শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের চিতুলিয়া গ্রামে আগুন,দুইটি ঘরসহ পুড়ল ১২ লাখ টাকার মালামাল জগন্নাথপুরে এখনও সম্পন্ন হয়নি আ.লীগের ওয়ার্ড ভিত্তিত্ব কমিটি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু ১৭ নভেম্বর জগন্নাথপুরে সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে সুযোগ পেল ১৭ পরীক্ষার্থী বন্ধ হলো ফেসবুকের সাড়ে পাঁচ’শ কোটি ভুয়া অ্যাকাউন্ট রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন, চারটি বগি লাইনচ্যুত জেলা মহিলা আ.লীগ নেত্রী রফিকা চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জগন্নাথপুরে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত আর্জেন্টিনার আদালতে সু চির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ছাতক-সুনামগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি বাস চালুর দাবি সম্মেলনকে সামনে রেখে জগন্নাথপুরে আ.লীগের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

পায়ের ওপর পা তুলে বসায় ৩ যুবককে হত্যা

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২ জুন, ২০১৮
  • ৬৩ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক:: উচ্চবর্ণের হিন্দুদের সামনে পায়ের ওপর পা তুলে বসায় তিন দলিত যুবককে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া গুরুতর জখম করা হয়েছে আরও ছয়জনকে।

সম্প্রতি ভারতের তামিলনাড়ুর শিবগঙ্গা জেলার কাচনাথম গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশর বরাত দিয়ে আনন্দবাজার জানিয়েছে, গত ২৫ স্থানীয় কারুপ্পাস্বামী মন্দিরের বাইরে পায়ের ওপর পা তুলে বসে ছিলেন তিন দলিত যুবক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন উচ্চবর্ণের দুই হিন্দু।

অভিযোগ, তাদের ‘অসম্মান’ করা হচ্ছে বলে দাবি করে ওই তিন যুবককে কটূক্তি করলে ঝগড়া বেধে যায় দুপক্ষের। পরে চন্দ্রকুমার নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানান ওই দলিত যুবকরা।

এই ঘটনার তিন দিন পর ২৮ মে দলিত গ্রামে অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় ১৫ জনের একটি সশস্ত্র বাহিনী।

জানা গেছে, মন্দিরের ঝামেলার পর থেকেই দলিতদের হুমকি দিচ্ছিলেন পাশের গ্রামের তেবর সম্প্রদায়ের কিছু মানুষ। সে নিয়ে থানায় অভিযোগ জানিয়েও ফল হয়নি।

হামলার ছক কষেছিল চন্দ্রকুমারের ছেলেই। ওই দিন রাতে বন্ধুদের নিয়ে কাচনাথম গ্রামে হামলা চালান তিনি।

হাসপাতালের পথে মৃত্যু হয় অরুমুগম ও শন্মুগনাথম নামে দুজনের। মাদুরাইয়ের হাসপাতালে মৃত্যু হয় চন্দ্রশেখর নামে আরও এক দলিতের। এর পরেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

রাজাজি হাসপাতালের মর্গ থেকে মৃতদেহ নিতে অস্বীকার করে পরিবার। শিবগঙ্গা ও মাদুরাইয়ের জেলাশাসকের সঙ্গে বৈঠকের পরে তাদের দাবিদাওয়া মানার প্রতিশ্রুতি পেলে বিক্ষোভ তোলেন তারা।

স্থানীয়দের অভিযোগ, কাচনাথম গ্রামে ৩০টি দলিত পরিবার ও পাঁচটি হিন্দু পরিবার থাকলেও বরাবরই কোণঠাসা দলিতরা। দলিতদের হাতে জমিজমা থাকলেও উচ্চবর্ণের হিন্দু পানি দিলে তবেই চাষবাস করতে পারেন তারা।

এমনকি উচ্চবর্ণের গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে গেলেও ব্যবস্থা নেয় না পুলিশ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24