মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৩:১৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সুনামগঞ্জে আ.লীগ নেতার ছেলে পিটালেন ডাক্তারকে সুনামগঞ্জ পৌর শহরে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে আহত ৩ জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠানের উদ্যাগে সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান জগন্নাথপুর আ,লীগের সন্মেলন কে স্বাগত জানিয়ে সৈয়দপুর বাজারে মিছিল জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সন্মেলন ১ ডিসেম্বর জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে ফের বুধবার থেকে ধর্মঘট, এলাকায় মাইকিং জগন্নাথপুরে পৃথক দুই হত্যাকাণ্ডের থানায় মামলা জগন্নাথপুরে ভুয়া নাগরিক সনদপত্র সংগ্রহকারী ২৫ জন সনাক্ত জগন্নাথপুরে ফাঁদে পড়ে খাঁচায় বন্দি মেছোবাঘ সুনামগঞ্জে ওয়ার্ড-ইউনিয়ন সম্মেলন না করেই উপজেলা সম্মেলনের তারিখ ঘোষণায় দলের তৃণমূল পর্যায়ে প্রতিক্রিয়া

বিষয়ভিত্তিক কুরআন পবিত্র কোরআন পাঠের ফযিলত

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৭
  • ৭৭ Time View

মুফতি আবদুল্লাহ তামিম: পবিত্র কোরআন হচ্ছে আল্লাহর এক মহা-নেয়ামত। ক্ষণস্থায়ী অস্তিত্বের একমাত্র সহায়ক হাতিয়ার, ভয় ও দুশ্চিন্তা দূর করার মাধ্যম, স্রষ্টার সান্নিধ্য ও নৈকট্য লাভের একমাত্র পথ, মুত্তাকিদের জন্য পথ-প্রদর্শক,পথের দিশা, পুঞ্জিভ‚ত সম্পদের চেয়েও শ্রেষ্ঠ সম্পদ, রোগাক্রান্ত অন্তরের আরোগ্যকারী, শয়তানের বিরুদ্ধে সবচাইতে শক্তিশালী মিত্র, ন্যায়-অন্যায়ের পার্থক্যকারী। আল্লাহ তায়ালা বলে, (কোরআন) সে-ই কিতাব, যাতে কোন সন্দেহ নেই, এতে রয়েছে মুত্তাকীদের জন্য পথের দিশা (সূরা বাকারা-২)

হে মানুষ তোমাদের জন্য এসেছে উপদেশ তোমাদের রবের পক্ষ থেকে এবং অন্তরে যা আছে তার নিরাময় আর মুমিনদের জন্য হেদায়াত ও রহমত। বলুন,এ কোরআন আল্লাহর অনুগ্রহ ও তাঁর রহমত, অতএব তারা সবাই আনন্দিত হোক। তারা যা কিছু জমা করে এই কোরআন তাঁর চেয়ে অনেক উত্তম (সূরা ইউনুছ-৫৭,৫৮)।

রমজান মাসেই কোরআন নাজিল করা হয়েছে, যা মানুষের জন্য হেদায়াত, সৎপথের স্পষ্ট নিদর্শন এবং সত্য ও মিথ্যার পার্থক্যকারী (সূরা বাকারা-১৮৫)।
আপনার প্রতি নাজিলকৃত কোরআন পড়ুন এবং নামাজ কায়েম করুন (সূরা আনকাবুত-৪৫)
আমি যাদের কিতাব দিয়েছি, তারা তা যথোপযুক্তভাবে পড়ে, তারা এর প্রতি নিষ্ঠা সহকারে ঈমান আনে (সূরা বাকারা-১২১)ধীরে ধীরে সহীহ-শুদ্ধভাবে কোরআন পড়-তেলাওয়াত কর (সূরা মুযামমিল-৪)

তাদের মধ্যে এমন কিছু নিরক্ষর-মূর্খ লোক আছে যারা মিথ্যা আশা ছাড়া কিতাবের কিছুই জানে না, তারা মুধু অমূলক ধারণাই পোষণ করে(সূরা বাকারা-৭৮)

হে আমার রব! কেন আমাকে অন্ধ অবস্থায় উঠালেন? আমিতো দৃষ্টি শক্তি সম্পন্ন ছিলাম (পৃথিবীতে)। আল্লাহ বলবেন এরইরূপেই আমার আয়াত সমূহ তোমার কাছে এসেছিল, কিন্তু তুমি তা ভুলে ছিলে, আজ অনুরূপভাবে তুমিও বিস্মত হলে- তোমাকে ভুলে গেলাম (সূরা তোহা ১২৪,১২৫ ও ১২৬)

যে দিন তাদের চেহারা দোজখের আগুনের মধ্যে উলট-পালট করা হবে, সেই দিন তারা বলবে, হায়! আমরা যদি আল্লাহর আনুগত্য ও রাসূলের আনুগত্য করতাম। তারা আরও বলবে, আমরা তো আনুগত্য করতাম আমাদের নেতাদের ও প্রধানদের। অতএব, তারাই আমাদের পথভ্রষ্ট করেছিল। হে আমাদের রব! তাই আপনি তাদেরকে দ্বিগুণ শান্তি প্রদান করুন এবং তাদের প্রতি লানত করুন-মহা লানত (সূরা আহজাব ৬৬-৬৮)
আমি কোরআন কে বুঝার জন্য সহজ করেছি-সহজ করে দিয়েছি উপদেশ গ্রহণের জন্য, অতএব কোন উপদেশ গ্রহণকারী আছে কি? (সূরা আল কামার ১৭)।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24