রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৮:০৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সংস্কারের দাবীতে জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে মঙ্গলবার থেকে আবারও অনিদিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট মিরপুর ইউপি নির্বাচনে মনোনয়ন বাছাই,চেয়ারম্যান ৭প্রার্থীসহ ৬৫ জন বৈধ, দুই প্রার্থী বাতিল কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নতুন ২ কাণ্ডারির পরিচিতি জনগণের মৌলিক অধিকার ও আইনের শাসনে গুরুত্ব দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী দ.সুনামগঞ্জে বিদেশী রিভলবারসহ গ্রেফতার ১ সাংবাদিক এ এস রায়হানের পিতার মৃত্যু, জানাজা সম্পন্ন পাটলী উইমেন্স কলেজ উন্নয়নে প্রবাসীদের ১২ লাখ টাকার অনুদান জগন্নাথপুরে শ্রমিক-ব্যবসায়ীদের দ্বন্দ্বের নিস্পত্তি, পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার বাংলাদেশে ঢুকে মসজিদ নির্মাণে বিএসএফ’র বাধা প্রদান জগন্নাথপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন

সুনামগঞ্জে বিচারপ্রার্থীকে মারধর, বাতিল করা হয়েছে আইনজীবীর সদস্য পদ

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭
  • ২৬ Time View

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: আইনজীবী পরিবর্তনের জের ধরে বিচারপ্রার্থীকে মারধরের ঘটনায় এক আইজীবীকে সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কৃত আইনজীবী হলেন, তৌহিদ আহমদ চৌধুরী দবির। একই ঘটনায় ক্ষমা চেয়ে শাস্তি থেকে রেহাই পেয়েছেন আরেক আইনজীবী জুনেদ আহমদ। তবে তাকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, গত ২৯ জানুয়ারি সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে একটি মামলার আইনজীবী পরিবর্তন করার জের ধরে ওই দুই আইনজীবীর হাতে মারধরের শিকার হয়েছিলেন বিচার প্রার্থী (নারী শিশু মামলার আসামি) মজিবুর রহমান (৪০)। জেলা আইনজীবী সমিতির তদন্তে ঘটনার সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় একজনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার ও অপরজনকে সতর্ক করে দেয়া হয়।

সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি সূত্রে জানা যায়, লাঞ্ছনার শিকার বিচারপ্রার্থী মজিবুর রহমান জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়নের চাইরগাঁও গ্রামের বাসিন্দা। তিনি একটি জিআর মামলার আসামি। বেশ কিছুদিন তার পক্ষে মামলা পরিচালনা করেছিলেন আইনজীবী তৌহিদ আহমেদ চৌধুরী দবির ও জুনেদ আহমেদ। গত জানুয়ারি মাসের শেষ দিকে ওই মামলা নারী শিশু ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর হলে মজিবুর রহমান আইনজীবী পরিবর্তন করেন। তিনি নতুন করে অ্যাড. আবুল আজাদ রুমানকে আইনজীবী নিয়োগ করেন। এ ঘটনায় ২৯ জানুয়ারি (রোববার) দুপুরে আইনজীবী তৌহিদ আহমেদ চৌধুরী ও জুনেদ আহমেদ বিচারপ্রার্থী মজিবুর রহমানের কাছে আইনজীবী পরিবর্তনের কারণ জানতে চান। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির জের ধরে জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যালয়ের ভেতরে মজিবুর রহমানকে মারধর করেন আইনজীবী তৌহিদ আহমেদ চৌধুরী ও জুনেদ আহমেদ। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন মারধরের শিকার মজিবুর রহমান। দুই আইনজীবীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেয়ে জেলা আইনজীবী সমিতি অ্যাড. শফিকুল আলমকে আহ্বায়ক এবং অ্যাড. মল্লিক মঈন উদ্দিন আহমেদ সোহেল ও অ্যাড. মোহাম্মদ মানিককে সদস্য করে তিন সদস্য তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। বিচারপ্রার্থীকে মারধরের সত্যতা পান তদন্ত কমিটি। অ্যাড. জুনেদ আহমদ ওই দিনের ঘটনার দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমাপ্রার্থী হলে শান্তি থেকে রেহাই পান। তৌহিদ আহমদে চৌধুরী দবিরকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়।
সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. আব্দুল হক বলেন, ‘মজিবুর রহমান নামে এক বিচারপ্রার্থী দুইজন আইনজীবীর হাতে মারধরের শিকার হয়েছিলেন। এঘটনায় তিনি জেলা আইনজীবী সমিতির কাছে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন। তদন্তে ঘটনা প্রমাণিত হয়েছে। একজন দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চাওয়ায় তাকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। অন্যজন ক্ষমা না চাওয়ায় স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর কর্তৃপক্ষ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৯
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebasjagannathpur24