রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:১০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নতুন ২ কাণ্ডারির পরিচিতি জনগণের মৌলিক অধিকার ও আইনের শাসনে গুরুত্ব দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী দ.সুনামগঞ্জে বিদেশী রিভলবারসহ গ্রেফতার ১ সাংবাদিক এ এস রায়হানের পিতার মৃত্যু, জানাজা সম্পন্ন পাটলী উইমেন্স কলেজ উন্নয়নে প্রবাসীদের ১২ লাখ টাকার অনুদান জগন্নাথপুরে শ্রমিক-ব্যবসায়ীদের দ্বন্দ্বের নিস্পত্তি, পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার বাংলাদেশে ঢুকে মসজিদ নির্মাণে বিএসএফ’র বাধা প্রদান জগন্নাথপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন জগন্নাথপুরে সালিশী ব্যক্তিত্ব নুরুল ইসলাম আর নেই সুনামগঞ্জে বিয়ের খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে ৮০ জন হাসপাতালে, ১ জনের মৃত্যু

প্রধানমন্ত্রী সাক্ষর জাল করে ধরা পড়ল প্রতারক মহিলা গ্রেফতার

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭
  • ২৫ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: রাজধানীর শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শেকৃবি) ২০১৬-১৭ সেশনে প্রথমবর্ষে এক শিক্ষার্থীকে ভর্তি করাতে প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর জালিয়াতির আশ্রয় নিয়েছে এক মহিলা। রোববার প্রধানমন্ত্রী ও ডেপুটি স্পিকারসহ মোট ৫ জনের স্বাক্ষর সম্বলিত সুপারিশ আবেদনপত্রের সঙ্গে পেশ করলে মহিলার কথাবার্তা সন্দেহজনক মনে হওয়ায় প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অভিযুক্ত মহিলাকে আটক করে শেরেবাংলা নগর থানায় সোপর্দ করে। পরবর্তীতে শেকৃবি রেজিষ্টার মো. রেজাউল করিম বাদী হয়ে শেরে বাংলানগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। শেকৃবি প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, বেলা ১২ টায় মোছা: হাছিনা বেগম (৬০) নামে এক মহিলা প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর সম্বলিত একটি ডিও লেটার নিয়ে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিনের কক্ষে যায়। এতে প্রথমে তিনি গণ ভবনের বাবুর্চি বলে পরিচয় দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর সম্বলিত একটি ডিও লেটার এবং ডেপুটি স্পিকার, গোপালগঞ্জ ২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, পরিকল্পনা বিভাগের সচিব শফিকুল ইসলাম এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রটোকল অফিসার মনজিলা ফারুকের স্বাক্ষর সম্বলিত সুপারিশ কাগজ ভিসির কাছে দেয়। সুপারিশপত্রের ভাষ্য ছিল, বিশেষ কোটায় ফাহিম জাহান দৃষ্টি নামে এক শিক্ষার্থীর ভর্তির সুব্যবস্থা জন্য জোর সুপারিশ করছি। এতে উল্লেখিত শিক্ষার্থীকে অসুস্থ হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। ভিসির কাছে পেশ করা মহিলার সমস্ত কাগজের স্বাক্ষরসহ কথাবার্তা অসংলগ্ন মনে হওয়ায় শেকৃবি প্রশাসন মহিলাকে আটক করে শেরে বাংলানগর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। আটকের পর এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে শেকৃবি ভিসি বলেন, আটককৃত মহিলা এর আগেও আমার কাছে ৩/৪ বার এসে ফাহিম জাহান দৃষ্টি নামে ভর্তিচ্ছু এক শিক্ষার্থীর ভর্তির তদবির করে। তাতে আমি কোন কর্নপাত না করলে সর্বশেষ আমার কাছে প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষর সম্বলিত একটি ডিও লেটার নিয়ে হাজির হয়। এতে ঘটনাটি আমার কাছে পুরোপুরি স্পষ্ট হয়ে যায় যে, এটি একটি ভুয়া আবেদন। কেননা প্রধানমন্ত্রীর কোন ডিও লেটার কোন ভিসি কাছে আসতে পারে না। এছাড়াও আবেদন পত্রে নানা ধরনের ভুল ছিল। তাছাড়া প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষরটিও ছিল আমার কাছে অস্পষ্ট। অন্যদিকে আটককৃত হাছিনা বেগম (৬০) নিজেকে গণ ভবনের বাবুর্চি হিসেবে পরিচয় দেয়। এ সময় গণভবনে প্রবেশের জন্য একটি পরিচয় পত্র দেখায়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আটক হাছিনা বেগমের আইডি কার্ড ও তার সমস্ত কাগজপত্র ভুয়া। তিনি গণভবনের বাবুর্চিও নন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24