মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে পঞ্চাশ ঊর্ধ্ব ব্যক্তির বয়স ২৪ বছর! এ অভিযোগে মনোনয়ন বাতিল, গেলেন আপিলে জগন্নাথপুরে নদীর পাড় কেটে মাটি উত্তোলনের দায়ে দুই ব্যক্তির কারাদণ্ড জগন্নাথপুর বাজার সিসি ক্যামেরায় আওতায় আনতে এসআই আফসারের প্রচারণা জগন্নাথপুরে নিরাপদ সড়ক ও যানজটমুক্ত রাখতে প্রশাসনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুর উপজেলা ক্রিকেট এসোসিয়েসনের নতুন কমিটি গঠন মিরপুরে আ.লীগ প্রার্থী আব্দুল কাদিরের সমর্থনে কর্মীসভা অনুষ্ঠিত ফেসবুকে ক্ষমা চেয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক সম্পাদক রাব্বানী প্রায়ই বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত থাকেন শিক্ষক জগন্নাথপুরে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার, থানায় জিডি সংস্কারের দাবীতে জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে মঙ্গলবার থেকে আবারও অনিদিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট

নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের রাজনীতিবিদ হওয়ার স্বপ্ন দেখালেন ব্যারিষ্টার এম এনামুল কবির ইমন

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ১৬ জুন, ২০১৫
  • ৫০ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক:; একজন রাজনীতিবীদ হিসেবে নতুন প্রজন্মের শিক্ষাথীদেরকে রাজনীতিবীদ হওয়ার স্বপ্ন দেখালেন সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ব্যারিষ্টার এম এনামুল কবির ইমন। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মের শিক্ষাথীদের যখন প্রশ্ন করা হয় বড় হয়ে কী হবে সবাই ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার হতে চায়। কেউ রাজনীতিবীদ হতে চায় বলে না তখন কষ্ট পাই। রাজনীতির প্রতি নতুন প্রজন্মের অনীহা দূর করতে আমরা একটি সুস্থ ধারা রাজনীতি শুরু করেছি। যা দেখে আগামীতে এ প্রজন্মের শিক্ষাথীরা রাজনীতিবীদ হওয়ার স্বপ্ন দেখবে। দেশপ্রেমে উজ্বীবিত হয়ে মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে কাজ করবে। তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আমি নান্দনিক সুনামগঞ্জ গড়তে কাজ করে যাচ্ছি। আমি সুনামগঞ্জের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, রাজনীতি,সম্পদ, মুক্তিযুদ্ধকে ব্যান্ডিং করা চেষ্টা করছি। প্রধানমন্ত্রী সুনামগঞ্জের উন্নয়নে যে সব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, সেই সব প্রতিশ্রুতির অন্যতম সাব স্টেশন বিদ্যুতের সাব-স্টেশন আমাদের উপহার।
তিনি বলেন আগামী প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিকশিত হওয়া জন্য সুনামগঞ্জে ১৮টি শহীদ, সমাধি সৌধ নির্মাণ করেছি। এ প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের ভালোভাবে পড়াশোনা করে রাজনীতিবিদ হওয়ার স্বপ্ন দেখতে হবে। আর এই প্রত্যয়ে নান্দনিক সুনামগঞ্জ জেগে উঠবে।
তিনি সোমবার বিকেলে‘ জেগে উঠো সুনামগঞ্জ’ শিরোনামে শহরের শহীদ আবুল হোসেন মিলনায়তনে জেলা পরিষদ আয়োজিত বিভিন্ন প্রশিক্ষণের সনদ প্রদান, নাকট ও আবৃত্তি সন্ধ্যা অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম, পুলিশ সুপার মো. হারুন অর রশিদ, জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আফতাব উদ্দিন আহমেদ, জেলা জাসদ সভাপতি আতম মিছবাহ, দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীর প্রতীক,জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা জর্জেস মিয়া, সনাকের সভাপতি নুরুর রব চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি’র বক্তব্যে জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম বলেন, পদক না টাকা বড় কথা নয় সিকৃতি হল । শিক্ষাথীদের ভালোভাবে পড়াশুনা করে সব দিক থেকে চৌকস হতে হবে, দেশের সেবা করতে হবে। বর্তামন প্রজন্মকে প্রমিত ভাষা ব্যবহার করতে হবে, শিক্ষকদের ক্লাসে শুদ্ধ ভাষায় কথা বলতে হবে। শুদ্ধ উচ্চারণ আন্দোলনের পর্যায়ে নিয়ে যেতে চাই। সুনামগঞ্জ সংস্কৃতির রাজধানী। সংস্কৃতিচর্চার দিক দিয়ে এই শহর অনেক এগিয়ে। এখন শিক্ষার মানের দিক দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।
পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বলেন শুধু চিন্তা চেতনায় নান্দনিকতা থাকতে হবে না সাংস্কৃতিক বলয়ে নান্দনিকতা থাকতে হবে। তিনি বলেন জেলা পরিষদ থেকে আমাদের আর্থিক ভাবে সাহায্য করা হয়েছে, আগামী দুই মাসের মধ্যে নান্দনিক পুলিশ লাইন গড়ে তোলা হবে। তিনি বলেন রাজনীতির বাইরে গিয়ে দেশে শাসন করা যায় না, দেশে গণতন্ত্র সচল রাখতে হলে রাজনীতি থাকতে হবে। রাজনীতির মধ্য দিয়ে দেশ এগিয়ে যাবে।
এসময় অন্যান্য’র মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা আ.লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট নান্টু রায়, জগন্নাথপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আকমল হোসেন, জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল, সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নিগার সুলতানা কেয়া, জেলা আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি রবিউল লেইস রোকেস, জেলা যুবলীগের সদস্য আতিকুল ইসলাম আতিক, গৌতম বণিক, জমিরুল হক পৌরব, ছাত্রলীগ নেতা ফারুক আহমদ সুজন, নাজমুল হক কিরন, ফাহাদ জামান, জেলা শেখ রাসলে শিশু কিশোর পরিষদের আহ্বায়ক নূর মোহাম্মদ স্বজন, ফরহাদ আহমেদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান, সেলাই মেশিন বিতরণ, ক্রিকেট প্রশিক্ষণের প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে সনদ প্রদান, শুদ্ধ বাংলা উচ্চারণ-উপস্থাপনা ও আবৃত্তি প্রশিক্ষণার্থীদের সনদ প্রদান, কম্পিউটার প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে সনদ প্রদান, আযান-ক্বেরাত প্রশিক্ষণার্থীদের সনদ প্রদান ও হকারদের মধ্যে ছাতা বিতরণ করা হয়। পরে জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যশিল্পীদের অভিনয়ে নাটক কবি ও সুনামধন্য আবৃত্তিকার মাইদুলের আবৃত্তি উপভোগ করেন সুধীজন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24