বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০৯:২৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:

ট্রাম্প নেতৃত্বের সমালোচনায় ওবামা-বুশ

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭
  • ১৩৬ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক ::
যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও জর্জ ডব্লিউ বুশ। ওবামা বলেছেন, আমেরিকানদের ‘বিভক্তি’ ও ‘ভয়ের’ রাজনীতি প্রত্যাখ্যান করা উচিত। অন্যদিকে বুশ জনজীবনে ‘উৎপীড়ন ও অন্ধবিশ্বাসের’ সমালোচনা করেছেন। তবে এই দুই সাবেক প্রেসিডেন্টের কেউই বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নাম মুখে নেননি। তাঁদের এ বক্তব্যকে ট্রাম্পের নেতৃত্বের তীব্র সমালোচনা হিসেবে দেখা হচ্ছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, গতকাল বৃহস্পতিবার ওবামা ও বুশ পৃথক অনুষ্ঠানে এসব মন্তব্য করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রে সাধারণত সাবেক প্রেসিডেন্টরা উত্তরসূরিদের ব্যাপারে প্রকাশ্যে কখনো মন্তব্য করেন না। এটিই সেখানকার রীতি। ক্ষমতা ছাড়ার সময় ওবামা বলেছিলেন, ট্রাম্পের ক্ষেত্রেও তিনি এ ঐতিহ্য বজায় রাখবেন। ওবামার ক্ষেত্রেও জর্জ ডব্লিউ বুশ এই ধারা বজায় রেখেছিলেন।

তবে ট্রাম্প যখন ওবামাকেয়ার বাতিলের পদক্ষেপ নিয়েছিলেন, তখন নীরবতা ভেঙেছিলেন বারাক ওবামা। এরপর কয়েকটি মুসলিম দেশে থেকে অভিবাসী গ্রহণ নিষিদ্ধ ও প্যারিস জলবায়ু চুক্তি বাতিল ইস্যুতেও মূল খুলেছিলেন ওবামা।

নিউজার্সিতে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রচারাভিযানে বারাক ওবামা বলেন, ‘বিভক্তি ও ভয়ের রাজনীতি প্রত্যাখ্যান করে আমেরিকানদের বিশ্বকে একটি বার্তা দিতে হবে। শত শত বছর আগে এখানে যে রাজনীতি চলত, সেই পুরোনো রাজনীতির ধারা আমরা আবার ফিরিয়ে আনতে পারি না। এখন আমরা এমন কিছু রাজনীতি দেখছি, যেগুলো ৫০ বছর আগে চলত। কিন্তু এখন একবিংশ শতাব্দী চলছে, বিংশ শতাব্দী নয়।’

এরপর ভার্জিনিয়ার রিচমন্ডে আরেক অনুষ্ঠানেও একই কথা বলেন ওবামা। তিনি বলেন, ‘আমরা সবাইকে রাগাতে চাইছি। যাঁদের ভিন্ন ভাবনা, তাঁদের রাগিয়ে অল্প সময়ের জন্য সুবিধা পাওয়ার চেষ্টা চলছে।’

একই সময় নিউইয়র্কে পৃথক একটি অনুষ্ঠানে কথা বলেন জর্জ ডব্লিউ বুশ। তিনি বলেন, ‘এখানে বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে রাজনীতির প্রতি সমর্থন কমে যাচ্ছে। ষড়যন্ত্র তত্ত্বের প্রতি দুর্বল হয়ে পড়ছে রাজনীতি। ঐক্যের শক্তির চেয়ে বিভক্তির শক্তি বেড়ে গেছে।’

তবে দুই সাবেক প্রেসিডেন্টই এখন পর্যন্ত ট্রাম্পের নীতি সম্পর্কে প্রকাশ্যে মন্তব্য করার বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন। ট্রাম্প এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি।

গত নির্বাচনের আগে ওবামা ও বুশ—উভয়েরই কঠোর সমালোচনা করেছিলেন ট্রাম্প। তাঁদের যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের ‘নিকৃষ্টতম’ প্রেসিডেন্ট বলে আখ্যায়িত করেছিলেন তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24