বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৬:৫২ অপরাহ্ন

দিরাইয়ে পৃথক সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ২৫ তন্মেধ্যে ১০ জন জগন্নাথপুর হাসপাতালে

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর, ২০১৫
  • ৩২ Time View

দিরাই সংবাদদাতা- সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে দিরাইয়ে বন্দুকযুদ্ধ, পৃথক সংর্ঘষে
নারীসহ আহত ২৫জন। জারলিয়া নদীর জলমহাল নিয়ে বন্দুক যুদ্ধের গঠনা ঘটেছে। এছাড়াও পৃথক দুটি সংর্ঘষে
নারী ও শিশুসহ অন্তত ২৫ জন আহত
হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ‍গুলিবিদ্ধ ১০জনকে জগন্নাথপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার সকালে উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের জারলিয়া নদীতেদু’গ্রুপের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ হয়। এতে ৫জন
গুলিবিদ্ধ হয়ে সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। অন্যদিকে রাজানগর ইউনিয়নের দলুয়া ও তাড়ল
ইউনিয়নের নোয়াগাও গ্রামে সংর্ঘষেরঘটনা ঘটে। আহত চারজনকেআশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট এমএজি
ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেপাঠানো হয়। বাকীদের দিরাই স্বাস্থ্য
কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। হাতিয়াগ্রামের একরার হোসেন ও শামীম মিয়া জানান, জারলিয়া নদীতে আমাদেরপাহাড়াদারা ঘুমন্ত অবস্থায় কাওসার
এর নেত্রীত্বে তার বাহিনী অতর্কিতহামলা চালায়। তারা গুলি করতে করতেআমাদের পাহাড়াদারদের গিড়ে ফেলে
এসময় কাউসার বাহিনীর বন্দুকের গুলিতে আকিলনগরগ্রামের হারুন মিয়া (৩০), নিজাম (৩০),
সেজু (২৫), উজ্জল (৩০) ও হাতিয়া গ্রামের তাজুল ইসলাম (৩২) গুলিবিদ্ধহয়। তাদের উদ্ধার করে সিলেট এমএজিওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা
হয়েছে। তারা আরো জানান, কাওসারেরবিরুদ্ধে একাধিক ডাকাতি মামলায় গ্রেফতারিফরোয়ানা রয়েছে এরপর পর সে এলাকায়দাপিয়ে বেরাচ্ছে। তারা তাকেগ্রেফতারের জন্য প্রশাসনের প্রতি
আহ্বান জানান। অন্যদিকে, বুধবারসকাল ৯টায় নোয়াগাও গ্রামের
আওলিয়া মিয়া ও ইসমাইল মিয়ারলোকজনের মধ্যে শিশুদের ঝগড়াকেকেন্দ্র করে উভয় পক্ষ সংর্ঘষে লিপ্ত
হয়। এতে অন্তত ১২ জন আহত হন গুরুতর আহত মোতালিব (৭৫), সুফিয়া
বেগম (৪০), রেজিয়া (৩৫), হাসেম (৬০)ও মোজ্জাম্মেল (৩৫) কে সিলেটওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেপাঠানো হয়েছে। অপর দিকে,উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের দলুয়াগ্রামে মঙ্গলবার রাতে পাওনা টাকাকেকেন্দ্র করে জমাদার মিয়া ও খালেকমিয়ার লোকজনের মধ্যে দেশীয়অস্ত্রের সংর্ঘষে অন্তত ৮ জন আহত
হয়েছেন। আহতদের মধ্যে লাল মিয়া(৩৫), সানজব আলী (৭৫), খালেক মিয়া(৪০), তুহিন (১০), নাজিব উদ্দিন (৩৫) ওবাচ্ছু মিয়াকে দিরাই হাসপাতালেভর্তিকরা হয়েছে। দিরাই থানারভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ বায়েছ
আলম বলেন, সংর্ঘষের ঘটনায় কেউ মামলা করেননি। জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরী বিভাগের চিকিৎসক জানান, দিরাইয়ে মারামারি ঘটনায় আহত ১০জনকে আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে সিলেট এম এ জি ওসামনী হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24