1. forarup@gmail.com : jagannthpur25 :
  2. jpur24@gmail.com : Jagannathpur 24 : Jagannathpur 24
রবিবার, ০৭ জুন ২০২০, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন

থানায় আসামীর মৃত্যু, ওসি প্রত্যাহার

  • Update Time : শুক্রবার, ২৭ মার্চ, ২০২০
  • ৪৩৯ Time View

জগন্নাথপুর২৪ ডেস্ক::
বরগুনার আমতলী থানা হাজতে হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি শানু হাওলাদারের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল বাশারকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে বরগুনা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাকে প্রত্যাহার করে বরগুনা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের পশ্চিম কলাগাছিয়া গ্রামে গত বছরের ৩ নভেম্বরে ইব্রাহিম নামের একজনকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই হত্যা মামলায় শানু হাওলাদারের সৎ ভাই মিজানুর রহমান হাওলাদার এজাহারভুক্ত আসামি। ওই মামলার শানু হাওলদারকে গত সোমবার রাত সাড়ে এগারটার দিকে সহেন্দভাজন আসামি হিসেবে আমতলী থানা পুলিশ আটক করে। আটকের পর আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাশার ও ওসি (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি শানুর পরিবারের কাছে হত্যা মামলায় আসামি করার ভয় দেখিয়ে তিন লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন। ওই টাকা দিতে অস্বীকার করে শানুর পরিবার। টাকা না পেয়ে শানু হাওলাদারকে থানা হাজতে রেখে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের নামে নির্যাতন করে। নির্যাতন খবর পেয়ে শানুর ছেলে সাকিব হোসেন মঙ্গলবার ওসি আবুল বাশারকে ১০ হাজার টাকা দেন। কিন্তু তাতেও তিনি তুষ্ট হননি। চাহিদা মত ঘুষের টাকা না পেয়ে পুলিশ শানু হাওলাদারের ওপর নির্যাতনের মাত্রা আরো বাড়িয়ে দেয়। বুধবার পরিবারের লোকজন শানু হাওলাদারের সঙ্গে দেখা করতে চাইলেও পুলিশ দেয়নি। উল্টো পরিবারের লোকজনের সঙ্গে অশালীন আচরণ করে তাদের তাড়িয়ে বলে অভিযোগ নিহতের ছেলে সাকিব হোসেনের। বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ছয়টার দিকে শানু টয়লেটে যাওয়ার কথা বললে পুলিশ নিয়ে যায়। পরে এক ফাঁকে শানু হাওলাদার ওসি (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রির কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে রশি পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে বলে দাবি ওসি আবুল বাশারের। এ ঘটনায় বরগুনার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ, এসপি পদায়ন) তোফায়েল আহম্মেদকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বরগুনা সদর) মো. মহব্বত আলী ও সহকারী পুলিশ সুপার (আমতলী-তালতলী সার্কেল) সৈয়দ রবিউল ইসলাম। দায়িত্ব অবহেলার দায়ে তাৎক্ষনিক বরগুনা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন আমতলী থানার ওসি (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি ও ডিউটি অফিসার এএসআই আরিফ হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন।

তদন্ত কমিটির প্রধান বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ, এসপি পদায়ন) তোফায়েল আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত শানু হাওলাদারের ছেলে সাকিব হোসেন ওসি আবুল বাশারের প্রত্যাহারের খবরে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে তাকে আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি করছি। তিনিই টাকা না পেয়ে আমার বাবাকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন। আমি হত্যাকারী ওসির দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ,এসপি পদায়ন) তোফায়েল আহম্মেদ বলেন, থানায় আসামির মৃত্যুর মূল কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত কাজ শুরু করেছি। অল্প সময়ের মধ্যেই তদন্ত শেষ হবে।

তিনি আরো বলেন, তদন্ত কমিটির সুপারিশে ওসি আবুল বাশারকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে বরগুনা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।
সুত্র- সমকাল

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Design & Developed By ThemesBazar.Com