বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:২৩ অপরাহ্ন

কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে জগন্নাথপুরে ফ্রিজের বেচাকেনা জমজমাট

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৫
  • ৫৩ Time View

শংকর রায় :; আগামীকাল কোরবানির ঈদ। এ উৎসবকে কেন্দ্র করে সব সময়ই বেড়ে যায় ফ্রিজ ও ডিপ ফ্রিজের বেচাকেনা। কোরবানির পশুর মাংস সংরক্ষণের জন্য মূলত এ সময়ে ফ্রিজের বাড়তি চাহিদা দেখা দেয়। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ফলে প্রবাসী অধ্যূষিত জগন্নাথপুরে বৃদ্ধি পেয়েছে বেচাকেনা।
জগন্নাথপুর বাজারের এমন কয়েকটি ঘর ঘুরে এমন দৃশ্যই দেখা গেছে। ফ্রিজের খুচরা পর্যায়ের বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ফ্রিজের বিক্রি বেশ ভালো। দেশীয় ফ্রিজ নির্মাতাদের সংগঠন বাংলাদেশ রেফ্রিজারেটরস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের হিসাব অনুযায়ী, সারা বছর দেশে এখন ১২ লাখ ফ্রিজ বিক্রি হয়। এর প্রায় ৩০ শতাংশই বিক্রি হয় কোরবানির ঈদের আগে। দেশীয় বিভিন্ন ব্র্যান্ড যেমন: ওয়ালটন, মার্সেল, র্যাংগস, ইকো প্লাস, যমুনা, মাইওয়ান, মিনিস্টার, বসের পাশাপাশি হিটাচি, সিঙ্গার, এলজি, তোশিবা, ওয়ার্লপুল, অ্যারিস্টন, সামস্যাং, হায়েস, হায়ার, শার্পসহ আমদানি করা বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ফ্রিজও বেশ বিক্রি হচ্ছে।
দেশে ১০০ লিটার ওজন থেকে ৪০০ লিটার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন পর্যন্ত ওজনের ফ্রিজ পাওয়া যায়। তবে বিক্রি বেশি হয় ১৫০ লিটার থেকে ২০০ লিটার ধারণক্ষমতার ফ্রিজ। এ ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন ফ্রিজগুলোই মধ্যম আয়ের মানুষের বেশি পছন্দ। জগন্নাথপুরে সবচেয়ে বেশী বিক্রি হচ্ছে ওয়ালট ফ্রিজ।
জগন্নাথপুর পৌরপয়েন্টে ওয়ালটন শোরুমের পরিচালক জামাল উদ্দিন বেলাল জানান,কোরবানির ঈদ সামনে রেখে ফ্রিজের বেচাবিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিনই ক্রেতারা ফ্রিজ কিনছেন। তিনি জানান,ঈদকে সামনে রেখে ওয়ালট শোরুমে আমরা বিভিন্ন ধারণক্ষমতার ফ্রিজ এনে দোকান সাজিয়েছি। প্রথমদিকে বেচাবিক্রি ভালো না হলেও শেষ দিকে এসে ভালোবেচাবিক্রি হচ্ছে। অনুরপভাবে যমুনাসহ অন্যান্যশোরুমে ভালো বিক্রি হচ্ছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24