মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:

আই অ্যাম এ ফাইটার: আইভী

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০১৮
  • ৭৪ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক :: নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ফুটপাত দিয়ে মানুষ হাঁটবে, হকারদের জন্য চারতলা বিল্ডিং হবে। তারা সেখানে যাবে। এটাই আমার মেসেজ। হকাররা হকার্স মার্কেটে যাবে। মঙ্গলবার রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশে রওয়ানা হওয়ার আগে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এদিকে, নারায়ণগঞ্জে সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও গুলিবর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়েরের জন্য আবেদন করেছেন সিটি করপোরেশনের আইন কর্মকর্তা। মামলায় ৯ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত এক হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে।

আইভী বলেন, আমার ফুটপাত দিয়ে আওয়ামী লীগ হাঁটবে, আমার ফুটপাত দিয়ে বিএনপি হাঁটবে, জনগণ হাঁটবে। সব নাগরিকের অধিকার সমান, কারণ আমি সবার কাছ থেকেই ট্যাক্স নেই। সিটি মেয়র হিসেবে আমি সবার মেয়র। আর আওয়ামী লীগ কর্মী হিসেবে আমি শেখ হাসিনার ক্ষুদ্র কর্মী।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আইভী বলেছেন, আমি শেখ হাসিনার পরীক্ষিত সৈনিক। আমার বারবার পরীক্ষা দিতে হবে না। আমি আওয়ামী লীগের নিবেদিত প্রাণ কর্মী ‘আই অ্যাম এ ফাইটার, এ লিডার।’ আইভী দাবি করেন, তাকে হত্যার উদ্দেশ্যেই সেদিন হামলা চালানো হয়েছিল এবং এর পেছনে ছিলেন শামীম ওসমান। আইভী বলেন, সাহসী নারায়ণগঞ্জবাসী আবার জেগেছে। অস্ত্রের ঝনঝনানির কাছে শান্তির যে জয়, নৈতিকতার যে জয়Ñ তাকে কেউ হারাতে পারে না। এটা নারায়ণগঞ্জবাসী দেখিয়েছে।

আইভী বলেন, আমি সিটি পরিচালনা করি। আমার সিটির দায়দায়িত্ব আমার। কেউ এখতিয়ার বহির্ভূতভাবে এটা নিয়ে কমেন্ট করবেÑ সেটা আমার নগরবাসী মেনে নেবে না। অতীতে মেনে নেয়নি, ভবিষ্যতেও নেবে না। আমার নগর কীভাবে চলবে সে সিদ্ধান্ত আমার নগরবাসী নেবে।
আইভী সাংবাদিকদের বলেন, সশস্ত্র আক্রমণ থেকে নিরস্ত্র জনগণ আমাকে রক্ষা করেছে। এজন্য নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞ। শেখ হাসিনার একজন ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে নারায়ণগঞ্জবাসীকে সেবা দিতে চাই। আমি আল্লাহর রহমতে এখন ভালো আছি। সংবাদ সম্মেলনে আইভী সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্নের উত্তর দেননি। সংবাদ সম্মেলন শেষে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে তিনি নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশে রওয়ানা হন। মেয়র আইভী ১৮ জানুয়ারি থেকে ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।
নিয়াজুলসহ অজ্ঞাত এক হাজার জন আসামি : নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, চাষাঢ়ায় হকার উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও গুলিবর্ষণের ঘটনায় অবশেষে মামলা দায়েরের জন্য আবেদন করেছেন সিটি করপোরেশনের আইন কর্মকর্তা। ওই ঘটনায় মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ এনে মঙ্গলবার সকালে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন সিটি করপোরেশনের আইন কর্মকর্তা জিএম এ সাত্তার। এতে সংঘর্ষের ঘটনায় অস্ত্র বের করা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, আলোচিত যুবলীগ নেতা নিয়াজুলসহ ৯ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত এক হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে।
নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার দায়িত্বরত ওসি (পরিদর্শক) আবদুর রাজ্জাক জানান, মামলার জন্য একটি অভিযোগ এসেছে। এখনও মামলা রেকর্ড হয়নি। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।
অভিযোগে প্রধান আসামি করা হয়েছে ঘটনার দিন প্রথম অস্ত্র বের করা নিয়াজুল ইসলামকে। এছাড়া অভিযুক্ত অন্যরা হলো অস্ত্র প্রদর্শন করা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও মহানগর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সেক্রেটারি শাহ নিজাম, ঘটনাস্থলে থাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, শহর যুবলীগের সভাপতি ও বিকেএমইএর পরিচালক শাহাদাৎ হোসেন সাজনু, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সেক্রেটারি মিজানুর রহমান সুজন, যুবলীগ নেতা জানে আলম বিপ্লব, আওয়ামী লীগ নেতা নাছির উদ্দিন ও চঞ্চল মাহমুদ।
উল্লেখ্য, ১৬ জানুয়ারি হকার বসানো নিয়ে চাষাঢ়ায় সায়াম প্লাজার সামনে আওয়ামী লীগের এমপি শামীম ওসমান সমর্থক ও হকারদের সঙ্গে সিটি করপোরেশন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24