মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন

ধর্মপাশায় শিক্ষক লাঞ্চনার প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান কর্মসূচী পালিত

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১১ মার্চ, ২০১৬
  • ৪০ Time View

স্টাফ রিপোর্টার::কেন্দ্রীয় কর্মসুচীর অংশ হিসাবে সুনামগঞ্জে বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্বারকলিপি দিয়েছেন জেলার শিক্ষকরা। ১০ মার্চ বৃহস্পতিবার বিকালে শিক্ষকরা এ মানববন্ধন ও স্বারকলিপি প্রদান কর্মসুচী পালন করেন। পূর্বঘোষিত কর্মসুচী সফল করতে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে শিক্ষকরা এসে রাজগোবিন্দ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিলিত হয়। পরে শিক্ষকদের একটি র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ট্রাফিক পয়েন্টে মানববন্ধনে মিলিত হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা সহকারি শিক্ষক সমিতি কেন্দ্রীয় মিডিয়া বিষয়ক সম্পাদক ও জেলা সদস্য সচিব গোলাম সরোয়ার লিটন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি সদর উপজেলা সভাপতি সুজিত কুমার দে, তাহিরপুর উপজেলা সভাপতি অজয় কুমার দে, জামালগঞ্জ উপজেলা সভাপতি রইছ উদ্দিন, তাহিরপুর উপজেলা সহসভাপতি হাবিবুর রহমান, প্রধান শিক্ষক মন্টু কুমার সরকার, আবু নাসির, সহকারি শিক্ষক সমিতি জেলা যুগ্ম আহবায়ক আতাউর রহমান, বাদল তালুকদার, শরিফা আশ্রাফি প্রমুখ।
DSC04375
পরে মানবন্ধনকারীরা মিছিল নিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যান এবং শিক্ষকদের পক্ষ থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির জেলা সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন, সহকারি শিক্ষক সমিতির যুগ্ম আহবায়ক বাদল তালুকদার ,আতাউর রহমান , শরিফা আশ্রাফি জেলা প্রশাসকের কাছে স্বারকলিফি প্রদান করেন। এ সময় সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম বলেন, কেউই আইনের উধ্বে নয়। ঘটনাটি সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে দায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য গত ৩ মার্চ ধর্মপাশা নোয়াগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিপালী রানী দাস ও সহকারী শিক্ষিকা মনি রানী তালুকদারকে মারধর করেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি সর্বানন্দ তালুকদার ও তার সঙ্গীরা। এঘটনায় জেলার শিক্ষকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হলে শুরু হয় নানা আন্দোলন কর্মসূচী। বাতিল করা হয় বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি। উপজেলা শিক্ষা কমিটির জরুরী সভায় মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মোতালেব খানের সভাপতিত্বে কমিটি বাতিল করা হয়। এঘটনায় লাঞ্চনার শিকার বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিপালী রানী তালুকদার বাদী হয়ে সুনামগঞ্জের
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে বাতিল হওয়া বিদ্যালয় পরিচালনা সভাপতি সর্বানন্দ তালুকদারকে প্রধান করে ৫জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24