বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০, ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বাসুদেব মন্দিরে তারকব্রহ্ম মহানামযজ্ঞ উপলক্ষে সন্মাননা প্রদান জগন্নাথপুরে সরকারি ভূমি থেকে ২৭টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ নেওয়ার খানের পিতার মৃত্যুতে জগন্নাথপুর বিএনপির শোক প্রকাশ জগন্নাথপুরের রানীগঞ্জ ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন সম্পন্ন জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ চিকিৎসক দ্বারা দুইদিন ব্যাপি ফ্রি ডেন্টাল মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে আটঘর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন জগন্নাথপুরে সিদ্দিক আহমদ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বই উৎসব অনুষ্ঠিত বিশ্বনাথে শিশুদের প্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম নেওয়া এক গ্রামের গল্প জগন্নাথপুরে দুইবছরের দণ্ডপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে জুয়ার আসর থেকে ১০ জুয়াড়ি আটক

ভণ্ড কবিরাজের কাণ্ড

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২ অক্টোবর, ২০১৭
  • ৫৩ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক ::
মামুন কবিরাজ! প্রত্যন্ত গ্রামগুলোতে তার ব্যাপক পরিচিতি। অসচেতন মানুষদের নানা প্রলোভন দেখিয়ে যাবতীয় রোগে তাবিজ-কবজ, জিন-পরী, দেব-দাসীর আছরে ঝাড় ফুঁক দেয়াই এ কবিরাজের কাজ। এসব কাজের অন্তরালে যুবতীদের সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক গড়াই যেন তার নেশা। গত শুক্রবার রাতে পীরগঞ্জের চৈত্রকোল ইউনিয়নের নিধিরামপুর কানিপাড়া গ্রামে এক কলেজপড়ুয়া ছাত্রীর ঘরে আপত্তিকর অবস্থায় তাকে আটক করে উত্তম-মধ্যম দিয়েছে গ্রামবাসী। ভণ্ড কবিরাজ মামুন তার নানা অপকর্মের কথাও অকপটে স্বীকার করেছে। শুধু তাই নয়, অসহায় পরিবারের কলেজ ছাত্রীটি যাতে মুখ খুলতে না পারে সেজন্য তাকে কৌশলে প্রভাবশালী কবিরাজের লোকজন অপহরণ করে নিয়ে গেছে। গত দু’দিন ধরে ভণ্ড কবিরাজ আটক থাকলেও অপহৃত কলেজ ছাত্রীটি উদ্ধার হয়নি।

এক্ষেত্রে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অসহায় পরিবারটি। নির্যাতনের শিকার পরিবার ও এলাকাবাসী জানায়, দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার বিনোদনগর ইউনিয়নের কলমদারপুর গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের পুত্র ৪ সন্তানের জনক কবিরাজ মামুন মিয়া (৪৮)। তার নাতি-নাতনীও রয়েছে। কবিরাজী বিদ্যার সূত্র ধরে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মামুন মিয়া পীরগঞ্জের নিধিরামপুর কানিপাড়া গ্রামে চলে আসেন। গ্রামের লোকজন যখন ঘুমে বিভোর ঠিক সে সময়ে পূর্ব-পরিচয়ের জের ধরে ওই কলেজপড়ুয়া ছাত্রীর ঘরে ঢোকে।

এক পর্যায়ে জনৈক প্রতিবেশী টের পেয়ে আশপাশের লোকজনকে বিষয়টি জানালে গভীর রাতে তাকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে। খবর পেয়ে কবিরাজের লোকজন রাতেই ওই বাড়িতে আসে এবং ভোরবেলায় কৌশলে কলেজছাত্রীকে তুলে নিয়ে যায়। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের ইউপি সদস্য রেজাউল ইসলাম মুঠোফোনে ছাত্রীর পরিবারকে জানায় যে, কবিরাজকে ছেড়ে দিয়ে মেয়েকে নিয়ে যান। নইলে মেয়েকে পাবেন না।

এদিকে শনিবার সকালে চৈত্রকোল ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সবুজ সংবাদ পেয়ে ভণ্ড কবিরাজ মামুনকে উদ্ধার করে নিজ জিম্মায় নেয়। তিনি বলেন, আইনগত জটিলতা আছে তাই মেয়ে উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত ভণ্ড কবিরাজকে ছেড়ে দেয়া যাবে না। এ ব্যাপারে নির্যাতিত ও অপহৃত কলেজ ছাত্রীর মা ও তার চাচা আক্ষেপ করে বলেন, ‘বাহে! গরিবের বিচার নাই। বিষয়টি ওসি স্যারকেও মোবাইলে জানানো হয়েছে।’

পীরগঞ্জ থানার ওসি রেজাউল করিম জানান, ‘মেয়েকে নিয়ে এলে ভণ্ড কবিরাজের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হবে। অপহরণের বিষয়টি অবগত নই, এ বিষয়ে মেয়ের পরিবারও কিছু জানায়নি।’ মানবজমিন

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24