বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৭:২৪ পূর্বাহ্ন

জগন্নাথপুরে বন্যা পরবর্তী করণীসভায়- ক্ষতিগ্রস্থদের দুর্ভোগ লাঘবে পদক্ষেপ গ্রহনের আহবান

স্টাফ রিপোর্টার::
  • Update Time : সোমবার, ২২ জুলাই, ২০১৯
  • ২৭৪ Time View

সুনানমগঞ্জের জগন্নাথপুরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ দরিদ্র পরিবারদের পূর্নবাসন করা, সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণ, কৃষকদের মধ্যে ঋন প্রদান এবং যাতাযাত সড়কগুলো দ্রুত সংস্কার করে জনদুর্ভোগ লাঘবে জরুরী ভিত্তিত্বে পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বিশিষ্টজনরা আহবান জানিয়েছেন। আজ সোমবার দুপুরে জগন্নাথপুর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে বন্যা পরবর্তী করণীয় বিষয়ক  এক মতবিনিময় সভা বক্তারা এ আহবান জানান।
জগন্নাথপুরের ইউএনও মাহফুজুল আলম মাসুমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তারা বলেন, গত কয়েকদিনের অব্যাহত বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে জগন্নাথপুর পৌরসভার একাংশসহ উপজেলার কমপক্ষে ৪০ গ্রামের লোকজন পানিবন্ধি হয়ে পড়েছেন। অনেকের বসতঘরে পানি ওঠে যাওয়ায় আশ্রয় কেন্দ্রে এবং স্বজনদের বাড়িতে অবস্থান করছেন। বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে অসংখ্যা গ্রামীণ রাস্তা-ঘাট। গত তিনদিনে পানি কিছুটা কমলেও মানুষ এখনও পানি বন্দি অবস্থায় রয়েছে। বেড়েছে জন দুর্ভোগ। এসব দুর্গত এলাকার জনসাধাণের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট ব্যবহার, স্যানেটিশন, যোগাযোগ ব্যবস্থা, ক্ষতিগ্রস্থ দরিদ্রদের পূর্নবাসন করা ও কৃষকদের ঋন প্রদানসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আহবান জানানো হয়। সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জগন্নাথপুরের এসিল্যান্ড ইয়াসির আরাফাত, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, কলকলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হাসিম, রানীগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম রানা, পাইলগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মখলিছ মিয়া, জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শংকর রায়, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মুধ সুধন ধর, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত ওসমান মজুমদার, উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম সারোয়ার, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী আব্দুর রব সরকার, জগন্নাথপুর থানার এসআই কবির, এনজিও সংস্থা কেয়ারের প্রতিনিধি অরূপ রতন দাস প্রমুখ।
পাইলগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মখলিছ মিয়া বলেন, আমাদের ইউনিয়নের কমপক্ষ ১৫ গ্রামের লোকজন এখনও পানিবন্দি। বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। বন্যা পরবর্তী দুগর্তদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে আমরা প্রশাসনের প্রতি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য আবহান জানিয়েছি।
জগন্নাথপুরের প্রবীন সাংবাদিক জগন্নাথপুর প্রেসক্লাব সভাপতি শংকর রায় বলেন, জগন্নাথপুরের নি¤œঞ্চালসহ উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলে কমপক্ষে ৪০ গ্রামের মানুষ ৮ থেকে ১০দিন ধরে বন্যা কবলিত অবস্থায় দুর্ভোগে রয়েছেন। এসব এলাকার দুর্গতের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণ, ক্ষতিগ্রস্থ যোগাযোগ ব্যবস্থা, পূর্নবাসন এবং কৃষকদের ঋনসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আমরা প্রশাসনের প্রতি আহবান জানিয়েছি।
জগন্নাথপুরের ইউএনও মাহফুজুল আলম মাসুম জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বন্যা ক্ষতিগ্রস্থদের সবধরনের সহায়তা প্রদানে সরকারী নির্দেশনায় আমরা কাজ করছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24