শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বোরকা পরে সমাবর্তনে যাওয়ায় প্রথম হয়েও স্বর্ণপদক পেলেন না নিশাত জগন্নাথপুরে কাল শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিদ্যুৎ থাকবে না মিরপুরে প্রতীক বরাদ্দের আগেই প্রচারণায় প্রার্থীরা! জগন্নাথপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে টমটম চালকের আত্মহত্যা জগন্নাথপুরে শিল্পকলা একাডেমির সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুর বাজারকে সিসি ক্যমেরার আওতায় আনতে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে বিদ্যালয় সমূহে পরিছন্নতা সামগ্রী ও প্রচারপত্র বিতরণ কার্যক্রম শুরু রাতভর ৪ ক্যাসিনোতে অভিযান নারায়ণগঞ্জে মা ও দুই মেয়েকে গলা কেটে হত্যা যুক্তরাজ‌্যে বসবাসতরত জগন্নাথপুরের আ.লীগ পরিবারের মিলনমেলা

ব্রিটিশ শাসনে আসছেন বাঙ্গালীরা

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ৬ মে, ২০১৫
  • ১৭৬ Time View

আমিনুল হক ওয়েছ লন্ডন থেকে :ইতিহাস বদলে যাচ্ছে। দুইশ বছরের ব্রিটিশ শাসনের বদলে এবার তাদের শাসন করতে প্রস্তুত হয়ে আছেন বাঙ্গালীরা। তন্মেধ্যে জগন্নাথপুরের বাসিন্দা সহ ৮ জন সিলেটী ও ১১ জন বাঙালি প্রাথী রয়েছেন। । ৭ মে ব্রিটেন পার্লামেন্ট নির্বাচনে জয়লাভ করলেই ব্রিটিশদের স্থানীয় শাসনতন্ত্রে তাদের শাসন করবেন এই প্রার্থীরা এমন আশাবাদে প্রবাসী বাঙ্গালী সহ বাংলা ভাষাভাষিরা। এবারের পার্লামেন্ট নির্বাচনে ১১ জন বাঙালি প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বেশিরভাগ প্রার্থীরই নির্বাচনে জয়লাভ করার সুবাতাস পাওয়া যাচ্ছে।
নির্বাচনকে ঘিরে ব্রিটেনে সিলেটীদের মধ্যে উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। এখানেই শেষ নয় ব্রিটেনের নির্বাচন নিয়ে সিলেটেও লক্ষ্য করা যাচ্ছে আনন্দের বন্যা। সিলেটের জনগণ অপেক্ষার প্রহর গুনছেন বিজয়ের বেশে কখন দেখা যাবে তাদের কৃতি সন্তানদের।
বাঙালিরা এদেশে ভালো নেতৃত্ব প্রদান করে আসছে। আগামীতে বাঙালি প্রার্থীদের মধ্য থেকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীও হবে। এমন মন্তব্য করেছেন খোদ ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেবিট ক্যামেরুন।
ব্রিটেনে সিলেটী প্রার্থীদের নির্বাচনে উৎসব মুখর পরিবেশ নিয়ে জানতে চাইলে যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জগন্নাথপুরের বাসিন্দা ছরফ রাজ জুবের জানান, এখানে বাঙালি প্রার্থীদের নির্বাচিত করতে বাঙালি কমিউনিটির সবাই নিরলস প্রচারণা করে যাচ্ছেন। আমাদের দৃঢ় প্রত্যয় এবারের নির্বাচনে সবকটি আসনে আমরা জয়লাভ করবো।
যুক্তরাজ্য আওয়ামিলীগ নেতা সৈয়দ আবুল কাশেম জানান, এ নির্বাচনে তাদের জয়লাভের বিষয়ে আমরা অনেকটাই নিশ্চিত কারণ এখানে অবস্থানরত বিভিন্ন কমিউনিটি তাদের নির্বাচিত করার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছেন।এবার শুধু অপেক্ষার পালা ৭ মে নির্বাচনে ফলাফলে ভাগ্য নির্ধারণ করে দিবে কারা হতে যাচ্ছেন ব্রিটিশদের শাসক।

একনজরে প্রার্থীদের পরিচিতি :
রুশনারা আলী:
গত নির্বাচনে প্রায় ১১ হাজার ভোটের ব্যবধানে নির্বাচিত হওয়া রুশনারা আলী এবারও পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে লেবার দলের প্রার্থী হয়েছেন। ১৯৭৫ সালে সিলেটের বিশ্বনাথে জন্ম নেওয়া রুশনারা প্রথমবার এমপি নির্বাচিত হয়েই আন্তর্জাতিক উন্নয়ন ও শিক্ষাবিষয়ক ছায়ামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। সর্বশেষ তিনি পার্লামেন্টারি ট্রেজারি সিলেক্ট কমিটির সদস্য হিসেবে মেয়াদ পূর্ণ করেন।

টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক:
লন্ডনের তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ আসন হ্যাম্পট্যাড অ্যান্ড কিলবার্নে লেবার দলের প্রার্থী হয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক। লন্ডনের মিচামে জন্ম নেওয়া টিউলিপ কিংস কলেজ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানার মেয়ে ২০১০ সালে স্থানীয় ক্যামডেন কাউন্সিলের কাউন্সেলর নির্বাচিত হন। লেবার দলীয় এমপি গ্লেন্ডা জ্যাকসন বার্ধক্যজনিত কারণে অবসর নেওয়ার ঘোষণা দিলে স্থানীয় লেবার সদস্যদের ভোটে টিউলিপ প্রার্থিতা অর্জন করেন।
আনোয়ার বাবুল মিয়া:আনোয়ার বাবুল মিয়ার আসনটিও লন্ডনের খুব কাছেই। ওয়েলউইন অ্যান্ড হার্টফিল্ড নামের এই আসনে তিনি লড়বেন কনজারভেটিভ দলের চেয়ারম্যান ও মন্ত্রী গ্রান্ট শ্যাপের সঙ্গে। আইন পেশায় নিয়োজিত আনোয়ার বাবুলের জন্ম ১৯৭২ সালে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে।
রুপা হক:
কিংস্টন ইউনিভার্সিটির সমাজবিজ্ঞান বিভাগের জ্যেষ্ঠ প্রভাষক ড. রুপা হক লড়ছেন লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে। গত নির্বাচনের কনজারভেটিভদের দখলে যাওয়া আসনটি এবার লেবারের অন্যতম ‘টার্গেট সিট’। ১৯৭২ সালে লন্ডনের ইলিংয়ে জন্ম নেওয়া রুপার আদি বাড়ি জগন্নাথপুরে
মেরিনা আহমদ:
মেরিনা আহমদের জন্ম নারায়ণগঞ্জে। মাত্র ছয় মাস বয়সে মা-বাবার সঙ্গে যুক্তরাজ্যে পাড়ি দেওয়া মেরিনা প্রার্থী হয়েছেন লন্ডনের অদূরে বেকেনহাম আসনে। দীর্ঘ ৩০ বছর ধরে লেবার পার্টির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত মেরিনা মন্ত্রীদের সঙ্গে কেবিনেট অফিসে কাজ করার পাশাপাশি ক্রাউন প্রসিকিউশন টিমে দায়িত্ব পালন করছেন।

সুমন হক:
স্কটল্যান্ডের অ্যাবার্ডিনশায়ারের বেন্ফ অ্যান্ড বুখান আসনে লেবার দলের মনোনয়ন পেয়েছেন সুমন হক। অ্যাবার্ডিন ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতক সুমন প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী, যিনি স্কটল্যান্ডের আসন থেকে মনোনয়ন পেলেন। স্কটল্যান্ডে জন্ম নেওয়া সুমনের আদি বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতকে। তিনি ১০ বছর ধরে স্কটিশ লেবার দলের সদস্য।
আলী আকলাকুল:
লুটনের রিগেইট অ্যান্ড বেনস্ট্যাড আসনে চারজন প্রতিযোগীকে পরাজিত করে লেবার দলের প্রার্থী নির্বাচিত হন আলী আকলাকুল। লুটনে জন্ম নেওয়া আকলাকুলের আদি বাড়ি সিলেটের বালাগঞ্জে। তিনি ব্রিটিশ রেড ক্রস ও অন্যান্য স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত।
লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলের তিন প্রার্থী
প্রিন্স সাদিক চৌধুরী:
নর্থ হ্যাম্পটন সাউথ আসনে লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলের পক্ষে প্রার্থী হয়েছেন প্রিন্স সাদিক চৌধুরী। তিনি ২০০৭ সালে নর্থহ্যাম্পটনশায়ার কাউন্সিল নির্বাচনে প্রথম কোনো বাংলাদেশি হিসেবে কাউন্সেলর নির্বাচিত হয়েছিলেন। পেশায় ব্যবসায়ী সাদিক ১৯৭৩ সালে সিলেট শহরে জন্মগ্রহণ করেন। মাত্র দুই মাস বয়সে মা-বাবার সঙ্গে তিনি যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান।
আশুক আহমদ:
১১ বছর বয়সে ১৯৭৬ সালে মা-বাবার সঙ্গে যুক্তরাজ্যে পাড়ি দেওয়ার পর থেকেই লুটনে বসবাস করছেন আশুক আহমদ। তিনি লুটন সাউথ আসনে ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী। স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন পদে কাজ করা আশুক আহমদ ২০ বছরের বেশি সময় ধরে লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত আছেন। তার জন্ম সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলা।
মোহাম্মদ সুলতান:
ওয়েলসের আর্ফন আসনে লিবারেল ডেমোক্রেট দলের প্রার্থী হয়েছেন মোহাম্মদ সুলতান। সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় জন্ম নেয়া সুলতান তরুণ বয়সে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান। পেশায় একজন সফল রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী সুলতান স্থানীয় বেনগোর সিটি কাউন্সিলের কাউন্সেলর।
বার্কিং আসনে এক প্রার্থী:
মিনা রহমান:
কনজারভেটিভ দল থেকে লন্ডনের বার্কিং আসনে মনোনয়ন পেয়েছেন মিনা রহমান। তিনি গত পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকা দলটির একমাত্র বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী। সিলেটের ছাতকে জন্ম নেওয়া মিনা রহমান একটি হাউজিং সোসাইটির ব্যবস্থাপক পদে কাজ করার পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24