মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৪৮ অপরাহ্ন

লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের উদ্যোগে অমর একুশে উদযাপন

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬
  • ১৫৯ Time View

আমিনুল হক ওয়েছ লন্ডন থেকে :- যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাব গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন মহান একুশে ফেব্রুয়ারী ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করেছে। একুশে ফেব্রুয়ারীর প্রথম প্রহর রাত ১২.০১ মিনিটে লন্ডনের আলতাফ আলী পার্কস্থ শহীদ মিনারে পুষ্পর্ঘ্য অর্পণের মধ্যে দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু করেন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ মান্যবর হাইকমিশনার মোঃ আবদুল হান্নান ও হাইকমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

২১শে ফেব্রুয়ারী সকালে হাইকমিশন ভবনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হয়। এরপর, ১১:০০ ঘটিকায় হাইকমিশনের সম্মেলন কক্ষে মহান শহীদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য উপলক্ষে এক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এই অনুষ্ঠানে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।
আলোচনা সভাটি শুরু হয় ভাষা শহীদ যারা জীবন উৎসর্গ করেছেন তাঁদের প্রতি গভীর সম্মানে এক মিনিট নিরবতা পালনের মধ্য দিয়ে। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বিশিষ্ট কলামিস্ট, সাংবাদিক ও ঐতিহাসিক একুশে ফেব্রুয়ারী গানের রচয়িতা আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী। ভাষা আন্দোলনের শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে তাঁর বক্তব্য শুরু করেন। তিঁনি বলেন, ভাষা আমাদেরকে একটি দেশ দিয়েছে, আজ সারা বিশ্বে বাংলা ভাষার ব্যবহার হচ্ছে। বিশেষ করে লন্ডনে বাংলায় বেশ কয়েকটি পত্রিকা ও টিভি চ্যানেলসহ কয়েকটি সড়কের নামকরন বাংলায় রয়েছে। তিঁনি হাজার বছরের বাংলা ভাষার ধারা সম্পের্কে উপস্থিত সকলের কাছে তুলে ধরেন।

তিঁনি বলেন, বাংলা ভাষা আজ নানা ভাবে আক্রান্ত হচ্ছে। আজও রোগীদের চিকিৎসা পরামর্শ, বাণিজ্যিক যোগাযোগের ক্ষেত্র ছাড়াও আরও অনেক ক্ষেত্রে ইংরেজী ভাষার ব্যবহার হচ্ছে। বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বাংলা ভাষার প্রয়োগে গুরুত্বারোপ করতে হবে। বাংলা ভাষার অবস্থান বিশ্বের কাছে ইংরেজী ভাষার মত প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। বাংলা একাডেমীকে বাংলা সাহিত্য চর্চার পাশাপাশি বাংলা ভাষার সঠিক ব্যবহারে আরো কাজ করতে হবে।
সভায় আমন্ত্রিত অতিথীবর্গের মধ্যে মূল প্রবন্ধের উপর আলোচনা করেন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চেন্সলর জনাব মোঃ ফায়াকুজ্জামান, জনাব সুলতান শরীফ, সভাপতি, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ, জনাব এম এ করিম, সেক্রেটারী জেনারেল, অল ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগ।
হাইকমিশনার একুশে ফেব্রুয়ারী গানের রচয়িতা আবদুল গাফফার চৌধুরীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তাঁর বক্তব্যে বলেন, এই গান মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের অনুপ্রেরনা যোগিয়েছিল। তিঁনি বলেন, একুশ আমাদের শিক্ষা দেয় মাথা নত না করার। একুশ আমাদের অস্বিত্ব, একে আমাদের রক্ষা করতেই হবে। বাংলাকে বিজ্ঞান ও গবেষণায় অর্ন্তভুক্ত করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নে একুশ ও স্বাধীনতার চেতনাকে ধারণ করে, সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানান।
আলোচনা অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য প্রবাসী গণমান্য ব্যক্তিবর্গ, বাংলা প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এবং হাইকমিশনের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24