বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৭:২৯ অপরাহ্ন

জগন্নাথপুরের বিভিন্ন হাওরে জলাবদ্ধতায় ৩০০ একর ফসল তলিয়ে গেছে

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৩১ মার্চ, ২০১৭
  • ৫৪ Time View

স্টাফ রিপোর্টার : ভাল নেই জগন্নাথপুরের কৃষকরা। একদিকে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধগুলো নিয়ে দুশ্চিতা অন্যদিকে বৃষ্টির পানিতে ফসল তলিয়ে যাওয়ার আশংকায় কৃষকরা চোখে সর্ষে ফুল দেখছেন।

কয়েকদিনের অব্যাহত বর্ষন ও পাহাড়ি ঢলে নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলার নলুয়া হাওরসহ বিভিন্ন হাওরে জলাবদ্ধতায় কমপক্ষে ৩০০ একর জমির আধা পাকা ফসল তলিয়ে গেছে।

বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার ভারি বৃষ্টিপাতে ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে উপজেলার নলুয়া, মইয়া ও পিংলার হাওরসহ উপজেলার ছোটবড় ১৫টি হাওরে প্রায় ৩০০ একর জমির ফসল জলাবদ্ধতায় ডুবে গেছে।
হাওর উন্নয়ন পরিষদের নেতা শহিদুল ইসলাম বকুল জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম কে জানান, নলুয়ার হাওরের কাপনার কান্দির থেকে নলুয়ার হাওরের মাঝদাগ ও হাওরের ডুবি পর্যন্ত কমপক্ষে ১০০একর সহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে কমপক্ষে ৩০০ একর জমির কাচা ও আধা পাকা ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে।
রানীগঞ্জ ইউনিয়নের ইছগাও গ্রামের কৃষক হাজী সিদ্দেক আলী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম কে জানান, ভারি বৃষ্টিপাতে মইয়ার হাওরে আমার চাষাবাদকৃত ১০ কেদারা জমির ফসল ডুবার পানিতে তলিয়ে গেছে। ওই হাওরে আরো অনেক কৃষকের ফসল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

পাইলগাঁও ইউনিয়নের মাকড়কোনা গ্রামের কৃষক আব্দুল তাহিদ জানান, গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতায় তার কমপক্ষে ছয় কেদার জমির ফসল সহ আলআগদি হাওরের অনেক ফসল তলিয়ে গেছে। এছাড়াও রমাপতিপুর হাওরে ৭/৭ হাল জমিনের ফসল জলাবদ্ধতায় ডুবে গেছে।
রমাপতিপুর গ্রামের সাজ্জাদ মিয়া জানান, রমাপতিপুর হাওরে আমি এবছর ৬ কেদার জমিনে আবাদ করেছি। গত কয়েকদিনের বৃষ্টি ও পাহারি ঢলে সব ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে।

জগন্নাথপুর উপজেলার কৃষি কর্তকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম কে জানান, জলাবদ্ধতায় উপজেলার বিভিন্ন হাওরে ১০০ একর জমির ফসল ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24