বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:৩৫ অপরাহ্ন

ভালোবাসার ভাঙন থেকে সম্পর্কটাকে বাঁচাতে…

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ৬৬ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডেস্ক::

ভালোবাসা খোঁজার কাজে খুব সহজেই হয়তো সফলতা মেলে। কিন্তু একে এগিয়ে নেওয়ার বিষয়টা বেশ জটিল হয়ে ওঠে। অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিক্স জানায়, ব্রিটেনে সম্পর্ক নিয়ে অসুখী হয়ে ওঠার হার বাড়ছে যুগলদের মধ্যে। ২০০৯ সালে যে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়েছিল তার চেয়ে বর্তমানে সম্পর্কে জটিলতা অনেক বেশি।

যদি সঙ্গী হয়রানিমূলক আচরণ করেন, তবে তাকে যত দ্রুত সম্ভব ত্যাগ করা ভালো। কিন্তু যারা সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে হিমশিম খাচ্ছেন, তাদের জন্য বিশেষজ্ঞরা কিছু কৌশল অবলম্বনের কথা বলেন। এতে জটিলতা অনেক সহজে কমে আসবে। এতে খাদের কিনারা থেকে নিরাপদে আনতে পারবেন দুজনের মধ্যকার ভালোবাসা।

সিনেমা দেখুন : আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অব রোচেস্টারের গবেষকরা ১৭৪ জন জুটির ওপর গবেষণা চালায়। গবেষণায় বলা হয়, সম্পর্ক বিষয়ে প্রতিমাসে ৫টি সিনেমা একসঙ্গে দেখলে বিচ্ছেদের হার অনেক কমে আসে। এসব ছবির মাধ্যমে মানুষ সম্পর্কে তার সঙ্গী-সঙ্গিনীর মানসিকতা ও চাহিদা সম্পর্কে বুঝতে পারে।

ইমোজির ব্যবহার : কে জানে যে একটি ভালোবাসা বা চুমুর ইমো সম্পর্কটাকে বাঁচিয়ে দিতে পারে? অতি জনপ্রিয় হয়ে ওঠা ইমোজির ব্যবহার আন্তরিক যোগাযোগ সৃষ্টি করে বলে জানায় ব্যানগোর ইউনিভার্সিটির গবেষকরা। ছোট ছোট ওই হলুদ চেহারাগুলো আবেগ প্রকাশের সবচেয়ে কার্যকর মাধ্যম। এর মাধ্যমে ভালোবাসার মানুষের প্রতি মনের ভাব স্পষ্ট প্রকাশ করা যায়।

পাশে থাকুন : ব্যক্তিগত বিষয়কে সম্পর্কের মাঝে কিভাবে মূল্যায়ন করবেন সে বিষয়কে সাইকিয়াট্রিতে ‘ফার্মিং’ বলা হয়। চোখে চোখ রেখে কথা বলার মতো যোগাযোগ সৃষ্টি পুরুষদের ক্ষেত্রে কঠিন হয়ে ওঠে। এসব ক্ষেত্রে প্রয়োজনে স্রেফ তার পাশে বসে থাকুন। এভাবে কথা বল সময় কাটান। সম্পর্ক অনেক গভীর হতে থাকবে। অনেকেই সম্পর্ক নিয়ে কথা বলতে লজ্জবোধ করেন। ফলে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো আলোচনায় আসে না। এ সমস্যা থেকে যেকোনো একজন মুক্তির পথ দেখাতে পারেন।

বিতর্ক বা অভিযোগ : সম্পর্কের তিন বছর পর ছোটখাটো বিষয় নিয়ে একেবারেই তর্কে না জড়ালে তা বিপদ সংকেত। ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটনের মনোবিজ্ঞানী জন গটম্যান মনে করেন, তর্ক-বিতর্কে লিপ্ত হওয়া প্রতিশ্রুতিবদ্ধ সম্পর্কের একটি অংশ। তবে একে স্বাস্থ্যকর পর্যায়ে রাখতে হবে।

একযোগে ব্যায়াম : দুজনই ব্যায়ামের অভ্যাস গড়ে তুলুন। আর একসঙ্গে জিমনেশিয়ামে গিয়ে ব্যায়াম করুন। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বলা হয়, দুজন একসঙ্গে ব্যায়াম করলে দৈহিক অন্তরঙ্গতা সৃষ্টি হয়। এভাবে টানা ৬ মাস ব্যায়াম করলে দুজনের প্রতি দুজনেরই টান বাড়ে।

তবে মনে রাখতে হবে, দুজনের মধ্যে অনেক বৈচিত্র্যতা থাকতে পারে। এ নিয়ে ভিন্ন পন্থায় উপকার মিলতে পারে। দুজনের মধ্যে আবেগপ্রসূত আলাপচারিতার চর্চা চালাতে হবে। তাহলেই ভাঙনের সম্ভাবনা ধীরে ধীরে শূন্যের কোঠায় পৌঁছবে। সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24