বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরসহ সুনামগঞ্জ জেলার সবকটি উপজেলায় আওয়ামীলীগের সন্মেলনের উদ্যাগ নবীগঞ্জে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার জগন্নাথপুর উপজেলা ক্রিকেট এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন ২০০০ উইরো ফেরত দিয়ে প্রশংসিত বাংলাদেশি তরুণ জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে পরিবহন ধর্মঘট চলছে জগন্নাথপুরে পঞ্চাশ ঊর্ধ্ব ব্যক্তির বয়স ২৪ বছর! এ অভিযোগে মনোনয়ন বাতিল, গেলেন আপিলে জগন্নাথপুরে নদীর পাড় কেটে মাটি উত্তোলনের দায়ে দুই ব্যক্তির কারাদণ্ড জগন্নাথপুর বাজার সিসি ক্যামেরায় আওতায় আনতে এসআই আফসারের প্রচারণা জগন্নাথপুরে নিরাপদ সড়ক ও যানজটমুক্ত রাখতে প্রশাসনের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

জগন্নাথপুরে বোরো ফসল চাষাবাদের শুরুইতে সংশয়ে ভুগচ্ছেন কৃষকরা

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৭
  • ৪১ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি :: জগন্নাথপুরে বোরো মৌসুমের শুরু থেকেই চাষাবাদ নিয়ে শংকিত হয়ে পড়েছেন কৃষকরা। গত কয়েকদিনের অব্যাহত বৃষ্টিপাতের কারনে ফসলের আবাদ নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে।
স্থানীয় কৃষকরা জানান, বোরো ফসলের চাষাবাদের উপযুক্ত সময় হচ্ছে এখনো। এমনিতেই হাওর থেকে এখনো পুরাপুরি পানি নামেনি। যে সব অঞ্চলে পানি নেমেছে সে সব এলাকা কৃষকরা বোরো সফলের চারা রোপন করা হয়েছে। কিন্তুু গত শনি, রোব ও সোমবারের অব্যাহত বৃষ্টিপাতে রোপনকৃত চারা বিনষ্ট হওয়ায় আশংকা করছেন কৃষকরা।
উপজেলার নলুয়া হাওরপাড়ের কৃষক ভূরাখালি গ্রামের বাসিন্দা দিলদার হোসেন জানান, গত বছর দুই হাল (২৪ কেদারা) জমিতে বোরো সফল আবাদ করেছিলাম। সব ফসল পানিতে তলিয়ে যায়। এবারও আবাদেও প্রস্তুুতি নিয়েছি। এখনো হাওরের পুরো পানি নামেনি। ৫/৬ দিন আগে ১০ কেদারা জমিনে ২৮ জাতের বীজধান ৫০ কেজি রোপন করেছি। এর মধ্যে গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে অর্ধেক (৫০) ভাগ বীজতলা (চারাগাছ) ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।
একই গ্রামের আরেক কৃষক মাসুক মিয়া জানান, এবার তিনি ১৬ কেদারা জমিনে আবাদ করছেন। এরই মধ্যে তিনি ৯ কেদারা জমিনে ৪৫ কেজি ২৮ জাতের বীজধান ক্ষেতে ফেলেছেন। অব্যাহত বৃষ্টিতে বীজতলার ৪০ ভাল ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি দাবী করেছেন।
জগন্নাথপুরে নলুয়ার হাওরপাড়ের কৃষক নেতা হাওর বাচাঁও সুনামগঞ্জ বাচাঁও আন্দোলনের জগন্নাথপুর উপজেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক সিদ্দিকুর রহমান জানান, সুনামগঞ্জ জেলার মধ্যে অন্যতম নলুয়া হাওর। এখনো হাওরের পুরাপুরি পানি নিচের দিকে নামেনি। যে সব স্থান থেকে পানি নেমে গেছে সেসব এলাকায় কৃষকরা আবাদ শুরু করেছেন। কিন্তুু চাষাবাদের শুরুইতে বৃষ্টিপাতে বীজতলার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ায় শংকিত হয়ে পড়েছেন কৃষকরা।
হাওর বাঁচাও সুনামগঞ্জ বাচাঁও আন্দোলন কমিটির জগন্নাথপুর উপজেলা শাখার আহবায়ক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম জানান, গত বছর বেড়িবাঁধ ভেঙে হাওরের ফসল ডুবির পর আবারও কৃষকরা তাদের জীবিতকার তাগিদে নেমে পড়েছেন মাঠে। গত ৩/৪ দিনের বৃষ্টিতে হাওরের বীজতলা ক্ষতি সাধিত হওয়ায় সংশয় ভূগছেন কৃষকরা।
জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, বৃষ্টিতে হাওরের বীজতলায় কিছু ক্ষতি হয়েছে। পানি কমলে নির্নয় করা যাবে কী পরিমান ক্ষতিক্ষতি হয়েছে।
স্থানীয় কৃষি অফিস সুত্র জানায়, এবার জগন্নাথপুর উপজেলায় নলুয়া, মইয়ার হাওরসহ ছোট বড় ১৫টি হাওওে প্রায় ২০ হাজার হেষ্টর জমিন আবাদের আওতায় আনা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24