বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:

হবিগঞ্জে সিজারের তিন মাস পর পেট থেকে তোয়াল উদ্ধার,মৃত্যুর মুখে গৃহবধু

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১৭
  • ১৫ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক ::হবিগঞ্জে সিজারের তিন মাস পর এক গৃহবধু পেট থেকে তোয়ালে উদ্ধার করা হয়েছে।

তার নাম মল্লিকা দাস (৩৮)। তিনি আজমিরীগঞ্জের কাকাইলছেও গ্রামের সঞ্জীব সরকারের স্ত্রী। তারা শহরের শায়েস্তানগর এলাকার থাকেন। বর্তমানে তিনি একটি ক্লিনিকে মুমূর্ষু অবস্থায় চিকিৎসাধীন।

সঞ্জীব সরকার জানান, গত ২৩ আগস্ট তার স্ত্রীকে সিজারিয়ান অপারেশন করানোর জন্য শহরের চাঁদের হাসি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। ঐদিনই ডা. এসকে ঘোষ তার অপারেশন করেন। এরপর মল্লিকাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়।

অপারেশনের কয়েকদিন পর থেকেই পেটে ব্যাথা অনুভব করতে থাকেন মল্লিকা। দিন যত গড়ায় ব্যথা তত বাড়তে থাকে। প্রচণ্ড ব্যথা অনুভব করায় বেশ কয়েকদিন পর আবারও চাঁদের হাসি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। এসময় ডাক্তার মল্লিকাকে বেশ কয়েকটি পরীক্ষা দেন। পরীক্ষায় তার পেটের ভেতরে কিছু আছে বলে ধারণা করা হয়। পরে আবারও অভিজ্ঞ ডাক্তার পরীক্ষা নিরীক্ষার পর শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) বিকালে ডা. আবুল কালামের পরামর্শে আবার শহরের সিনেমহল এলাকার হেলথ কেয়ার ক্লিনিকে অপারেশন করা হয়।

অপারেশনের পর মল্লিকার পেটের ভেতর থেকে একটি তোয়ালে বের করা হয়।

তিনি আরও বলেন, ‌’পেটের ভেতর থেকে উদ্ধার হওয়া পুরো একটি তোয়ালে দেখে হতভম্ব হয়ে পড়েছি আমরা। কিন্তু এসব কর্মকাণ্ডের পরও দায়সারা ভাব করছে চাঁদের হাসি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।’

এ ব্যাপারে ডা. এসকে ঘোষ এর কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি জানান,‘ এমনটা হওয়ার কথা নয়। তবে ভুলবশত হয়ে থাকতে পারে।’

হবিগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. সুচিন্ত চৌধুরী জানান, এ বিষয়ে কোনও অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

চাঁদের হাসি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24