মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০১:১৮ পূর্বাহ্ন

মাধবপুর রাবার ড্যাম এলাকা থেকে ১৩০টি সরকারি গাছ কেটে নিয়েছে প্রভাবশালীরা

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ৩০ মে, ২০১৪
  • ১৯৬ Time View

স্টাফ রিপোর্টার, মাধবপুর থেকে ॥ মাধবপুর উপজেলার বহরা রাবার ড্যাম এলাকা ও রাস্তার পাশ থেকে ৫ লাখ টাকা মূল্যের ১৩০টি সরকারি গাছ কেটে নিয়ে গেছে একটি প্রভাবশালী মহল। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বহরা ইউনিয়নের সোনাই নদীর উপর নির্মিত রাবার ড্যাম শক্ত ও মজবুত রাখতে সোনাই নদীর তীরবর্তী অঞ্চলে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের ব্যবস্থাপনায় প্রায় ১০ বছর পূর্বে বিভিন্ন প্রজাতির কয়েক হাজার গাছ রোপন করা হয়। গাছগুলো বর্তমানে অনেক বড় ও মোটা হয়েছে। এলাকার একটি প্রভাবশালী চক্রের নজর পড়েছে গাছের উপর। তারা মূল্যবান এসব গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে সরজমিনে রাবার ড্যাম এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, রাবার ড্যামের দু’পাশে শতাধিক গাছের মোতা পড়ে আছে। অনেক মোতা বালু ও মাটি দিয়ে ঢাকা। আবার অনেক মোতা উপড়ে ফেলা হয়েছে। স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, জিয়াউল বর চৌধুরী জিলুর নেতৃত্বে জনু মিয়া, আনু মিয়া গত কয়েকদিন যাবত গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। তাদের ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পায় না। পুলিশ এসেছিল কিন্তু কানাকানি করে কিছুক্ষণ পর কেন জানি কিছু না বলে চলে যায়। রাবার ড্যাম ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মীর আব্দুল হালিম বাদলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, জিলু মিয়া চৌধুরী নামে এক প্রভাবশালীর ছত্রছায়ায় আনু মিয়ার নেতৃত্বে গত ২৪ মে রাত থেকে রাবার ড্যাম ও সংলগ্ন এলাকা থেকে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ জোর করে কেটে নিয়ে গেছে। ঘটনাটি আমি উপজেলা প্রকৌশলীকে অবগত করেছি। বহরা ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন জানান, তারা ক্ষমতার জোরে প্রকাশ্য দিবালোকে লাখ লাখ টাকার গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। কিন্তু কি কারণে প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করছে জানি না।
বিষয়টি সম্পর্কে এলজিইডি হবিগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে মাধবপুর উপজেলা প্রকৌশলী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী আহমেদ তানজীর উল্লাহ সিদ্দিকীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি গাছ কাটার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্থানীয় প্রভাবশালী জিয়াউল বর চৌধুরী জিলুর নেতৃত্বে জয়নাল আবেদীন জনু, আনু মিয়া জোরপূর্বক গাছগুলো কেটে নিয়ে গেছে। বিষয়টি তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবগত করেছেন এবং তাদের পরামর্শক্রমে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল বাছেদ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, উপজেলা প্রকৌশলীর একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24