রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌকাবাইচ:এবার সোনার নৌকা,সোনার বৈঠা জিতল কুতুব উদ্দিন তরী জগন্নাথপুরে সড়ক সংস্কার-অবৈধ যান অপসারণের দাবীতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মালিক,শ্রমিক নেতারদের জগন্নাথপুরে এনজিও সংস্থা আশা’র উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপি ফিজিওথেরাপী চিকিৎসা ক্যাম্প শুরু জগন্নাথপুরে মারামারি মামলাসহ বিভিন্ন ওয়ারেন্টের ১১ আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ

সুনামগঞ্জে জগলুল-ইমনের বাগবিতন্ডা

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৭
  • ২৪ Time View

স্টাফ রিপোর্টার
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ইউনেস্কোর মেমোরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টারে অন্তর্ভূক্তির মাধ্যমে বিশ্বপ্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি লাভ করায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত সুনামগঞ্জ সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের সমাবেশে জগলুল-ইমনের মধ্যে বাগবিতন্ডা হয়েছে। সুনামগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে অ্যাড. মলয় চক্রবর্তীকে মঞ্চে ডাকা নিয়ে এই বাগবিতন্ডা হয়।
বেলা ১১ টায় আলোচনা সভার সঞ্চালক এনডিসি নাহিদ হাসান খান অ্যাড. মলয় চক্রবর্তী রাজুকে সুনামগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সম্মোধন করে মঞ্চে আহবান জানান।
অ্যাড. মলয় চক্রবর্তী রাজু মঞ্চে যান। এসময় মঞ্চে থাকা আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আয়ুব বখত জগলুল বলেন,‘পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মলয় চক্রবর্তী রাজু নয়, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজিদুর রহমান। তিনি মঞ্চে উপস্থিত আছেন।’
মেয়র আয়ুব বখত জগলুলের এই কথার প্রতিবাদ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন। ব্যারিস্টার ইমন বলেন,‘অ্যাড. মলয় চক্রবর্তী রাজুই সুনামগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, এজন্যই তাকে মঞ্চে ডাকা হয়েছে।’ এ নিয়ে দুই নেতার উত্তপ্ত বাগবিতন্ডা শুরু হয়। তাঁদের দুই জনের মাঝখানে বসা জেলা প্রশাসক সাবিরুল ইসলাম ও পুলিশ সুপার বরকতুল্লাহ্ খান পরিস্থিতি সামাল দেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন বলেন,‘তিনি (জগলুল) বললেন মলয় চক্রবর্তী সাধারণ সম্পাদক নয়, আমি বললাম, এটি কী বলেন আপনি? তিনি আমাকে এরপর বলে ওঠলেন, তাহলে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকও তুমি নও, আমি আরেক কমিটি ঘোষণা দেব। আমি বললাল আপনি গঠনতান্ত্রিকভাবে বলুন, এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়।’
আয়ুব বখ্ত জগলুল বলেন,‘ পৌর কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসাবে সাজিদুরের নাম না বলায় আমি বলেছি, তোমরা যা খুশি তাই করবে, এমন হলে সংগঠন সামাল দিতে পারবে না। এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়েছে।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24