রবিবার, ১৮ অগাস্ট ২০১৯, ১২:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরের পাটলীতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা জগন্নাথপুরে গাছ কাটার ঘটনায় যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে জগন্নাথপুরে শিকল দিয়ে তিনদিন বেঁধে রাখার পর রিকশাচালকের মৃত্যু:হত্যা মামলা দায়ের ভারত বিনা যুদ্ধেই হারাচ্ছে জঙ্গি বিমান, নিহত হচ্ছেন পাইলট ২০০৫ সালের সিরিজ বোমা হামলার বিচার অবশ্যই হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী সাপের ছোবলে শিশুর মৃত‌্যু বণাঢ্য আয়োজনে জনপ্রিয় দৈনিক সুনামগঞ্জের খবরের বর্ষপূর্তি উদযাপন দৈনিক সুনামগঞ্জের খবরের এবার বর্ষসেরা প্রতিনিধি হলেন আশিক মিয়া বঙ্গবন্ধুকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড, হিসেবে আখ্যা দিল জাতিসংঘ জগন্নাথপুরে তিন লাখ টাকা মূল্যের সরকারি গাছ ‘কেটে’ নিলেন যুবলীগ নেতা।

ধর্ষিত শিশুকে বিচারের আশ্বাস দিয়ে আবারও ধর্ষন

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২১ মে, ২০১৭
  • ২৯ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: সিলেটের বিয়ানীবাজারে ধর্ষিত এক শিশুকে বিচার পাইয়ে দেয়ার আশ্বাসে আটকে রেখে তার ওপর আবারও যৌননির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শনিবার (২০ মে) রাতে উপজেলার দেউলগ্রামে অভিযান চালিয়ে সারোয়ার আহমেদ (৩৫) নামে এক লন্ডন প্রবাসীকে আটক করেছে র‌্যাব। আর ওই বাড়ি থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী শিশুর পরিবারের সদস্য ও র‌্যাব জানায়, কানাইঘাট উপজেলার এরালিগুল গ্রামের এক দরিদ্র পরিবারের ছোট মেয়ে ওই শিশুটি। পরিবারের বড় ছেলে একটি হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর গ্রামের প্রভাবশালীরা তাদের গ্রামছাড়া করেন। এ সময় ওই ব্যক্তি তার স্ত্রী ও এক শিশু সন্তানকে নিয়ে গ্রাম ছেড়ে চলে যান। তবে ১২ বছরের ওই কন্যাশিশুকে নিরাপত্তার জন্য বড় ভাইয়ের কাছে রেখে যান। তিনি নিজে স্ত্রী ও অপর শিশু সন্তানটিকে নিয়ে বিয়ানীবাজার উপজেলার দেউলগ্রামের লন্ডন প্রবাসী সারোয়ার আহমেদের বাড়িতে আশ্রয় নেন।

ধর্ষিত শিশুটির বাবা বলেন, “কয়েক দিন পরই ভাই সামসুদ্দিনের ছেলে জমির উদ্দিন কৌশলে আমার মেয়েকে একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে উপজেলার ছোটফৌজ গ্রামের মুজির উদ্দিন ও নারাইনপুর গ্রামের আজির উদ্দিনকে নিয়ে জমির তার ওপর পালাক্রমে যৌন নির্যাতন চালায়। পরে তারা আরও বেশ কয়েক দিন তার ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায়।”

তিনি জানান, এক পর্যায়ে মেয়ে বিষয়টি তাকে জানালে গত ২৭ এপ্রিল তিনি শিশুটিকে নিয়ে লন্ডন প্রবাসী সারোয়ারের বাড়িতে আশ্রয় নেন। ইতিমধ্যে শিশুটি তার মাকে তার ওপর চলা পাশবিক নির্যাতনের সব ঘটনা খুলে বলে। বাবা বিষয়টি শুনে প্রবাসী সারোয়ারের সাহায্য চান। তিনি সাহায্যে এগিয়ে এসে ২৯ এপ্রিল শিশুটিকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা শিশুটির ওপর যৌন নির্যাতনের প্রমাণ পান এবং চিকিৎসা শেষে ৩০ এপ্রিল থানায় অভিযোগ দায়েরের পরামর্শ দেন। কিন্তু অভিযোগ দায়ের করার ক্ষেত্রে বাধ সাধেন সারোয়ার। তিনি মেয়েটিকে তার বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে যান।

আক্ষেপ করে ধর্ষিতার বাবা জানান, “যার কাছে আশ্রয় নিলাম, সেই সারোয়ার কয়েক দিন পর আমার এই মেয়ের ওপরই পাশবিক নির্যাতন শুরু করেন। শিশুটি আবারও তার মায়ের কাছে বিষয়টি জানালে, বিষয়টি সারোয়ারের মা ও স্ত্রীকে জানানো হয়। এ নিয়ে পারিবারিক কলহ শুরু হয়। সারোয়ার স্ত্রীকে পাঠিয়ে দেন শ্বশুর বাড়িতে। এরপর তিনি শিশুটিকে রেখে দেন তার নিজ ঘরে। শিশুটিকে নিয়ে তার বাবা-মা বাড়ি চলে যেতে চাইলে তাদের ওপর নির্যাতন চালান সরোয়ার। সবশেষ নির্যাতনের মাত্রা এতটাই প্রকট হয় যে, মেয়েটিকে রেখেই পালিয়ে আসেন তারা।

পরে তিনি তার গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মোস্তাক আহমেদ বিষয়টি জানান। এরপর এ ব্যাপারে র‌্যাব-৯ এর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার মুনির আহমেদ হাসপাতালে ভর্তি ভিকটিমের মায়ের সঙ্গে কথা বলে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে রাতেই অভিযানে যান। রাত আড়াইটায় র‌্যাব বিয়ানীবাজার উপজেলার দেউলগ্রামে সরোয়ারের বাড়িতে পৌঁছে সারোয়ারের পাশের কক্ষ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে। এ সময় সারোয়ারকে আটক করে।

অভিযানে নেতৃত্বদানকারী র‌্যাব-৯ এর কোম্পানি কমান্ডার মুনির আহমেদ জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শিশুটিকে যৌন নির্যাতনের প্রমাণ পেয়েছেন তারা।

নির্যাতিত শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে জানায়, হাত-পা বেঁধে তার ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায় চাচাতো ভাই জমির উদ্দিন ও তার সহযোগীরা। যন্ত্রণায় ছটফট করলেও তারা ছাড়েনি। কাউকে বললে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়। সেখান থেকে মুক্ত হয়ে সারোয়ারের যৌন নির্যাতনের শিকার হয়। বিষয়টি সারোয়ারের মা এবং স্ত্রীকে জানিয়েও কোনো লাভ হয়নি বলে জানায় শিশুটি।

এ বিষয়ে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চন্দন কুমার চক্রবর্ত্তী বলেন, এ বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই । আর আসামিকে র‌্যাব এখনো বিয়ানীবাজার থানায় হস্তান্তর করেনি।

20 – Femme

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24