সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
শালুকের ঠোঁটে ফুটে বিজয় || আব্দুল মতিন জগন্নাথপুর উপজেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন জগন্নাথপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার সম্পন্ন, ১২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত জগন্নাথপুরে প্রবাসি সংগঠনের উদ্যেগে দরিদ্র মানুষের মধ‌্যে ত্রাণ বিতরণ দিরাইয়ে সংঘর্ষ, গুলিতে নিহত ১, গুলিবিদ্ধসহ আহত ২০ ফ্রান্স আওয়ামী লীগের উদ্যাগে শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস পালিত ভারতীয় মুসলিমদের পাশে থাকার আহবান ভারত থেকে ৯ পণ্য আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বাংলাদেশের সমাজ মেরামতের দায়িত্ব আলেমদের জগন্নাথপুরে ব্রিটিশ বাংলা এডুকেশন ট্রাস্টের রিসোর্স সেন্টারের কাজ পরিদর্শনে ট্রাস্টের প্রতিনিধিদল

লন্ডনে ডক্টর এনামুল ও ডক্টর রাজিয়ার সম্মানে সভা অনুষ্ঠিত

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুন, ২০১৭
  • ৫৮ Time View

আমিনুল হক ওয়েছ(লন্ডন) যুক্তরাজ্য থেকে :

যুক্তরাজ্যে সফররত সিলেটের ইমরান আহমদ মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ ও শাহজালাল সিটি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ডক্টর এনামুল হক সরদার এবং সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগি অধ্যাপক ডক্টর রাজিয়া সুলতানা চৌধুরীর সম্মানে লন্ডনে বিশ্ববাংলানিউজ২৪ ডটকমের উদ্দোগে এক সম্বর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার পূর্ব লন্ডনের একটি হলে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় বিশ্ববাংলানিউজ২৪ ডটকমের উপদেষ্টা গয়াছ আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন – জগন্নাথপুর টাইমস্ ডটকমের সম্পাদক ও সৈয়দপুর আদর্শ কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মুহাম্মদ শাহেদ রাহমান ।
বিশ্ববাংলানিউজ২৪ কমের সম্পাদক শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন – টাওয়ার হামলেট কাউন্সিলের স্পিকার কাউন্সিলর সাবিনা আক্তার ।

সংবর্ধিত অতিথি শিক্ষকদের সম্মান জানিয়ে বক্তব্য রাখেন -ব্রিকলেন ট্রাস্টের সভাপতি শাহ মুনিম, সাবেক ডেপুটি মেয়র মুহাম্মদ শাহীদ আলী , অধ্যাপক শাহ জাহান, আব্দুল বাছির, ব্রিটবাংলা২৪ এর নির্বাহী সম্পাদক আহাদ চৌধুরী বাবু , বাংলাদেশ সেন্টারের নির্বাহী পরিচালক জাহাঙ্গীর খান , ডেইলী স্টারের যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি সাংবাদিক আনছার আহমদ উল্লাহ , দৈনিক উত্তরপূর্বের যুক্তরাজ্য প্রতিনিধি সাংবাদিক মতিয়ার চৌধুরী , সাপ্তাহিক জনমতের এসিসটেন্ট এডিটর মুসলেহ উদ্দিন আহমদ ও কমিউনিটি নেতা সমুজ আলী চৌধুরী প্রমুখ৷a4

প্রধান অতিথির বক্তব্যে লন্ডনের ঐতিহ্যবাহি টাওয়ার হামলেট কাউন্সিলের স্পিকার কাউন্সিলর সাবিনা আক্তার বলেন- পৃথিবীর সর্বত্রে এখন নারী জাগরন, নারীরা এগিয়ে না আসলে সমাজ পিছিয়ে যাবে। ঘর সামলানোর পাশাপাশি সমাজের উন্নয়নে নারীদের এগিয়ে আসা উচিত । ভাবতে ভাল লাগে বিলেতের পাশাপাশি বাংলাদেশের নারীরাও এগিয়ে যাচ্ছেন সুন্দরভাবে সমাজকে আলোকিত করে । তারি প্রমান এই প্রবাসের মাটিতে আজ সংবর্ধিত ডক্টর রাজিয়া সুলতানা ও ডক্টর এনামুল হক । আমি তাদেরকে অন্তর থেকে অভিনন্দন জানাই আমার বারার পক্ষ থেকে । সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য শিক্ষার বিকল্প নেই । আমি অভিভূত আজকের সংবর্ধিতরা একই পরিবারেরই দুজন এবং শিক্ষার বিস্তারে কাজ করছেন ৷
লন্ডনে সম্মাননার জবাবে ডক্টর এনামুল হক সরদার এই সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন- একটি দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের মূলভিত্তি হলো শিক্ষা । আমি আমার সামাজিক দায়বদ্বতা থেকেই প্রায় তিনদশক ধরে আলেকিত মানুষ ও সমাজ বিনির্মাণে পারিবারিক ভাবে কাজ করে যাচ্ছি । গ্লোবাল বিশ্বে বাঙালি বাংলাদেশীরা যে যেখানে অবস্থান করিনা কেন হ্রদয়ে বাংলাদেশ মাতৃভূমিকে লালন করে একে অপরের শ্রদ্ধাবোধের মধ্যদিয়ে যেন এগিয়ে যাই । প্রবাসীরা বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে যেভাবে তুলে ধরে আলোকিত করছেন সেই ধারা চলমান রাখতে আমাদের সবাইকে সচেষ্ট থাকতে হবে ।
তিনি তার বক্তব্যে সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণের ব্যাখ্যা দিয়ে বলেন – বর্তমান সিলেট জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানকে আমি সম্মান করি, শ্রদ্ধা করি হ্রদয় থেকে ; আমি তার সুস্বাস্থ্য দীর্ঘায়ূ কামনা করি ।

সংবর্ধিত আরেক অতিথি ডক্টর রাজিয়া সুলতানা বলেন- আপনাদের ভালোবাসায় আমরা আজ ঋণী হলাম বিলেতের মাটিতে । এই প্রবাসে নারী আজ পিছিয়ে নেই, তারি নন্দিত উদাহরণ ওয়েসমিনিস্টার পার্লামেন্টে আবারো ব্রিটিশ বাঙালি তিন নারীর বিজয় পদচারণ , বাঙালিকে বর্হিবিশ্বে মাথা উচু করে দাঁড়ানোর পথ সুগম করেছে । ভবিষ্যতেও সেই পথ যেন হয় শান্তির আলোয় ঘেরা ।

তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে প্রবাসীদের গৌরব উজ্জল অংশ গ্রহণ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য ছিলো সহায়ক শক্তি নিয়ামক । বাংলাদেশের স্বাধীনতার সময় প্রবাসীদের তুলনা ছিল অতুলনীয় ।

অনুষ্ঠানে ডক্টর এনামুল হক সরদারের বৃদ্ধা মা সালেহা খাতুন – অত্যান্ত আবেগ ও ভালোবাসা এবং স্মৃতি চারনের বক্তব্য সবাই প্রানভরে উপভোগ করেন ।
তিনি সন্তানদের নিয়ে তার স্বামীর স্বপ্নের স্মৃতিচারণ করে আরো বলেন- আমার স্বামী একসময় এই বিলেতে আসতে চেয়েছিলেন, কিন্তু দালাল টাকা মেরে দিয়ে লাপাত্তা হয়ে যায়। তখনই তিনি পরিকল্পনা করেন দেশে থেকেই সন্তানদের মানুষ করবেন । মহান আল্লাহসুবহানাতালা সেই আরজি কবুল করেছেন । আমার সন্তানরা আজ মানুষ হয়েছে, আদর্শ মানুষ । সমাজে শিক্ষার উন্নয়নে কাজ করে আজ এই ব্রিটিশের মাটিতে আপনাদের ভালোবাসা পেয়েছে , সম্মান পেয়েছে সবই মহান আল্লাহর কুদরতি ইশারা ।7

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24