩ অক্টোবর থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত আবুল মাল আবদুল মুহিত ক্রীড়া কমপ্লেক্সে দ্বিতীয় পর্বের ফিল্ড পর্যায়ের অনুশীলন শেষে জালালাবাদ সেনানিবাসে সনদপত্র বিতরণ করা হয়। সিলেট বিভাগে ১৭ পদাতিক ডিভিশন এবং সিলেট সিটি কর্পোরেশনের যৌথভাবে এই অনুশীলনের আয়োজন করে। উল্লেখ্য, ২৬ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর জালালাবাদ সেনানিবাসে তিনদিনব্যাপী প্রথম পর্ব সম্পন্ন হয়েছিল।
জালালাবাদ সেনানিবাসে অনুষ্ঠিত শেষ পর্বের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে সনদপত্র বিতরণ করেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি। সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জিওসি সদর দপ্তর ১৭ পদাতিক ডিভিশন এবং এরিয়া কমান্ডার-সিলেট এরিয়া, মেজর জেনারেল আনোয়ারুল মোমেন পিএসসি।
ড্রি’র সিলেট পর্বের সার্বিক দিক নিয়ে বক্তব্য রাখেন ড্রি অনুশীলন সিলেট এর প্রধান নিয়ন্ত্রক ৩৬০ ব্রিগেডের অধিনায়ক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল কাইয়ুম মোল্লা, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব এবং ৩৩ বি এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল সাজ্জাদ সারোয়ার।
সমাপনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ‘ডিজাস্টার রেসপন্স এক্সারসাইজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ-২০১৬ (ড্রি)’ এর কার্যক্রম দুইটি পর্যায়ে বাস্তবায়িত হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে (২৬ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর) টেবিল টক এক্সারসাইজসমূহ এবং দ্বিতীয় পর্যায়ে (৩ অক্টোবর-৬ অক্টোবর) ফিল্ড এক্সারসাইজ সম্পন্ন হয়েছে। টেবিল টক এক্সারসাইজ এবং ফিল্ড এক্সারসাইজ মূল উদ্দেশ্য ছিল সংশ্লিষ্টদের সচেতন ও উদ্ধুদ্ধ করার পাশাপাশি দুর্যোগ মোকাবেলায় সক্ষমতা বৃদ্ধি করা। ড্রি’র মাধ্যমে যেসব কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে তা ভবিষ্যতে দুর্যোগ মোকাবেলায় সহায়ক হবে।
সমাপনী অনুষ্ঠানে আরও জানানো হয়, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নবনির্মিত ভবনের যেখানে প্রকৃত সময়ে জরুরী সাড়াদান কেন্দ্র স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে সেখানেই জরুরী সাড়াদান কেন্দ্র স্থাপন করে অনুশীলন করা হয়েছে।
এই যৌথ অনুশীলনে ভূমিকম্প দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় সক্ষমতা বৃদ্ধি, অনুশীলনে অংশগ্রহণকারী সকল সহযোগী সংস্থার কর্মপদ্ধতির সমন্বয়, পারস্পরিক ধারণা বৃদ্ধি, বিভিন্ন আবশ্যকীয় পরিকল্পনা প্রণয়ন, উদ্ধার, চিকিৎসা ইত্যাদি পরিচালনা ও অনুশীলন করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন দলে বিভক্ত হয়ে পরিকল্পনা প্রণয়ন এবং বিভিন্ন সমন্বয় কেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে প্রকৃত দুর্যোগ মোকাবেলার ন্যায় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি অনুশীলন করা হয়।
উল্লেখ্য, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে একযোগে আয়োজিত এই সাতদিনব্যাপী অনুশীলনে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা ছাড়াও সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাবৃন্দ, বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী ও জাতিসংঘ অফিসসমূহ এবং দেশি-বিদেশি ১শ’ টি সংস্থার প্রায় এক হাজার প্রতিনিধি এবং যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জাপান, চীন, মায়ানমার, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, নেপাল এবং ভারতের প্রায় ৪৫ জন প্রতিনিধি অংশ নেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24