শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে বাংলা মিরর সম্পাদক আব্দুল করিম গনি সংবর্ধিত জগন্নাথপুরে তিনদিন ব্যাপি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন ব্রিটেনের নির্বাচনে আফসানার বড় জয়ে জগন্নাথপুরে উৎসবের আমেজ ব্রিটিশ পালার্মেন্টে ঝড় তুলবে বিজয়ী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৪ নারী এমপি ব্রিটেনের নির্বাচনে একটি আসনে বিশাল জয় পেয়েছেন জগন্নাথপুরের আফসানা বেগম অপরাধীদের প্রতি মহানবীর আচরণ যেমন ছিল সুদখোরদের ধরতে জেলা ও উপজেলায় মাঠে নামছে প্রশাসন জগন্নাথপুরে হাওরের জরিপ কাজ শেষ, কাজের তুলনায় বরাদ্দ কম, প্রকল্প কমিটি হয়নি একটিও জগন্নাথপুরে ডিজিটাল বাংলাদেশ উপলক্ষ্যে র‌্যালি, চিত্রাঙ্কন ও কুইজ প্রতিযোগিদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ জগন্নাথপুরে শিশু সাব্বির হত্যার ঘটনার গ্রেফতার-১

ফলোআপ, গ্রেফতার আতঙ্কে পুরুষ শুন্য জগন্নাথপুরের শ্রীধরপাশা

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ৪০ Time View

বিশেষ প্রতিনিধি ::
জগন্নাথপুরের শ্রীধরপাশা গ্রামে দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রামটি এখন পুরুষ শুন্য হয়ে পড়েছে।

রোববার দুপুরে সরজমিন ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। শনিবার স্থানীয় মাদ্রাসার জমির নিলামকে কেন্দ্র করে গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে ৩৭জন গুলিবিদ্ধসহ অর্ধশতাধিক ব্যক্তি আহত হন। পুলিশ সংঘর্ষে জড়িত থাকার সন্দেহে এ পর্যন্ত ১০ জনকে আটক করেছে। জগন্নাথপুর থানার ওসি হারুনুর রশিদ চৌধুরী রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন সংঘর্ষের ঘটনায় ফয়সল আহমদ বাদী হয়ে ৩৭ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানান, উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের শ্রীধরপাশা গ্রামবাসীর সঙ্গে বিএনপি নেতা জাবেদ আলম কোরেশীর গোষ্টির সঙ্গে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মামলা মোকদ্দমাও রয়েছে। গ্রামবাসির পক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা আবদুল মালিক ও ফয়সল আহমদ। দীর্ঘদিন ধরেই গ্রামবাসীর পক্ষে জাবেদ আলম কুরেশীর লোকজনের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র র্দীঘদিনের বিরোধ চলছিল। যার জের ধরে ঘটনার দিন স্থানীয় গ্রামের মাদ্রাসার জমি নিলামকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের লোকজনের মধ্যে প্রথম বাকবিতন্ডা থেকে এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন আগ্নেয়াস্থসহ দেশীয় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হলে এতে ৩৭গুলিবিদ্ধসহ অর্ধতাশিক ব্যক্তি আহত হন। সংঘর্ষে কয়েক রাউন্ড বন্ধুকের গুলি ছোড়া হয়েছে। উদ্ধার হয়নি সংঘর্ষে ব্যবহৃত অস্ত্র।
সরজমিন পরির্দশকালে দেখা গেছে গ্রামের চারিদিকে নিরব নিস্তেজ। নেই অন্যান্যা দিনের মতো মানুষের কোলাহল। সংঘর্ষের পর থেকে গ্রামের বাসিন্দারা আতংকে বসতভিটা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। গ্রেফতারের ভয়ে দিনের বেলায় হাতেগোনা কয়েকজন পুরুষকে দেখা গেছে। তবে রাতে সে সংখ্যা শূন্যের কোটায় নেমে আসতে পারে বলে গ্রামের কয়েকজন জানিয়েছেন। বর্তমানে গ্রামের বেশিরভাগ বাড়িতে নারী ও শিশুরাই শুধু অবস্থান করছেন। তাদের চোখে-মুখেও রয়েছে আতংকের ছাপ। এলাকাজুড়ে থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে।
স্থানীয় কলকলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল হাসিম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শনিবার সংঘঠিত দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশী ভয়ে গ্রাম ছেড়ে পালিয়েছে লোকজন। নিরপরাধ ব্যক্তি যাতে হয়রানির শিকার না হয় সে দিকে পুলিশ প্রশাসনকে সজাগ থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24