শনিবার, ২৪ অগাস্ট ২০১৯, ১০:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌকাবাইচ:এবার সোনার নৌকা,সোনার বৈঠা জিতল কুতুব উদ্দিন তরী জগন্নাথপুরে সড়ক সংস্কার-অবৈধ যান অপসারণের দাবীতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মালিক,শ্রমিক নেতারদের জগন্নাথপুরে এনজিও সংস্থা আশা’র উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপি ফিজিওথেরাপী চিকিৎসা ক্যাম্প শুরু জগন্নাথপুরে মারামারি মামলাসহ বিভিন্ন ওয়ারেন্টের ১১ আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ

স্পট রানীগঞ্জ- আয়োজনে হ-য-ব-র-ল অবস্থা, পুলিশ ছিল অসহায়

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০১৭
  • ৩৮ Time View

স্টাফ রির্পোটার :: মন্ত্রীকে দেখতে সকাল থেকেই রানীগঞ্জের জনপদে দলীয় নেতাকর্মীর পাশাপাশি বিভিন্ন স্থান থেকে মানুষের ঢল নামে। সকাল ১১টার দিকে আকাশে হেলিকপ্টারের দেখা মিলতেই উৎসাহী আ.লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে আনন্দ দেখা দেয়। তারা উল্লাস করতে থাকেন এবং স্লোগান দিতে শুরু করেন। অবস্থা এমনই ছিল যে সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে বহনকারী হেলিকপ্টার মাটিতে অবতরণ করতে দেরি হলেও এ আকাশযানের পাশে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের ভিড় করতে বিলম্ব হয়নি। এ সময় পুলিশ প্রশাসনের দায়িত্বশীলরা এসব অতিউৎসাহী নেতাকর্মীদের বাধা দিলেও পুলিশি বাধার বিপরীতে অনেকটাই বল প্রয়োগ করতে থাকেন তারা। নিজেদেরকে আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতা পরিচয় দিয়ে পুলিশের সঙ্গে তারা কথা কাটাকাটি ও ধাক্কাধাক্কিতেও জড়িয়ে পড়েন। মন্ত্রী যখন হেলিকপ্টার থেকে নেমে পুলিশের পক্ষ তাঁকে দেয়া অভিবাদন গ্রহণের জন্য মাঠে অস্থায়ীভাবে স্থাপিত মঞ্চের দিকে অগ্রসর হতে থাকেন তখন এসব অতিউৎসাহীদের বিড়ম্বনায় পড়েন তিনি। এ অবস্থায় অনেকটাই ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন ওবায়দুল কাদের। পরে তিনি মঞ্চে যাওয়ার একপর্যায়ে বিরক্ত প্রকাশ করে হাঁটা বন্ধ করে দেন। এ অবস্থায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ ও জেলা আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীলরা হস্তক্ষেপ করলে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়।
অভিবাদন গ্রহণের পর মন্ত্রী রাণীগঞ্জ সেতুর ভিত্তিফলক উন্মোচন করতে গেলে সেখানে কিছু স্থানীয় নেতার অনুসারীরা বিশৃঙ্খলার চরম পর্যায়ে পৌঁছেন। সকলেই মন্ত্রীর সঙ্গে ছবি উঠতে সামনে এগিয়ে যাওয়ায় আ.লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ ও সংসদ সদস্যরাও পড়েন বিব্রতকর অবস্থায়। এতে করে ফলক উন্মোচনের আনুষ্ঠানিকতা অনেকটাই হযবরল রূপ নেয়। এ সময় গণমাধ্যমকর্মীরাও নেতা-কর্মীদের ধাক্কাধাক্কিতে বিপাকে পড়েন।
এসব উচ্ছৃঙ্খল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে প্রথমেই অনুষ্ঠানের পরিবেশ স্বাভাবিক করতে সকলকে অনুরোধ করেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান।
অনুষ্ঠানে ধাক্কাধাক্কির সঙ্গে কর্মীরা তাদের নেতার নামে শুরু করেন স্লোগান। এরকম বেশ কয়েকটি গ্রুপের অনুসারীরা স্লোগান দিতে থাকেন। এমন পরিস্থিতিতে মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে সকলকে শান্ত হওয়ার জন্য অনুরোধ জানান কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ। কিন্তু সে অনুরোধও রাখেননি স্লোগান ও ধাক্কাধাক্কিতে মত্ত থাকা ওই নেতাকর্মীরা।
এক পর্যায়ে এ পরিস্থিতি ও আনুষ্ঠানিক আয়োজন নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি নিজেই মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে বিশৃঙ্খল নেতাকর্মীদের ধমক দেন। এক পর্যায়ে তিনি বক্তব্য শুরু করলে হই-হট্টগোল কমতে শুরু করে।
এসময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সুনামগঞ্জের অনেক সুনাম আমি শুনেছি। কিন্তু আপনারা যা করলেন তাতে সুনামটা আর রাখলেন কই? আমাদের তো কোন নেতার দরকার নাই। স্লোগান দিলেন তো খুব। এইসব স্লোগান দিয়ে কী লাভ হলো…? হয়েছে কোন লাভ? আমি যে মঞ্চে দাঁড়িয়েছি এখানে নেতার সংখ্যা এতোই বেশি যে আমার দাঁড়ানোর জায়গা নাই। আমার তো কোন নেতার প্রয়োজন নাই, আমার কর্মীর প্রয়োজন। যদি কর্মী হতে পারেন তাইলে আওয়ামী লীগে আপনাদেরও দরকার আছে। আপনারা এতোই উৎসাহী যে, ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনই করতে পারলাম না। শুরু করে দিয়েছেন নামকরণ নিয়ে টানাটানি। আমি একদিনে ২০টা ব্রিজও উদ্বোধন করেছি। যদি আপনারা হতেন তাইলে তো আমার এক একটা ব্রিজ উদ্বোধন করতে এক একদিন সময় লাগতো। সিলেটের লোক শুনেছি খুবই শান্তিপ্রিয় কিন্তু এতো হট্টগোল সিলেটের রাজনীতির সঙ্গে মানায় না’।
রাণীগঞ্জ সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের ফলক উন্মোচন পরবর্তী সংক্ষিপ্ত বক্তব্য শেষে মন্ত্রী এক কর্মকর্তাকে এমন অব্যবস্থাপনার জন্য ভৎসনা করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24