শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ জগন্নাথপুরের টমটম চালকের হত্যাকাণ্ড উন্মোচিত,ঘাতকের স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি প্রদান জগন্নাথপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় জন্মাষ্টমী উদযাপন জগন্নাথপুরে সরকারি গাছ কাটায় সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ভারত-পাকিস্তান গুলি বিনিময় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা ১৭ নভেম্বর টমটম গাড়ীর জন্য জগন্নাথপুরের এক চালককে রশিদপুরে নিয়ে খুন,গ্রেফতার-১ জেলা আ.লীগের গণমিছিল ৫ বছরেও শেষ হয়নি জগন্নাথপুরের ভবেরবাজার-গোয়ালাবাজার সড়কের কাজ,দুর্ভোগ লাখো মানুষের “জুম্মু কাশ্মীরে,গণতহ্যা শুরু করেছে মোদী সরকার”

বিতর্কে সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগ

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
  • ৫৪ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক ::
যুবলীগ। ক্ষমতাসীন আ.লীগের সহযোগী সংগঠন। যুব সমাজের কাছে খুব জনপ্রিয় এই সংগঠনটি। কিন্তু সুনামগঞ্জে গত এক বছর ধরেই নানা কারণে বিতর্কিত এই সংগঠনটি। সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক খায়রুল হুদা চপল হাওরের বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতির মামলায় গ্রেফতার হওয়ার আবারও আলোচনায় এসেছে যুবলীগ।
গত বছরের ১২ এপ্রিল সুনামগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খায়রুল হুদা চপলকে আহ্বায়ক ও রাশিয়া আ.লীগের যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান সেন্টু ও ব্যবসায়ী খন্দকার মনজুর আহমেদকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে ১৮ সদস্যের জেলা যুবলীগের কমিটি অনুমোদন করে কেন্দ্র। কমিটিতে ছিল নতুন মুখের ছড়াছড়ি। কমিটির অনেকেই আগে স্থানীয় কোন সংগঠনের দায়িত্বে না থাকলেও যুবলীগের জেলা কমিটিতে ঢুকে যান। বাদ পড়েন আগের কমিটির সবাই।
জেলা কমিটি সুনামগঞ্জ সদর ও পৌর কমিটি গঠন করতে গিয়েই আলোচনায় আসে। বিতর্কিত অনেকেই ঢুকে পড়েন কমিটিতে।
চলতি বছরের ১ মার্চ সুনামগঞ্জ-১ আসনের এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের বাসায় হামলায় হয়। রতন তখন অভিযোগ করেছিলেন যুবলীগ নেতৃবৃন্দ এ হামলার সঙ্গে জড়িত। ওইরাতেই পৌর যুবলীগের আহ্বায়ককে আটক করে পুলিশ। জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়কসহ বেশ কয়েক জনের বিরুদ্ধে হামলার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়। তখন বিষয়টি নিয়ে জাতীয় সংসদেও আলোচনা হয়। এর রেশ কাটকে না কাটতেই গত ২ জুলাই হাওরে বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগে মামলা দায়ের করে দুদক। এতে আসামি করা হয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নূর ট্রেডিং-এর মালিক ও জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক খায়রুল হুদা চপল, সদস্য বিপ্রেশ রায় বাপ্পী, জেলা যুবলীগের সাবেক সদস্য পার্থ সারথী পুরকায়স্থকে। জেলা আইনজীবী সমিতির মামলায়ও তাদের আসামি করা হয়।
গত ২৬ জুলাই পৌর যুবলীগের সদস্য হাসানুজ্জামান ইস্পাহানিকে তরুণী অপহরণ মামলা ও গণধর্ষণের অভিযোগ গ্রেফতার করে পুলিশ। এর আগে বেশ কয়েকবার গ্রেফতার হয় সে। ইস্পাহানি যুবলীগের রাজনীতিতে দীর্ঘদিন ধরেই সক্রিয়। সে জেলা পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী।
সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে দুদকের মামলার আসামি জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক খায়রুল হুদা চপলকে হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে এপিবিএন’র সহায়তায় সিঙ্গাপুর যাবার সময় আটক করে দুদক। বুধবার সকালে চপলকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে কারাগারে পাঠানোর আবেদন করেন মামলার বাদী ও তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের সহকারী পরিচালক ফারুক আহমেদ। শুনানি শেষে ক্ষমতাসীন দলের যুব সংগঠনের এই নেতাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক।
তবে তাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে তার অনুসারীরা বুধবার শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। এসময় তারা দাবি করেন, খায়রুল হুদা চপলকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে।
সুনামগঞ্জ আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদক এনামুল কবির ইমন বলেন, “কৃষকের রুটি-রুজি নিয়ে যারা রাজনীতি করে, প্রতিপত্তি বানায়; তাদের রাজনীতি করার কোনো অধিকার নেই। রাজনীতির জন্য এটা কালো অধ্যায়।”

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24