বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:৫৫ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুরে বিপনী বিতানগুলোতে এখনো জমে উঠেনি ঈদ বাজার

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৯ আগস্ট, ২০১৭
  • ৩৯ Time View

স্টাফ রিপোর্টার ::
পবিত্র ঈদুল আযহার আর মাত্র চার দিন বাকী। ঈদকে সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা নতুন মালামাল আমদানি করলেও প্রবাসী অধ্যুষিত সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌরশহরসহ উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে এখনো জমে উঠেনি ঈদ বাজার।

মঙ্গলবার দুপুরে জগন্নাথপুর পৌরশহরের বিভিন্ন বিপনী বিতানগুলো ঘুরে দেখা যায়, ক্রেতাদের সমাগম তুলনামুলক কম। ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন এখনোই বেচাকেনার সময়। কিন্তুু খুবই মন্দা বেচাবিক্রি হচ্ছে। আশায় রয়েছেন শেষ মুর্হুতে হয়তো জমে উঠতে পারে ঈদ বাজার।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে পৌরশহরের এক কাপড় ব্যবসায়ী জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ঈদকে ঘীরে প্রায় এক কোটি টাকার নতুন মালামাল দোকানে তোলেছেন। বেচাকেনা নিতান্তই কম। গত বছরের চেয়ে এবার ৬০ ভাগ কম বিক্রি হচ্ছে।

ঈদ বাজারে আসা পৌর শহরের বাসিন্দা ফজুল মিয়া জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এবারের ঈদ বাজারে যেন কোন উৎসবই নেই। বাচ্ছারা বায়না ধরেছে ঈদের নতুন জামা কাপড় কিনে দেয়ার জন্য। তাই মার্কেটে এসেছি। এখনো কিনতে পারিনি। নুতন জামা কাপড়ের দামও একটু বেশি। দেখছি যাচাই বাচাই করে।

শহরের আসল ঝলক ফ্যাশনের মালিক শ্যামল গোপ জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ঈদে মন্দা বেচাকেনা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত ক্রেতাদের উপস্থিতি বাড়েনি। আশা করছি শেষ মুর্হুতে জমে উঠবে

আরেক ব্যবসায়ী নিউ ঝলক ফ্যাশনের মালিক কদ্দুস মিয়া জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, হাওরের ফলসডুবি আর বন্যার কারনে এবারের ঈদ বাজারে প্রভাব পড়েছে। গত ঈদের তুলনায় খুবই কম বিক্রি হচ্ছে।

এপেক্স গ্যালারির পরিচালক মির্জা জুবায়ের জামান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, ঈদের এক দুই দিন আগে বেচাবিক্রি বাড়তে পারে বলে তিনি মনে করছেন।

জগন্নাথপুর বাজার বনিক সমিতির সভাপতি আফসর উদ্দিন ভূঁইয়া জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, এই ঈদে পশু কুরবানি নিয়ে ব্যস্ত থাকে মানুষ। এবার প্রবাসিদের আর্থিক সহযোগিতা কম থাকায় ঈদ বাজারে প্রভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

জানা যায়, গত এপ্রিল মাসের প্রথম দিকে উপজেলার সর্ব বৃহৎ নলুয়ার হাওরসহ উপজেলা ছোট বড় সব ক’টি হাওরের আধা কাঁচা পাকা ধান পানিতে তুলিয়ে যায়। সেই সঙ্গে দুই দফা বন্যায় অর্থনৈতিক প্রভাব পড়েছে এলাকায়। ফলসডুবির পর পর প্রবাসিদের ব্যাপক সাহায্য সহযোগিতা মিললেও এই ঈদে তেমন সহযোগিতা পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে প্রভাব পড়েছে ঈদ বাজারে এমনটাই মনে করছেন সচেতন মহল।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24