শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ১১:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ জগন্নাথপুরের টমটম চালকের হত্যাকাণ্ড উন্মোচিত,ঘাতকের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান জগন্নাথপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মাষ্টমী উদযাপন জগন্নাথপুরে সরকারি গাছ কাটায় সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা ১৭ নভেম্বর টমটম গাড়ীর জন্য জগন্নাথপুরের এক চালককে রশিদপুরে নিয়ে খুন,গ্রেফতার-১ জেলা আ.লীগের গণমিছিল ৫ বছরেও শেষ হয়নি জগন্নাথপুরের ভবেরবাজার-গোয়ালাবাজার সড়কের কাজ,দুর্ভোগ লাখো মানুষের “জুম্মু কাশ্মীরে,গণতহ্যা শুরু করেছে মোদী সরকার”

প্রথম সন্তান প্রসবের ২৬ দিন পর যমজ সন্তানের জন্মদিনের এক মা

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ, ২০১৯
  • ৫৬ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
প্রথম সন্তান জন্ম দেয়ার ঠিক ২৬ দিন পরে বাংলাদেশী এক নারী প্রসব করেছেন দু’টি যমজ সন্তান। ২৫ শে ফেব্রুয়ারি খুলনায় আদদ্বীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রথম ছেলে সন্তান প্রসব করেন আরিফা সুলতানা ইতি (২০)। এটা ছিল স্বাভাবিক উপায়ে সন্তান প্রসব।

ওই সন্তানকে নিয়ে তিনি বাড়ি চলে যান। কিন্তু তখনও তিনি গর্ভবর্তী, তার পেটে রয়েছে দুটি সন্তানÑ এ বিষয়টি তিনি বুঝতেও পারেন নি। এমন কি ডাক্তাররাও বিষয়টি ধরতে পারেন নি। ঠিক ২৬ দিনের মাথায় তিনি আবার প্রসব বেদনা বোধ করেন। শারীরিক এ জটিলতা নিয়ে আবার ছুটে যান হাসপাতালে।

চটজলদি তাকে লেবার রুমে নেয়া হয়। কিন্তু স্বাভাবিক প্রসব এবার আর সম্ভব হলো না। এবার সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে তিনি প্রসব করলেন একটি মেয়ে ও একটি ছেলে। আরিফা সুলতানা ইতির এ তথ্য প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

এতে বলা হয়, নির্ধারিত সময়ের আগেই ২৫ শে ফেব্রুয়ারি তিনি প্রসব করেন প্রথম সন্তান। সেই শিশুকে নিয়ে তিনি বাসায় চলে যান। কিন্তু তার শরীরে যে আরো একটি গর্ভাশয় আছে সেটা ধরতে পারেন নি চিকিৎসকরা। তার দ্বিতীয় গর্ভাশয়েই ছিল ওই যমজ শিশু দুটি। বিষয়টি টের পান নি মা আরিফাও। তাকে চিকিৎসা দিয়েছেন গাইনি বিশারদ শীলা পোদ্দার।

তিনি এএফপিকে বলেছেন, আরিফা প্রথম সন্তান প্রসবের পরে বুঝতে পারেন নি তিনি তখনও গর্ভবতী। ফলে প্রথম সন্তান প্রসবের ঠিক ২৬ দিনের মাথায় তার আবার প্রসব বেদনা ওঠে। দ্রুততার সঙ্গে এমন অবস্থায় তাকে ২২ শে মার্চ নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। সেখানেই শীলা পোদ্দার সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে তার দুটি যমজ সন্তান প্রসব করান।

উল্লেখ্য, আরিফা সুলতানা ইতি বসবাস করেন যশোরে। এখন তিনি তিনটি সন্তান নিয়ে খুশি থাকলেও তাদেরকে কিভাবে বড় করবেন তা নিয়ে কপালে চিন্তার ভাজ পড়েছে। কারণ, তার স্বামী একজন শ্রমিক। তার মাসে আয় মাত্র ৭০ ডলার। আরিফা বলেছেন, এত কম অর্থে কিভাবে এত বিশাল দায়িত্ব পালন করবো তা জানি না।
আরিফার স্বামীর নাম সুমন বিশ্বাস। তিনি বলেন, এই তিনটি সন্তান আমার কাছে আল্লাহর দেয়া অলৌকিক এক উপহার। বাচ্চারা সুস্থ আছে। এতে আমি খুশি। ওদেরকে খুশি রাখার জন্য আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো।

সৌজন্যে মানব জমিন

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24