মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে প্রকাশ্য দিবালোকে গ্রামীণ ফোনের ৫ লাখ টাকা ছিনতাই, জনতার ধাওয়ায় বাইকসহ আটক ১ জগন্নাথপুরে সড়ক রক্ষায় ১০ টন ওজনের অধিক যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা মিরপুর ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্দ, আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা প্রার্থীরা গরুর মাংস বিক্রি: ভারতে খ্রিস্টান যুবককে পিটিয়ে হত্যা জগন্নাথপুরের ব‌্যবসায়ী ফেরদৌস মিয়া খুনের ঘটনায় সানিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজনের যাবজ্জীবন ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের ‘হামলা’ আহত ২৫ অনেকেই গা ঢাকা দিয়েছে, অনেককেই নজরদাড়িতে রাখা হয়েছে: কাদের বিরিয়ানি খেলে শিক্ষকসহ ৪০ জন অসুস্থ আল কোরআন অনুসরণের আহ্বান রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের!

সুনামগঞ্জ-৪ আসনের মনোনয়নে আলোচনায় জগলুল : রাজনীতিতে নয়া মেরুকরণের ইঙ্গিত

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১০ জুলাই, ২০১৭
  • ৩১ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি ::
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী হিসেবে এখন স্থানীয় আলোচনায় সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য আয়ূব বখত জগলুল। এই আসনে ইতোপূর্বে যারা নিজ থেকে প্রার্থীতা ঘোষণা করে প্রচারণা চালাচ্ছেন তাদের ন্যায় জগলুল প্রার্থীতা ঘোষণা না করলেও তিনি আঁটঘাট বেধে প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে। রাজনৈতিক মহলের ধারণা এই আসনে বিএনপি শক্তিশালী প্রার্থী দিতে পারে। তাই এই আসনে ‘হায়ার করা প্রার্থী’র বদলে স্থানীয় শক্তিশালী প্রার্থী নির্বাচন করার দাবি তৃণমূল আওয়ামী লীগের। আর স্থানীয় প্রার্থী হিসেবে ভোটের রাজনীতিতে জগলুল শক্তিশালী প্রার্থী বলে মনে করেন তারা।
জানা গেছে, রাজনৈতিক মাঠে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সুনামগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশায় প্রচারণা চালাচ্ছেন গত জাতীয় নির্বাচনে বাদপড়া প্রার্থী ও উপ-নির্বাচনে নির্বাচিত সাংসদ আলহাজ্ব মতিউর রহমান। তাঁর সঙ্গে মাঠে প্রচারণায় না নামলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও তাঁর বলয়ের নেতাকর্মীদের মাধ্যমে প্রচারণা চালাচ্ছেন আ.লীগের গেলবারের মনোনীত প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার এম. এনামুল কবির ইমন। মতিউর রহমান কয়েকদিন আগে বাসায় নিজ বলয়ের নেতাকর্মী নিয়ে অনুষ্ঠিত কর্মীসভায় সুনামগঞ্জ-৪ আসনে প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন। ওই অনুষ্ঠানে স্থানীয় রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ও শীর্ষ কোনো নেতাদের দেখা যায়নি। এরপর থেকে মতিউর রহমান বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায়ও প্রচারণা চালাতে দেখা গেছে।
সম্প্রতি জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক এক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের বাসায় রাজনৈতিক ঘরোয়া আলোচনায় নেতাকর্মীদের সামনে সুনামগঞ্জ-৪ আসনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন চাওয়ার ঘোষণা দেন পৌর মেয়র আয়ূব বখত জগলুল। মুহূর্তেই বিষয়টি আওয়ামী লীগের তৃণমূল পর্যায়ে পৌঁছে যায়। নড়েচড়ে বসেন জগলুল বলয়ের নেতাকর্মীরা। তারা স্থানীয় রাজনৈতিক আলোচনায় আয়ূব বখত জগলুলের প্রার্থীতা নিয়ে নিয়মিত কথা বলছেন। ওই নেতারা তার পক্ষ হয়ে তৃণমূল আওয়ামী লীগের বিশ্বস্ত ও পুরনো কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। আগামীতে প্রস্তুত থাকার জন্য জগলুলের চার দশকের তৃণমূল রাজনৈতিক সুহৃদদের নির্দেশনা দিচ্ছেন। জানা গেছে, এই খবর চাউর হওয়ার পর সদর ও বিশ্বম্ভরপুর এলাকার পুরনো অনেক নেতাকর্মী ব্যক্তিগতভাবে আয়ূব বখত জগলুলের সঙ্গে দেখা করে তাকে মনোনয়ন চাওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছেন। তৃণমূল কর্মীদের প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানিয়ে জগলুল আওয়ামী লীগের নীতি-নির্ধারণী মহলের সঙ্গে ব্যক্তিগত পর্যায়ে যোগাযোগ বৃদ্ধি করছেন বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে।
এদিকে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যে ও জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ে জগলুলকে নিয়ে আলোচনা শুরু হওয়ায় হঠাৎ প্রার্থীতা ঘোষণা করে প্রচারণা শুরু করেছেন গত নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নবঞ্চিত জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব মতিউর রহমান। তিনি ব্যক্তিগতভাবে মেয়র জগলুলের মনোভাব নানাভাবে ও নেতাকর্মীদের মাধ্যমে জানার চেষ্টা করছেন বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে। তাছাড়া সম্প্রতি তাঁর নিজ জন্ম এলাকা দিরাইয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে বিফল হয়ে ফের সুনামগঞ্জ-৪ আসনের দিকে দৃষ্টি দেয়ায় স্থানীয় নেতাকর্মীরাও এ নিয়ে আলোচনা করছেন।
নির্বাচনী বিশ্লেষকরা জানান, আগামী জাতীয় নির্বাচন তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা পূর্ণ হবে। বিশেষ করে মর্যাদাপূর্ণ সুনামগঞ্জ-৪ আসনে বিএনপির মনোনয়ন পাবার সম্ভাবনা রয়েছে টানা চারবার নির্বাচিত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দেওয়ান জয়নুল জাকেরীনের। তাদের পারিবারিক ঐতিহ্য ও নির্ধারিত ভোটব্যাংকের কারণে এই আসনে তিনি একজন হিসেবের প্রার্থী। তাঁর সঙ্গে এই আসনে আওয়ামী নীতি নির্ধারণী মহল ‘হায়ার করা প্রার্থী’ বাদ দিয়ে স্থানীয় প্রার্থী দেওয়ার বিবেচনা করছে। এই হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক সহচর প্রয়াত হোসেন বখ্তের ছেলে টানা দুই বারের মেয়র আয়ূব বখত জগলুলকে বিবেচনা করা হতে পারে বলে তৃণমূলের ধারণা। তাই হাছন পরিবারের সঙ্গে স্থানীয় রাজনীতিতে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা সৃষ্টিকারী বখ্ত পরিবারের সন্তান আয়ূব বখত জগলুলই এই হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন।
দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুটের পক্ষে তুমুল প্রচারণা ও নির্বাচনী কৌশল কাজে লাগিয়ে মুকুটকে বিজয়ী করতে নেপথ্যে যারা ভূমিকা রেখেছেন তাদের মধ্যে অগ্রপথিক ছিলেন আয়ূব বখত জগলুল। এই নির্বাচনে প্রচারণা চালাতে গিয়ে তার পুরনো রাজনৈতিক কর্মীদের সঙ্গে ফের সেতুবন্ধন তৈরি করেছেন জগলুল। সম্পর্ক তৈরি হয়েছে স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গেও। যার ফলে দলীয় মনোনয়ন পেলে প্রচারণা চালানো তার পক্ষে আরো সহজ হবে বলে মনে করেন নেতাকর্মীরা।
এদিকে আয়ূব বখত জগলুলের নাম সুনামগঞ্জ-৪ আসনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে আলোচনার পর মতিউর-মুকুট বলয়বিরোধী একটি পক্ষও জগলুলের পক্ষে অবস্থান নিতে পারে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করছেন। এ নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নয়া মেরুকরণও হতে পারে বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।
এ বিষয়ে আয়ূব বখত জগলুলের মোবাইলে যোগাযোগ করলেও তিনি ফোন ধরেননি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24