শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ০২:০৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের চিতুলিয়া গ্রামে আগুন,দুইটি ঘরসহ পুড়ল ১২ লাখ টাকার মালামাল জগন্নাথপুরে এখনও সম্পন্ন হয়নি আ.লীগের ওয়ার্ড ভিত্তিত্ব কমিটি প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা শুরু ১৭ নভেম্বর জগন্নাথপুরে সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে সুযোগ পেল ১৭ পরীক্ষার্থী বন্ধ হলো ফেসবুকের সাড়ে পাঁচ’শ কোটি ভুয়া অ্যাকাউন্ট রংপুর এক্সপ্রেসে আগুন, চারটি বগি লাইনচ্যুত জেলা মহিলা আ.লীগ নেত্রী রফিকা চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জগন্নাথপুরে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত আর্জেন্টিনার আদালতে সু চির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ছাতক-সুনামগঞ্জ সড়কে বিআরটিসি বাস চালুর দাবি সম্মেলনকে সামনে রেখে জগন্নাথপুরে আ.লীগের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

জগন্নাথপুরে কামার পল্লীতে মাংস কাটার সরঞ্জামাদি বেচাবিকির ধুম

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
  • Update Time : রবিবার, ১১ আগস্ট, ২০১৯
  • ১৩৯ Time View

রাত পোহালেই কোরবানির ঈদ। বছরের এই একটি মাত্র কোরবানির ঈদকে ঘিরে প্রবাসী অধ্যুষিত জগন্নাথপুরে কামারের দোকানগুলোতে ক্রেতাদের ঢল নেমে। ইতিমধ‌্যে  টুং টাং শব্দে মুখরিত হয়ে উঠা কামারপল্লীতে পশুর মাংস কাটার নতুন সরঞ্জামাদি তৈরি ও পুরাতন দা, ছুরি, বঁটি, চাপাতি শান দেয়ার ধুম পড়েছে।  কোরবানির ঈদে সামনে রেখে দিনরাত পরিশ্রম করে মাংস কাটার সরঞ্জামাদি তৈরিতে ব্যস্ত সময় করে এখন বেচাবিক্রিতে ব‌্যস্ত কামাররা।
আজ রোববার সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, জগন্নাথপুর পৌরশহরে পশ্চিমবাজার এলাকায় কামারের দোকানগুলোতে মাংস কাটার

বিভিন্ন সরঞ্জামাদি কিনতে ভিড় করছেন ক্রেতারা।  আবার কেউ কেউ সরঞ্জামাদি তৈরিতে ব্যস্ত রয়েছেন।  অনেকেই আগুনের বাতির মাধ্যমে লোহা পেটাচ্ছেন। আর অন্য কর্মচারীরা রেত (শান দেয়ার যন্ত্র) দিয়ে দা, বঁটি, ছুরি, চাপাতি ও অন্যান্য সরঞ্জাম শান দিচ্ছেন।
জগন্নাথপুর পৌরশহরের বাসিন্দা ময়না কর্মকার জানান, বছরজুড়ে নানা কষ্টে পরিবার পরিজন নিয়ে সংসার চালাতে হয়। অনেকেই বাপ দাদার বুনিয়াদি এই পেশায় ছেড়ে অন‌্য পেশার জড়িয়ে পড়েছেন। নতুন করে এ পেশায় কেউ আসতে চায় না। বছরের এই দিনটা কে ঘিরে অর্থাৎ কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে পশুর মাংস কাটার সরঞ্জাম বিক্রি ভালোই হচ্ছে।
আরেক ব্যবসায়ী মতি লাল কর্মকার জানান, কোরাবনির ঈদে দা, বঁটি, ছুরি, চাপাতিসহ মাংস কাটার বিভিন্ন সরঞ্জামাদির প্রয়োজন হয়। গত কয়েকদিন ধরে দিনরাত লোহা পিটিয়ে নিদ্রাহীন শ্রম করে সরঞ্জাদি তৈরীর পর এখন ক্রেতাদের নিকট বিক্রি করতে পারছি। ভালোই লাগছে পরিশ্রম শেষে কষ্টের সাফল‌্যে অর্জনে।  সারারাতই বেচাবিক্রি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

জগন্নাথপুর বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদ জাহির আলী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এবছরের এই একটি মাত্র কোরবানির ঈদকে ঘিরে উৎসব মুখর হয়ে উঠে কামারের দোকানগুলো। দিবারাত্রি বেচাবিক্রির ধুম পড়বে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24