শনিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২০, ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
পৌর মেয়র আব্দুল মনাফের মরদেহে হিন্দু কমিউনিটি নেতাদের শ্রদ্ধা নিবেদন চিরনিদ্রায় নিজের তৈরী কবরে শায়িত জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আব্দুল মনাফ শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় জগন্নাথপুর পৌরসভার জননন্দিত মেয়র আব্দুল মনাফকে শেষ বিদায়,জানাজায় শোকার্ত মানুষের ঢল পৌর মেয়র আব্দুল মনাফ এর মরদেহে পরিকল্পনা মন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন পৌর চত্বরে মেয়র আব্দুল মনাফের মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সন্মেলনে পরিবর্তনের পক্ষে তৃণমূল নেতাদের আওয়াজ জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আব্দুল মনাফের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে এসেছে:শোকার্ত জনতার ঢল জগন্নাথপুরে শিশুর মৃত্যু:’শিশুটি যখন মৃত্যুের যন্ত্রনায় চটপট করছিল,যখন ডাক্তার-নার্স ঘুমে’ জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আব্দুল মনাফ এর মরদেহ গ্রামের বাড়িতে এসেছে শোকার্ত জনতার ঢল জগন্নাথপুরের চিলাউড়া হলদিপুর ইউনিয়ন আ.লীগের সম্মেলন সম্পন্ন হলেও কমিটি হয়নি

যে পাঁচটি সুন্নত না মানায় দাম্পত্য সুখ হচ্ছে না!

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৭
  • ৫১ Time View

কাউসার আহমদ লাবিব : আমরা আমাদের দৈনন্দিনের কাজ নিয়ে এতোটাই ব্যস্ত হয়ে পড়ি যে একে অপরকে (স্বামী-স্ত্রী) সময় দিতে পারি না। সৌভাগ্যক্রমে আল্লাহ তাআলা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মধ্যে একটি নিখুঁত প্রতিকৃতি মানব জাতিকে উপহার দিয়েছেন। রাসুলের (সা.) সুন্নাত অনুসরণের মাঝেই রয়েছে চ‚ড়ান্ত সফলতা। স্বামী-স্ত্রী সম্পর্ককে পুনরায় জাগিয়ে তোলার জন্য, অথবা সুখকর করে তোলার জন্য এখানে পাঁচটি কার্যকর-শক্তিশালী নববী দিক নিদের্শনা তুলে ধরা হলো।

একে অপরের (স্বামী-স্ত্রী) সাথে হাস্যোজ্জ্বল থাকা : আমাদের রাসুল (সা.) বেশিরভাগ সময়ই হাস্যোজ্জ্বল থাকতেন। এমনকি রাসুলের (সা.) স্ত্রীরা বলতেন যে, আমরা তার থেকে বেশি হাস্যোজ্জ্বল অবয়বময় আর কাউকে দেখিনি । এটা ভুলে গেলে চলবে না যে- একটি হাসি কতটা পাওয়ারফুল হতে পারে। স্বামী-স্ত্রী সুখে এবং দুঃখে সব সময়ই এক সাথে থাকে। সুতরাং নিজেদের মুখ গোমরা না করে রেখে সদা হাস্যোজ্জ্বল রাখাই হবে উভয়ের কতর্ব্য। এছাড়াও আমাদের নবী (সা.) বলেছেন, একটি হাসিও হতে পারে সদকা। (আল-হাদিস)

একে অপরের (স্বামী-স্ত্রী) সাথে ভালো কথা বলুন : আমাদের নবী (সা.) বলেন, যে আল্লাহকে এবং শেষ দিবসকে বিশ্বাস করে সে যেন ভালো কথা বলে অথবা চুপ থাকে। (আল-হাদিস) এটা স্বামীদের কর্তব্য, বিশেষত যখন স্বামী-স্ত্রী কাছাকাছি থাকেন। সুতরাং প্রতিদিন আপনি আপনার স্ত্রীর প্রশংসা করার চেষ্টা করুন।

একে অপরের (স্বামী-স্ত্রী) ওপর রাগ করবেন না : যখন হজরত আলী (রা.) হজরত ফাতেমাকে (রা) বিবাহ করেছেন, তখন রাসূল (সা.) হজরত আলীকে (রা.) একটি গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ দিয়েছেন। উপদেশটা এতোটাই গুরুত্বপূর্ণ ছিলো যে, আমাদের নবী সেটাকে তিনবার বলেছেন। উপদেশটি হলো- পারিবারিক কোনো কারণে তুমি রাগ করবে না। স্বামী-স্ত্রী একসাথে ঘুরতে বের হন : আমাদের রাসূল (সা.) স্ত্রীদের সাথে অনেক সময় কাটাতেন। তিনি এক ছাদের নিচে আলাদা আলাদা থাকতেন না। নবী (সা.) স্ত্রীকে সাথে নিয়ে হাঁটতে বের হতেন। ঘুরতে যেতেন। এমনকি বিভিন্ন কাজে তার পরামর্শও নিতেন।

স্ত্রীকে বলুন, আমি তোমাকে ভালোবাসি : আল্লাহর নবী (সা.) কখনো এটা বলতে ভয় করেননি। আমাদের ধর্মের এমনটা বলতে উৎসাহিত করা হয়েছে। কেননা এই কথা পারিবারিক অনেক সমস্যার সমাধান করে দিতে পারে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24