রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
জগন্নাথপুরে নৌকাবাইচ:এবার সোনার নৌকা,সোনার বৈঠা জিতল কুতুব উদ্দিন তরী জগন্নাথপুরে সড়ক সংস্কার-অবৈধ যান অপসারণের দাবীতে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি মালিক,শ্রমিক নেতারদের জগন্নাথপুরে এনজিও সংস্থা আশা’র উদ্যোগে তিনদিন ব্যাপি ফিজিওথেরাপী চিকিৎসা ক্যাম্প শুরু জগন্নাথপুরে মারামারি মামলাসহ বিভিন্ন ওয়ারেন্টের ১১ আসামী গ্রেফতার জগন্নাথপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু জগন্নাথপুরে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামুলক সভা অনুষ্ঠিত ২১ আগস্টের মাস্টারমাইন্ডদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে আপিল করা হবে: ওবায়দুল কাদের ধর্মীয় শিক্ষার প্রয়োজন চিরদিন ৭১’র বয়স ৫ মাস,তবুও মানবতাবিরোধী অপরাধে সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা,প্রত্যাহারের দাবী ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতায় জগন্নাথপুর-বেগমপুর সড়কে অসহনীয় দুর্ভোগ

চুনারুঘাটে ৫ পুলিশের বিরুদ্ধে গৃহবধূর মামলা

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১২ আগস্ট, ২০১৭
  • ১৩৩ Time View

জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকম ডেস্ক :: চুনারুঘাট থানার ৬ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নারী শিশু ও নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন এক গহবধূ। আদালত এ বিষয়ে পুলিশ সুপারকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দিয়েছেন। আসামিরা হলেন, এসআই দেলোয়ার হোসেন, এএসআই সাজিদ, এসআই আতিকুল আলম খন্দকার, এএসআই রিপন বড়ুয়া, এএসআই জোসেফ ও কনস্টেবল সুমন মিয়া। মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১লা আগস্ট সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় হাতুন্ডা গ্রামে চুনারুঘাট পৌরসভার সাবেক কমিশনার ইউনুছ মিয়ার বাড়িতে হানা দেয় একদল পুলিশ। এ সময় ইউনুছ মিয়ার স্ত্রী ৪ সন্তানের জননী শাহানা খাতুন চার বছর বয়সী ছেলেকে কোলে নিয়ে রাতের রান্নার কাজ করছিলেন। এ সময় চুনারুঘাট থানার এসআই দেলোয়ার হোসেন (৪০) ও এএসআই সাজিদ মিয়া (৩৮)সহ চারজন পুলিশ সদস্য বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করে তার স্বামী কোথায় জানতে চান। স্বামীর অনুপস্থিতির কথা জানাতেই এসআই দেলোয়ার শাহানার ওপর চড়াও হয়ে শারীরিক নির্যাতন চালান। শাহানার চিৎকারে পুলিশ পালিয়ে যাবার চেষ্টা করে। এ সময় ঘরে থাকা শোকেসের গ্লাসের ওপর পড়ে দারোগা দেলোয়ার আঘাত পান। এ ঘটনার সঙ্গে সঙ্গেই অন্য পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে এসে ওই ঘরে হামলা চালিয়ে শাহানাকে এলোপাতাড়ি মারধর ও পাশবিক নির্যাতন শুরু করে। পরে বন্দুকের বাট দিয়ে আঘাত করলে শাহানা মারাত্মক আহত হন। খবর পেয়ে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে তাদেরকেও মারধর ও ভয় প্রদর্শন করে পুলিশ সদস্যরা। একপর্যায়ে পুলিশ সদস্য স্থান ত্যাগ করলে প্রতিবেশীরা আহত শাহানাকে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। মামলার আইনজীবী মো. নুরুল ইসলাম জানান, উল্লেখিত পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে গত ৬ই আগস্ট আদালতে অভিযোগ দায়ের করলে আদালত পুলিশ সুপারকে সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দেন। পুলিশ ও এলাকাবাসীরা জানান, মাদক মামলার পলাতক আসামি ইউনুছ মিয়াকে আটক করতে গেলে আসামি ইউনুছ মিয়া দারোগা দেলোয়ারকে আহত করে পালিয়ে গিয়েছিল। হাসপাতাল থেকে ফিরে এসে গত ৬ই আগস্ট আহত দারোগা দেলোয়ার অন্যান্য পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ইউনুছ মিয়ার খোঁজে পুনরায় আসামির বাড়িতে গেলে এ ঘটনা ঘটে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24