রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌকাবাইচ:এবার সোনার নৌকা,সোনার বৈঠা জিতল কুতুব উদ্দিন তরী জগন্নাথপুরে সড়ক সংস্কার-অবৈধ যান অপসারণের দাবীতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মালিক,শ্রমিক নেতারদের জগন্নাথপুরে এনজিও সংস্থা আশা’র উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপি ফিজিওথেরাপী চিকিৎসা ক্যাম্প শুরু জগন্নাথপুরে মারামারি মামলাসহ বিভিন্ন ওয়ারেন্টের ১১ আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ

শাহ আব্দুল করিম নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা সম্পন্ন

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৭
  • ২৬ Time View

স্টাফ রিপোর্টার ::
বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমের জন্মভিটা দিরাইয়ে তাঁর শৈশবের স্মৃতিবিজড়িত কালনী নদীতে ‘শাহ আবদুল করিম নৌকা বাইচ’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শাহ আবদুল করিম স্মৃতি ও গবেষণা পরিষদ আয়োজিত এই নৌকা বাইচে হাওরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে অন্তত ৩০টি নৌকা প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। নদীর দুই তীরের প্রায় তিন কিলোমিটার এলাকায় সারি সারিভাবে দাঁড়িয়ে ঐতিহ্যবাহী এই নৌকা বাইচ প্রত্যক্ষ করেন হাজারো দর্শক। প্রতিযোগিতা শেষে সন্ধ্যায় স্থানীয় সংসদ সদস্য ড. জয়া সেনগুপ্তা বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার প্রদান করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত পৌর মেয়র বিশ্বজিৎ রায়, শাহ আবদুল করিম স্মৃতি ও গবেষণা পরিষদের উপদেষ্টা বাউল শাহ আবদুল তোয়াহেদ, শাহ আবদুল করিম স্মৃতি ও গবেষণা কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফ চৌধুরী প্রমুখ।
শাহ আবদুল করিম স্মৃতি ও গবেষণা পরিষদ সূত্রে জানা গেছে, শাহ আবদুল করিমের নামেই এবার তার শৈশবের প্রিয় নদী কালনীতে নৌকাবাইচের উৎসব আয়োজন করা হয়। দুটি ক্যাটাগরিতে সিলেট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, নেত্রকোণা, কিশোরগঞ্জসহ হাওর জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে গত শনিবার ২৪টি নৌকা রেজিস্ট্রেশন করে। রবিবার সকাল থেকেই দিরাই পৌর শহরের নদীর দুই তীরে প্রায় ৩ কি.মি. এলাকাজুড়ে সারি সারিভাবে দর্শকরা উপস্থিত হন। রোববার দুপুর থেকেই দুই ক্যাটাগরিতে বাইচে অংশ নেয় নৌকাগুলো। বাইচালরা ছিলেন লাল ও হলুদ গেঞ্জিপরা। তাদের কণ্ঠে ছিল শাহ আবদুল করিমের নৌকা বাইচের গান। বাইচের তালে তালে সম্মিলিত কণ্ঠে নৌকা বাইচের গান আলাদা দ্যোতনা তৈরি করেছিল দর্শকদের মনে। হাজার হাজার নারী পুরুষ নৌকা বাইচ প্রত্যক্ষ করতে জড়ো হন দিরাই শহরের কালনীর দুই তীরে।
নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় প্রথম হয় দিরাই উপজেলার নাসিরপুর নৌকা। দ্বিতীয় হয়েছে হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং এলাকার ‘বাঘহাতা’ নৌকা। তৃতীয় হয়েছে দিরাই উপজেলার মেঘনা নৌকা। বিজয়ীদের আকর্ষণীয় পুরস্কারের পাশাপাশি প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া সবগুলো নৌকার সংশ্লিষ্টদের সান্ত¦না পুরস্কার দেওয়া হয়।
শাহ আবদুল করিম স্মৃতি ও গবেষণা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফ চৌধুরী বলেন, হাওরের ফসল হারিয়ে কৃষকরা নিঃস্ব হয়ে যাওয়ার পর তাদের মন থেকে আনন্দ চলে গিয়েছিল। সেই নিস্তরঙ্গ মনে এক পসলা আনন্দ দিতে আমরা বাউল স¤্রাট শাহ আবদুল করিমের নামে তার এলাকায় ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের আয়োজন করি। নৌকার উপস্থিতি আর হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতি প্রমাণ করেছে হাওরের সংগ্রামী মানুষ ঘুরে দাঁড়াতে চায়। আমরা উৎসবের মাধ্যমে কষ্টে জর্জরিত কৃষকদের শক্তি জোগানোর চেষ্টা করেছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24