মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
দুই ট্রেনের মুখামুখি সংঘর্ষে নিহত ১৬ রাধারমন দত্ত এ দেশের লোক সংস্কৃতির ভান্ডার কে সমৃদ্ধ করেছেন: জেলা প্রশাসক ‘আওয়ামী লীগে দুঃসময়ের কর্মী চাই, বসন্তের কোকিল না’ জগন্নাথপুরে মূল্য তালিকা না থাকায় ভ্রাম‌্যমান আদাতের অভিযানে জরিমানা আদায় ঈদে মীলাদুন্নবী (সা:) উপলক্ষে জগন্নাথপুরে র‌্যালি ও আলোচনাসভা জগন্নাথপুরে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত সুনামগঞ্জে নৌকাডুবিতে প্রহরীর মৃত্যু দেখে নিন যে স্থানে জন্মগ্রহণ করেছিলেন মহানবী (সা.) বাবরি মসজিদ ধ্বংসকারী সেই বলবীর সিং এখন মুসলিম! রাধারমণের মৃত্যুবার্ষিকীতে ‘ক্লোজআপ ওয়ান’র সেরা প্রতিযোগি সালমা জগন্নাথপুর আসছেন সোমবার

চোখের জল মুছে ক্ষোভ আর প্রতিবাদে জগন্নাথপুরের কৃষকরা ৬ দফা দাবিতে রাজপথে

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল, ২০১৭
  • ৬৬ Time View

আলী আহমদ/ আজহারুল হক ভূঁইয়া :: পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) কর্মকর্তা,কর্মচারি, ঠিকাদার ও পিআইসির দূর্নীতিবাজদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবীতে চোখের জল মুছে ক্ষোভ আর প্রতিবাদের ঝড়ে জগন্নাথপুরের কৃষকরা রাজপথে নামলেন।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় ‘সচেতন জগন্নাথপুর উপজেলাবাসীর’ ব্যানারে স্থানীয় পৌরপয়েন্টে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসুচীতে সহ¯্রাধিক কৃষক, শ্রমিক, ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, গনমাধ্যমকর্মীসহ সর্ব স্তরের জনসাধারনের অংশ গ্রহনে ৬ দফা দাবীতে রাজপথে কর্মসুচী পালন করেন। মানববন্ধন শেষে পৌর মেয়র আবদুল মনাফের সভাপতিত্বে ও উপজেলা হাওর উন্নয়ন পরিষদের সাধারন সম্পাদক সিদ্দেকুর রহমানের পরিচালানয় প্রতিবাদ সভাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা নলুয়া হাওর বেষ্টিত চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হান্নান চৌধুরী ছুফি মিয়া, হাওর উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি শহিদুল ইসলাম বকুল, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক সাবেক পৌর কাউন্সিলর লুৎফুর রহমান, প্রেসক্লাব সহ সভাপতি বাজার বনিক সমিতির সাবেক সাধারন সম্পাদক তাজউদ্দিন আহমদ, সাধারন সম্পাদক সানোয়ার হাসান সুুনু, পৌর আওয়ামীলীগ নেতা প্যানেল মেয়র শফিকুল হক, কাউন্সিলর আবাব মিয়া, দিলোয়ার হোসেন, ব্যবসায়ী মিন্টুর রঞ্জন ধর, মাওলানা ইমরান আহমদ, ছালিক আহমদ, আবুল হাসিম ডালিম, কৃষক মাসুক মিয়া, জামাল হোসেন প্রমুখ। এতে অন্যান্যোর মধ্যে বক্তব্য উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আওয়ামীলীগ নেতা মুজিবুর রহমান মুজিব, জগন্নাথপুর বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারন সম্পাদক জাহির উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা সাফরোজ ইসলাম, বাজার বনিক সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা সায়মন হোসেন রুমেন প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, পাউবো, ঠিকাদার, প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) সভাপতিরা হাওর রক্ষা বেড়িবাঁধে দূর্নীতি ও অনিয়মের মাধ্যমে নিম্মমানের কাজ করায় জগন্নাথপুরের সর্ববৃহৎ নলুয়া ও মইয়ার হাওরসহ উপজেলার সব’কটি হাওরের বাঁধ ভেঙ্গে কাঁচা, আধা পাকা ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। কৃষকদের পক্ষে থেকে একাধিকবার অরক্ষিত হাওরের ফসল রক্ষায় বেড়িবাঁধগুলোর কাজ শেষ করার জন্য দাবী জানিয়ে আসলেও দাবীটি উপেক্ষিত হয়। যে কারনে সময় মতো বাঁধ নির্মান না করায় ও নিন্মমানের কাজ করায় কয়েকদিনের বৃষ্টির পানিতে ও পাহাড়ি ঢলে ফসলহানির ঘটনা ঘটে। গত ৩ বছর ধরে কৃষকরা তাদের কষ্টের ফসল গোলায় তুলতে পারেননি। অবিলম্বে জগন্নাথপুর উপজেলাকে দূর্গত এলাকা হিসেবে ঘোষনা করার দাবী করেন। এছাড়া হাওরের ফসলডুবিতে এক শ্রেনী অসৎ ও অসাধু ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে চালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্যের বাড়ানোর চেষ্টা চালিয়েছে। এসব মুনাফালোভীদের বিরুদ্ধে আইনানুগত ব্যবস্থা গ্রহনে প্রশাসনের নজরধারি বাড়ানোর দাবী করা হয়েছে।

কর্মসূচীতে ঘোষিত ৬ টি দাবী হচ্ছে হাওরে কৃষকদের সঙ্গে পরামর্শে বেড়িবাঁধের পরির্বতে স্থায়ী বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ নির্মাণ করা, ফসল তলিয়ে যাওয়ার পিছনে দায়ী দূর্নীতিবাজ পাউবোর কর্মকর্তা কর্মচারি, সংশ্লিষ্ট পিআইসি প্রকল্পের চেয়ারম্যান ও ঠিকাদারকে গ্রেফতার করে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন, আগামী ২০১৮ সালের মার্চ পর্যন্ত জগন্নাথপুরে খোলা বাজারে সরকারি (ওএমএস) চাল বিক্রির ব্যবস্থা গ্রহন, ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের মধ্যে ভিজিডি ও ভিজিএফ কার্ড বিতরণ করা, কৃষকদের কৃষি ঋন মওকুপের ব্যবস্থা গ্রহন ও আমাগী কৃষি মৌসুমে পর্যপ্ত কৃষি ঋন বিতরণের ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী করা হয়।

কর্মসুচী শেষে মৌন মিছিলসহকারে জগন্নাথপুরের ইউএনও মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহর কার্যালয়ের সামনে আধাঘন্টা ব্যাপি অবস্থান কর্মসুচী শেষে প্রধানমন্ত্রী বরাবর ইউএনওর মাধ্যমে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। স্মারকলিপি টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার পক্ষে জগন্নাথপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমির নিকট হস্তান্তর করা হয়।


প্রসঙ্গত এ বছর জগন্নাথপুর উপজেলার নলুয়া, মইয়ার, পিংলার হাওরসহ ছোট বড় ১৫টি হাওরে ২৫ হাজার হেক্টর বোরো ফসল আবাদ করা হয়। পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক নির্মিত নলুয়া ও মইয়ারসহ কয়েকটি বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে কাঁচা আধা পাকা ফসল পানিতে তলিয়ে যায়। এবছর বেড়িবাঁধ নির্মানে সরকার প্রায় ৬ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়। পাউবোর দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের যোগসাজসে ঠিকাদার ও অধিকাংশ পিআইসি সঠিকভাবে বেড়িবাঁধের কাজ না করে অর্থ লুটপাট করে নেয় বলে অভিযোগ উঠেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24