মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯, ১০:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:

রাধারমন,হাছন রাজা,বাউল কামাল পাশা ও আব্দুল করিম শুধু সুনামগঞ্জের নয় বিশ্ব বাঙ্গালীর গৌরব ও ঐতিহ্য -সংস্কৃতি মন্ত্রী

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০১৬
  • ১৬৪ Time View

আল-হেলাল সুনামগঞ্জ থেকে : সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন,সংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে সন্ত্রাসের মোকাবেলা করতে হবে। জঙ্গীবাদমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় মরমী সংস্কৃতির বিকল্প নেই। শনিবার বিকেল ৪টায় সুনামগঞ্জের পুরাতন কালেক্টরেট ভবনস্থিত সুনামগঞ্জ ঐতিহ্যবাহী যাদুঘর ও জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নবনির্মিত দ্বিতল ভবন এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক এডভোকেট শামছুল আবেদীন ও সাংবাদিক পংঙ্কজ দের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি,সুনামগঞ্জ-৪ সদর আসনের সাংসদ এড. পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সুনামগঞ্জ- মৌলভীবাজার সংরক্ষিত আসনের সাংসদ এড. শামছুন নাহার বেগম শাহানা রব্বানী, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব বেগম আকতারী মমতাজ, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ প্রমুখ। এর আগে দুপুর ১টায় মন্ত্রী স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে জেলা শিল্পকলা একাডেমীর নবনির্মিত দ্বিতল ভবনেরও উদ্বোধন করেন। পরে নতুন যাদুঘরের সামনে সুনামগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাস্ট্রিজ আয়োজিত পিঠা উৎসব ২০১৬ উপলক্ষে বিভিন্ন উপজেলা প্রশাসনের ও পৌর পরিষদের উদ্যোগে বসানো পিঠামেলার প্রায় ৪০টি ষ্টল ঘুরে দেখেন। মরমী কবি রাধারমন,হাছন রাজা,বাউল কামাল পাশা ও শাহ আব্দুল করিমের নাম উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সুনামগঞ্জ হচ্ছে মরমী সংস্কৃতির উর্বর লীলাভূমি। সরকারের পক্ষে এ অঞ্চলের হাজার হাজার মরমী কবির স্মৃতি গান ও সঙ্গীতকর্মকে সংরক্ষণ করার জন্য জাদুঘর স্থাপন করা হয়েছে। এই জাদুঘরকে ঠিকিয়ে রাখার দায়িত্ব এই জেলাবাসীকেই নিতে হবে। তিনি বলেন, মরমী কবি রাধারমন,হাছন রাজা,বাউল কামাল পাশা ও আব্দুল করিম শুধু সুনামগঞ্জের নয় বিশ্ব বাঙ্গালীর গৌরব ও ঐতিহ্য। সকল সঙ্গীত শিল্পীদের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে লালন ও পৃষ্ঠপোষকতা করতে হবে। পরে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তোলা মানেই শহীদদের প্রতি অবমাননা। যারা বাংলার মাটিতে রাজনীতি করতে চান,দেশের মানুষকে নিয়ে রাজনীতি করতে চান বা যারা দাবি করছেন বাংলাদেশের জন্য রাজনীতি করছেন,তাদেরকে অবশ্যই মুক্তিযুদ্ধ, জাতির পিতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধদের প্রতি সম্মান রেখেই রাজনীতি করতে হবে। যারা এই সম্মান করতে পারবেন না তাদের এই দেশে রাজনীতি করার অধিকার নেই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24