সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১১:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌপথে বেপরোয়া ‘চাঁদাবাজি’,চাঁদা না দিলে শ্রমিকদের মারধর করে লুটে নেয় মালামাল মিরপুরের সেই প্রার্থী আপিলে ফিরলেন নির্বাচনী লড়াইয়ে মিরপুর ইউপি নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করলেন দুইজন, কাল প্রতিক বরাদ্দ পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের নামাজ শেখানো হয় যে বিদ্যালয়ে পানির নিচে প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে মৃত্যু! সিলেটে চারদিনের রিমান্ডে পিযুষ যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ২ জগন্নাথপুরে ৩৯টি মন্ডপে দুর্গাপূজার প্রস্তুতি,চলছে প্রতিমা তৈরীর কাজ জগন্নাথপুর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কমিটির বিরুদ্ধে অপপ্রচারে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত জগন্নাথপুরে ৬ মাসেও বকেয়া টাকা মিলেনি, ঋণের চাপে দিশেহারা পিআইসিরা

মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের খপ্পর থেকে কৃষক বাঁচাতে বিএনপি’র স্মারকলিপি

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
  • Update Time : বুধবার, ২২ মে, ২০১৯
  • ১৭১ Time View

মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের খপ্পর থেকে কৃষক বাঁচাতে জেলা প্রশাসকের নিকট স্মারকলিপি দিয়েছে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি। মঙ্গলবার বেলা ১ টায় সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শরিফুল ইসলামের হাতে দেওয়া স্মারকলিপিতে বিএনপি উল্লেখ করেছে, ‘সরকারের গণবিরোধী সিদ্ধান্তের কারণে দেশে ধানের উৎপাদন ব্যাহত হবে।’
স্মারকলিপিতে আরও উল্লেখ করা হয়, উৎপাদন খরচ থেকে ৩০০ টাকা কম মূল্যে ধান বিক্রি করছে কৃষক। প্রতিবিঘা জমিতে ২০০০ টাকা লোকসান গুণে কৃষকরা দিশেহারা, ধানের জমিতে আগুন দিয়ে, সড়কে ধান ছিটিয়ে কৃষকরা প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। সরকার ধানের মূল্য ১০৪০ টাকা নির্ধারণ করলেও তাদের (সরকারের) আনুকূল্য পাওয়া মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা ধান কিনছে ৪০০-৫০০ টাকা মণে। সরকারের গণবিরোধী সিদ্ধান্তে ধানের উৎপাদন ব্যাহত হবে। উৎপাদন বন্ধ হবারও আশংকা রয়েছে।’
স্মারকলিপিতে অবিলম্বে লাভজনক মূল্যে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার দাবি জানানো হয়।
স্মারকলিপি প্রদানকালে জেলা বিএনপির সভাপতি কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরুল, সহসভাপতি ওয়াকিফুর রহমান গিলমান ও অ্যাডভোকেট মল্লিক মঈনুদ্দিন সোহেল, জেলা কৃষক দলের আহ্বায়ক আতম মিসবাহ্, দলীয় নেতা অ্যাডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহীন, জুনাব আলী, অ্যাডভোকেট আমিরুল ইসলাম, মোনাজ্জির সুজন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত. সুনামগঞ্জে এবার বোরো ধানের চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল দুই লাখ ১৭ হাজার ৪৩৫ হেক্টর জমিতে, আবাদ হয়েছে দুই লাখ ২৪ হাজার ৪০ হেক্টর। উৎপাদন হয়েছে ১৩ লাখ ১২ হাজার ৫০০ মে.টন ধান।
জেলা খাদ্য কর্মকর্তা মো. জাকারিয়া মোস্তফা জানান, সারাদেশের বিভিন্ন ক্রয় কেন্দ্র থেকে এবার দেড় লাখ মে.টন ধান কিনবে সরকার। প্রতি কেজি ধান কেনা হবে ২৬ টাকা অর্থাৎ প্রতি মণ ধান ১০৪০ টাকা কেনা হবে। চাল আতব ৩৫ টাকা এবং সিদ্ধ কেনা হবে ৩৬ টাকা কেজিতে। সুনামগঞ্জ জেলায় ধান কেনা হবে ৬৫০৮ মে.টন এবং চাল আতব কেনা হবে ১৭ হাজার ৭৯৮ মে.টন এবং সিদ্ধ কেনা হবে ১৪ হাজার ১৭৯ মে.টন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24